Skip to content

‘সাঁঝের মায়া’ জন্মদিনে ‘উদাত্ত পৃথিবী’র শুভেচ্ছা

ব্লগারের প্রোফাইল ছবি

খুব গোপন গহিন নিশীথে, দুঃস্বপ্নের মাকড়ের জালের মতন ঝিল্লী আবরণ ভেদ করে যখন জেগে উঠি, অকারনেই পড়ে থাকা জানালার স্ফটিক-হিম ফ্রেম পেরিয়ে অস্তিত্বের এক কঙ্কাল হাত বাড়িয়ে দেয়; ঘুনে ধরা, পোকায় কাটা বিছানাটা মর্মর করে তার অতৃপ্ত নিঃশ্বাসে, নিঃশ্বাস বন্ধ হয়ে আসে, আত্মাটা কঙকালের হাত ধরে বেরিয়ে পড়ে; নক্ষত্রের তলে, কালো অজগরের সর্বগ্রাসী পরিতৃপ্ত পেটে শীতকালীন নিদ্রায় আশ্চর্য হজম হতে থাকা নির্জীব, নিস্তেজ আমার মৃতপ্রায় সংস্কৃতির, বোধের এই নগরীর নাগালের বাইরে প্রাণপণে ছুটে যাই- ছুটে যাই দুঃসাহসিকতার মহাকাল ছুঁয়ে, গঙ্গার ধার বেয়ে, অশোক-আম্রপলির কানন পেরিয়ে; তারপর বহুকাল বহুকাল ধরে, বিচিত্র সব স্তিমিত-অলস গন্ধ মাড়িয়ে, বেনির মত পাক খেয়ে খেয়ে পথ খুঁজে ফিরি, যে পথে বিষণ্ণ বালক ছায়ার রেখায় হাতড়ে বেড়ায় কাজলা দিদি, যে পথে অপুর ট্রেন চলে যায়, যেখানে গজমোতির মালা পড়ে নিশ্চিন্তে ছোটন ঘুমায়; ঠিক সেই খানে আমি নতুন এক জন্ম দেখি, দেখি তার বেড়ে ওঠা, শাশ্বত উজ্জ্বলতার নিয়তি, দেখি কৌতূহলী দুচোখ ভরে, ইন্দ্রজালের উষরলোকে দেখি তার অমরত্ব; তারপর ধীরে ধীরে জেগে উঠি, পুনরায় চাঁদের নিচে প্রাচ্যের গ্রন্থাগারে যেথায় নব্য মৃণ্ময়ীরা মোজাইক মেঝেতে গর্বিত পদচিহ্ন ফেলে হারিয়ে যাওয়া একচিলতে আকাশে দেখে, আশ্চর্য ঘুনপোকা কুটকুট করে কেটে খায় শিশুর শৈশব, সোনালি সবুজ হিরণ্ময় সময়গুলি চতুর্মাত্রিক বক্সের ইঁদুর-বেড়ালের পেছন পেছন ছুটে, তারপর কী দারুণ বিতৃষ্ণায় লোহার এই গরাদগুলো ভাঙতে গিয়ে নিজের হাড়গোড় চূর্ণ করা, কাঁচের সাঁড়শিতে নাক ডুবিয়ে খুঁজে বেড়ানো, হ্যামিলিওনের আশ্চর্য বাঁশিওয়ালার মতন বিবর্ণ ধূসর বাঙলার মাটির সোঁদা গন্ধ নিয়ে আসেন সুফিয়া কামাল- আমাদের নিয়ে চলেন আশ্চর্য এক ময়ূরাক্ষী নদীর তীরে।



