Skip to content

সাংবাদিকতা; পুলিশ উইদাউট একাউন্টিবিলিটি

ব্লগারের প্রোফাইল ছবি

নিজেকে দেখলে মনে হয় আমি একজন পুলিশ। পুলিশের বস থাকে, আমার কোন বস নাই। পুলিশের ঘুষ খেতে গিয়ে ধরা খেয়ে খাগড়াছড়িতে বদলী হতে হয়। আমি গিয়ে কোন ব্যবসায়ীকে ভয় দেখিয়ে চাঁদা নিয়ে ধরা খেলেও আমাকে কেউ কোথাও ট্রান্সফার করবে না; আমি যে জাতির বিবেক, অন্ধকারে হারিকেন।

আমার অসীম ক্ষমতা। আমারে কোন রাজনীতিবিদ শিভাসের বোতল না পাঠালে; তার পিছে জুনিয়র সাংবাদিক লেলিয়ে দিই। ডিজিএফ আই পয়লা বৈশাখে আমাকে মিষ্টি আর ফুল পাঠায়। না পাঠিয়ে যাবে কোথায়; আমি যে সাংবাদিক।

যে সরকার আমাকে একটা প্লট না দেয়, তাকে আমার বেয়াদব সরকার মনে হয়। সাংবাদিককে খুশী না করে কতদিন টেকে এরা দেখে নেবো।

আমি দুই কলম অভিমত কলাম লিখতে পারি। দুনিয়ার আর কেউ পারেনা। আমি হাসিনা-খালেদাকে নিয়মিত নসিহত করি। উনারা কী রাজনীতি আমার চেয়ে বেশী বোঝেন? আমি বাংলার সেরা মতিখন্ড; শের-এ-মতি।

আমার বড়ছেলে এক প্রেস মালিকের কাছে প্রিন্টিং-এর কাজ করিয়ে; কাজের কোটি টাকার বিল না দিয়ে প্রেস মালিকটাকে হাসপাতালে পাঠিয়েছে। লোকটার অনাহারী পরিবারের সদস্যরা আমার রুমের বাইরে বসে থাকে। আমি বিরাট সাংবাদিক; রাজনীতির হীরে-পান্না-মান্নারা আমার অফিস-রুমে বসে থাকে। বাইরে এই প্রেস মালিকের পরিবারের মরা কান্না ভালো লাগেনা। আমি বেরিয়ে ঝাড়ি দিয়ে দিই। আর যেন তোদের এখানে না দেখি।

আমার ছোট ছেলে ইংরেজী উপন্যাস লেখে। আমরা পরিবারতন্ত্রের দেশের লোক। ছেলেটাকে সাহিত্যের জমিদার হিসেবে প্রতিষ্ঠিত করে তবেই ছাড়বো। জুনিয়রেরা যদি আমার ছেলের বইয়ের রিভিউ না লেখে; ওদের জাস্ট ফায়ার করে দেবো।

আমার এই পুলিশী কর্মযজ্ঞে বিরক্ত আমার স্ত্রী। এক সাইলেন্ট সেপারেশনে একাকী আমি। তাতে কী শোবিজের আকলিমা নদী আমার জন্য ব্ল্যাক ফরেস্ট পেস্ট্রি নিয়ে আসে প্রতিদিন। একটু সাফল্যের গল্প করার সাথী আমার। কেউ এটাকে কোন একনায়কের তরুণী সাথী ভাববেন না। আমি প্লেটোনিক। আমার ফ্রয়েডীয় রিরংসা থাকে আমার ক্ষমতার সর্বোচ্চ অপরাধে। কে কোথায়, কীসে প্রশমিত হয় বলা মুশকিল!

আমি সাংবাদিক; তুড়ি দিয়ে সরকার ওড়াতে পারি, সমাজ বদলে দিতে পারি, তারকা বানাতে পারি; আমি সব পারি। আমি খ্রিস্টোফার মার্লোর ড ফস্টাস।

আমি কোটি টাকা খরচ করে পেরিল-প্রথম জাজিরা সং যাত্রা করতে পারি। কিন্তু কোন মন্ত্রী তার এলাকায় গেলে, এলাকাবাসী কোটি টাকার গম্ভীরা গান গাইলে আমি তেতে উঠি। এতো তোরণ কেন? সৌনার নৌকা কেন? বাচ্চারা রাস্তায় দাঁড়িয়ে পতাকা ওড়াবে কেন। আমি ফোন করি লোকাল প্রতিবেদক কে; ঐ ব্যাটা আবুল; এই মন্ত্রীরে চাইপা ধর। ক্যাচ দিস ফিস। আমি প্রধানমন্ত্রী মাছ ধরতে পারলে তুই আবুল একটা প্রতিমন্ত্রী মাছ ধরতে পারবি না। তুই কিরে!
আবুল ঝেড়ে দেয় গরুর রচনা। ১৯৯১ সাল থেকে মন্ত্রীদের তোরণ সংস্কৃতির সমালোচনার একই চোথা। খালি মন্ত্রীর নাম চেঞ্জ করলেই স্টোরী রেডি। বিপুল অর্থের অপচয়, বাচ্চারা ক্ষিদে পেটে মুখ শুকনা করে পতাকা ওড়াচ্ছিল। এ অমানবিক। এ যেন সেনাশাসকের আচরণের ছায়া।