কিছু কিছু নারী হন প্রতিমার মত নান্দনিক, শুচিস্মিতা, তাদের সংবেদনশীল মনন, রুচিশীল বৈদগ্ধের পরশ আমদের সুস্নিদ্ধ করে, যাঁদের প্রজ্ঞাধারায় নিত্য অবগাহন করি, যাঁদের হৃদয়ের হেমন্তের ফসল ফলানো সোনালি আলোর আমন্ত্রণ হাতছানি দিয়ে যায় যুগে যুগে; তিনি কর্মী, তিনি কর্মবীর, প্রখর মরুময় বাঙলার বুকে তিনি জমেছিলেন নিটোল এক হিমকণা হয়ে, সেকালের আচার-বিচার-সংস্কারের আপাদমস্তক আবদ্ধ পুঁটলি থেকে ফিনিক্স পাখির মতন স্বপ্নময় পুনর্জাগরণী হয়েছিলো এক কবির, এক দিক-দ্রষ্টার তিনি সুফিয়া কামাল। বাঙলা সাহিত্যের নীলাভ ঘাসের জমিতে আদরের মিহিন মসলিন নক্ষত্রের আঁচল বিছিয়ে তিনি বুনেছেন নকশিকাঁথা, পরম মমতায় জড়িয়ে দিয়েছেন অন্ধকার ঘরে, দেয়ালের কার্নিশ ধরে দাঁড়িয়ে থাকা বাঙালির মননের মৃত্তিকা অঙারে, আর অপরাহ্ণের রাঙা আলোকে তাঁকে জেনেছি- তিনি ‘জননী সাহসিকা’ আবার কেউ বা বলেন ‘খালাম্মা’।

‘এলে আলোয় আলো, আমার নয়ন হতে আঁধার মিলালো’- জন্মকথা

সুফিয়া কামালের জন্ম ১৯১১ সালের ২০ জুন, ১০ই আষাঢ়, ১৩১৮ বরিশালের শায়েস্তাবাদে নবাব পরিবারে। আজ ১০১ বছর পর তাঁর জীবনে তাকিয়ে দেখি, বৈশাখী বাতাসের মতই তুলোর বুননে কোমল অথচ যুগস্রস্টা, আলোর পথের কুসুম কুড়ানিয়া, নিরন্তর উন্মীলিত প্রাণ, সন্ধ্যাপ্রদীপ হাতে নিয়ে হেঁটে চলেছেন শতাব্দীকাল রবির খোঁজে, বদ্ধতার লাল দরজাটা খুলে দিয়ে আকাশ মৃত্তিকার নক্ষত্রের প্রাঙণে মমতার মধু রস বিলিয়েছেন বাঙালির চেতনার পল্লবে পল্লবে।

ড. আনিসুজ্জামান বলেছেন

কোনগুণে এতো বড় একটা আসন তিনি লাভ করলেন? কেবল কবি হিসেবে নয়, শুধু নারী সমাজের নেত্রী হিসেবে নয়, বক্তৃতা-বিবৃতি দিয়ে নয়। তার সকল কর্ম, সকল রচনা, সকল ভাবনার সমন্বয়ে আর সবকিছুর মূলে তার চরিত্রগুণে তিনি এ আসনটি পেয়েছেন। তার কোমল মাতৃহৃদয় থেকে দেশের মানুষের প্রতি ভালোবাসা যেমন স্বত্যোৎসারিত হয়, তেমনি বুক ভরা সাহস নিয়ে জাতির প্রয়োজনে ভগ্নস্বাস্থ্য এই মানুষটি অকুতোভয়ে এসে দাঁড়ায় অন্যায়ের প্রতিবাদ করতে। মা যেমন সন্তানকে আগলে রাখে, বিপদে-সম্পদে তিনি আমাদের তেমনি করে আগলে রেখেছেন।




‘পটভূমির ভিতর গিয়ে কবে তোমায় দেখেছিলেম আমি’- সাহিত্য কর্মকথা

মাত্র সাত বছর বয়সে বেগম রোকেয়ার সাক্ষাত পেয়েছিলেন, জীবনের চলার পথের অমূল্য পাথেয় রূপে তিনি বরণ করেছেন তাঁকে, রমণীয় করেছেন, স্মরণীয় করেছেন সেই সময়কে-

বেগম রোকেয়ার সাথে আমার যখন দেখা হয় তখন তো আমি ছোট, ৬-৭ বছর বয়স। বেগম রোকেয়ার দারুণ প্রভাব আমার জীবনে। তাই তাঁর প্রসঙ্গে কিছু বিস্তারিত কথা বলবো। আম্মাকে ফুফুআম্মা ডাকতেন বেগম রোকেয়া। রক্তের সম্পর্ক কি না জানি না, তবে কুটুম্বিতা ছিল। তা কলকাতায় আমরা গেছি, তখন আমি ছোট, সাত বছর হবে। একদিন শুনি যে স্কুলের গাড়ি এসেছে 'ইস্কুলকা গাড়ি আয়া' বলে হাঁক। তা দেখি যে এক মস্ত গাড়ি এসেছে। আম্মা-খালাম্মা সবাই বারান্দায় বসে আছেন। দেখি যে ছোটখাটো সুন্দর একটি মেয়ে মানুষ উঠে আসছেন। তা উঠে এসে পর পর আম্মাকে-খালাম্মাকে পায়ে হাত দিয়ে সালাম করলেন। 'রুকু' তুমি কলকাতায় আছ, আস না যে? জি হ্যাঁ, আমি তো কলকাতায়ই আছি। আমি তো আসি না; কিন্তু আপনারাই বা আমার কত খবর নেন? বললেন উনি হাসি মুখেই। উনি ইস্কুল-টিস্কুল করেছিলেন বলে তো মুসলমান সমাজের যত বড় বড় ঘরের সাথে আত্মীয়তা উনার, প্রায় সবাই উনাকে অস্বীকার করতে চাইত, এই রকম অবস্থা। তার পরে বসলেন। আমি ওখান দিয়ে যাচ্ছি আম্মা বললেন, 'সালাম কর, তোমার আপা হয়।' আমিও সালাম করলাম। উনি আম্মাকে বললেন, 'ফুফু আপনার মেয়ে?' আম্মা বললেন, হ্যাঁ। তখন উনি বললেন, 'আমার ইস্কুল তো আমি করেছি, সেখানে অনেক মেয়ে পড়ে, হিন্দু-মুসলমান সব মেয়ে পড়ে, কিন্তু আমার আত্মীয়স্বজনের কোনো মেয়ে আমার স্কুলে পড়ে না।' রওশন জাহান, খুরশীদ জাহান আমার চেয়ে বয়সে বড়, আমার খালাত ভাইয়ের মেয়ে। খালাম্মার ছেলের মেয়ে। ওদের কথা বললেন যে ওদেরকে লেখাপড়া শেখান না, আমার স্কুলে যদি দেন। এই তো পর্দা ঢাকা গাড়ি। গাড়িতে পর্দার মধ্যেই তো আসবে-যাবে। অনেক মুসলমান মেয়ে যখন আসছে। মেয়েদের দিলে খুশি হতাম। আম্মাকে বললেন, 'ওকে পড়াবেন?' আম্মা বললেন, 'আমি তো কলকাতায় থাকি না। আমি এসেছি, আবার ক-মাস পরেই চলে যাব। মাস দুই-তিন থাকব। নয়তো তোমার স্কুলে দিতাম পড়তে।' আমার খুবই ইচ্ছা তখন থেকে আমি যদি পড়তে পারতাম। কি জানি ছোটবেলা থেকে স্কুলে ত কোনোদিন যাইনি। যাওয়ার একটা ইচ্ছা ছিল। আমি আম্মাকে বলেছি, আম্মা স্কুলে যাব। আম্মা বললেন, আমরা ত থাকব না, না হলে তোমাকে স্কুলে দিতাম। তা আমরা আবার একদিন সেই বন্ধ গাড়িতে চড়ে স্কুলে গিয়ে দেখেটেখে এলাম। তখন স্কুলটা ছিল লোয়ার সার্কুলার রোডে। এখন তো সাখাওয়াৎ মেমোরিয়াল স্কুল লর্ড সিনহা রোডে। শুনলাম ওরা আমার খালাত ভাইয়ের মেয়েরা স্কুলে যাবে। আমার এত দুঃখ লাগল যে ওরা স্কুলে যাচ্ছে কিন্তু আমি যেতে পারব না। আমরা যে চলে আসব শায়েস্তাবাদে। তারপর অবশ্য ওদেরও আর স্কুলে যাওয়া হলো না। কারা কারা যেন বলল, হ্যাঁ এখন আবার মেয়েরা স্কুলে যাবে, হেন যাবে, তেন যাবে। আমরা শায়েস্তাবাদে চলে এলাম। ওরা আর স্কুলে যায়নি, একজন ইউরোপিয়ান গভর্নেস ওদের পড়াত। তা বেগম রোকেয়া বললেন যে ইউরোপিয়ান গভর্নেস বাড়িতে পড়ায়, কিন্তু আমরা স্কুলে আমার আত্মীয়-স্বজনের মেয়েরা নেই।এই কথাটা আমার এখনো মনে আছে। তারপর তো আমরা শায়েস্তাবাদে চলে এলাম। পরে যখন আবার কলকাতায় আসি তখন আমি বড় হয়েছি, বিয়েটিয়ে হয়ে গেছে। তখন এসে আবার উনার সঙ্গে দেখা। তখন উনি বললেন, ‘'ফুলকবি' তুই তো লেখাপড়া শিখিলি না, কিন্তু কবি তো হয়ে গেলি।