প্রতিবেদন ছাপা হলে সচেতন সমাজে ছি ছি পড়ে যায়। আমরা কী এই বাংলাদেশ চেয়েছিলাম!
দেখলেন, আবুলকে একটা ফোন দিয়ে আমি কী করতে পারি। দিনে দশটা ফোন দিলে ছি ছি রি রি’র সুনামী বয়ে যাবে। সাবধান প্রধানমন্ত্রী। আমাকে অবহেলা করবেন না।

আজকাল কবি ইকবালের আসরার-এ-খুদী পড়ি। রাতে ঘুমাতে পারিনা। আধঘুমে আধ জাগরণে মনে হয়; খোদা আমার সঙ্গে কথা বলেন সরাসরি। আই এম দ্য চোজেন হীরে-মতি। এটাকে অনেকে হ্যালুসিনেশন ভাবতে পারেন। সো হোয়াট। আই ডোন্ট কেয়ার। আমি একটা ছবি ছেপে সারাদেশের হিন্দুপল্লী পুড়িয়ে দিয়ে; সুইমিংপুলে সাঁতরে সাঁতরে বাঁশী বাজাতে পারি।
আমি গোটা বাংলাদেশকে নৈতিকতা শেখাবো। খবরদার আমার ছেলের প্রিন্টিং-প্রেসের বিল না দেওয়ার প্রসঙ্গ তুলবেন না ফট করে। বড় মেশিনের সিস্টেম লস হবেই।

মাঝে মাঝে মনে হয় কালাশনিকভ উদ্ভাবনের চেয়ে নিউজ উদ্ভাবন বেশী শক্তিশালী। একটা পারমানবিক প্ল্যান্টের চেয়ে অনেক বেশ তাপ উতপন্ন হয় আমার মিডিয়া প্ল্যান্ট থেকে। আপনারা আমার চিন্তা চুল্লীর শক্তি যেইদিন উপলব্ধি করতে পারবেন; সেই দিন থেকে আর পথ হারাবে না বাংলাদেশ।


ব্লগারের প্রোফাইল ছবি

আপনার লেখাটা পড়ার জন্য লগ ইন করলাম অনেক অনেক ধন্যবাদ লেখাটার জন্য,ভালো থাকবেন।

__________________
জয় বাংলা,জয় বঙ্গবন্ধু


ব্লগারের প্রোফাইল ছবি

অনেক ধন্যবাদ ভাই।


ব্লগারের প্রোফাইল ছবি

চমৎকার লিখেছেন।

amit


ব্লগারের প্রোফাইল ছবি

ধন্যবাদ।


ব্লগারের প্রোফাইল ছবি

আমুতে অনেক দিন পরে ভাল লেখা পড়লাম ।

.....................................................................................................................।

মানুষ না হলে, আওয়ামীলীগ, বিএনপি, হিন্দু, মুসলিম কিছুই হওয়া যায় না ।


ব্লগারের প্রোফাইল ছবি

smile :) :-) ভালো থাকবেন।


ব্লগারের প্রোফাইল ছবি

লেখা নিয় কিছু বললাম না,
ব্লগের একটা উদ্দেশ্য মনে হয় পাঠকদের সাথে কমিউনিকেট ঐটায় একটু খেয়াল রাখবেন ।

............................................................................................
..-ফিরিয়ে দিচ্ছি অর্ঘ্য, বানী-..
..থোকাফুলের লুকোনো কাঁটায়..
..চুমু খেয়েছে অদ্ভূত সাপিনী..
..কাঁটায় রাখো হাত অথবা গলায় জড়াও ঠান্ডা সুতো! তুমি মৃত!" ..........


ব্লগারের প্রোফাইল ছবি

খেয়াল রাখব। ধন্যবাদ।


ব্লগারের প্রোফাইল ছবি

আমি বাংলার সেরা মতিখন্ড; শের-এ-মতি।

মতি-চোরা কি জয় হো !!! Tongue


ব্লগারের প্রোফাইল ছবি

Cool


ব্লগারের প্রোফাইল ছবি

চরম লেখা। Spot on!


ব্লগারের প্রোফাইল ছবি

ধন্যবাদ।


ব্লগারের প্রোফাইল ছবি

ভালো লাগলো , ফেনসিডিলের অধ্যায়টা মিসিং মনে হলো!

attorney


ব্লগারের প্রোফাইল ছবি

লাভলী লাভলী গপ্পো আরেকদিন। ধন্যবাদ।


ব্লগারের প্রোফাইল ছবি

আহা..........মধু,মধু.... মইত্যার পত্রিকায় কলাম হিসাবে ছাপতে পারলে ভাল হত!

ছায়া শিকারী


ব্লগারের প্রোফাইল ছবি

সুন্দর পোষ্ট

abujakaria


ব্লগারের প্রোফাইল ছবি

কালিয়া তুফান, চালাইয়া যাও।


ব্লগারের প্রোফাইল ছবি

অনেক ভাল লাগল।

mohmmed ali sayem

glqxz9283 sfy39587p07