জীবনের কথা এভাবেই অকপটে স্বীকার করেছেন তিনি। অকপটে সত্য বলার চর্চাটা তিনি শিক্ষা দিয়েছেন, লেখনির মাধ্যমে।



কল্যাণীয় অশোক আশিসে স্নেহধন্যা তিনি রবিঠাকুর, নজরুলের, সেই যুগের কবিই তিনি। বুদ্ধদেব বসুর প্রায় সমসাময়িক; যদিও তাঁর কবিতায় রবিচ্ছাপ অনুকরণ উথলে উঠেছিল তবুও তিনি দেখিয়েছেন স্বকীয়তার নিজস্ব বাতাবরণ। ত্রিশোত্তর ধারার কবিতা হয়তো আসেনি তাঁর লেখনীতে তবুও আনন্দযজ্ঞের নিমন্ত্রণে পড়েনি তার বাধা, সেই রাজসভার অর্ঘ্যমালা কুড়িয়েছিলেন গৌরবেই। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক মনিরুজ্জামান বলেছেন;

রবীন্দ্রনাথ কি নজরুলের অনেক উপমা, বাকভঙির সহজ সহজ গ্রহণ সত্ত্বেও এসব উদ্ধৃতি কাব্যাংশে এবং অনত্র বেগম সুফিয়া কামালের আপন কণ্ঠ অনায়াসে চিনে নেয়া যায়।




তিনি কল্লোলের দলভুক্ত হননি, তাঁর ছিল রবীন্দ্র আলোকে নিজস্ব কাব্যলোক, যার পড়তে পড়তে ছিল অনুকারের খেলা, গীতধর্মী অন্তমিল চরনের সমন্বয়, বিশেষত; কল্লোলের সুবিখ্যাত পঞ্চকবি যখন বাজিয়েছেন নিজস্ব কৃষ্টির শেকড় হতে বিচ্ছিন্ন পশ্চিমাপন্থী আত্মমগ্নতার সুর, তখন তিনি স্রোতের বাইরে ঝঙ্কার তুলেছেন লোকপ্রবাদের, পুঁথি, মুরশিদির সুরে, নিজস্ব কল্পলোকের বাতাবরণে, কাব্যশৈলী আর কাব্যবোধের; রবীন্দ্র-নজরুল বলয় থেকে বেরিয়ে আসবার আহ্বান তিনি প্রত্যাখ্যান করেছেন, ঋজু ভঙ্গিমায় তার সুদৃঢ় কথন;

কেন আমি তা করতে যাবো? আমি কি একজন বাঙালি কবি নই? রবীন্দ্র-নজরুল কি আমাদের কাব্যধারার অবিচ্ছেদ্য অঙশ নন? আমাদের বাঙালি কবিদের প্রথমেই নিজেদের কাব্য-সত্তাকে জানতে ও পড়তে দিতে হবে এবঙ তারপরেই অন্যদের কাছ থেকে জানা ও গ্রহন করার কাজটা করতে হবে।


১৯৩৮শে কলকাতা থেকে প্রকাশিত ‘সাঁঝের মায়া’ কাব্যগ্রন্থই তাঁকে সর্বাধিক কবি খ্যাতি দিয়েছিলো, কাজী নজরুল ইসলাম লিখেছিলেন ভূমিকা;

কবি সুফিয়া এন হোসেন বাঙলা কাব্যগ্রন্থে উদয়তারা। অস্ততোরণ হতে আমি তাকে যে বিস্মিত মুগ্ধচিত্তে আমার অভিনন্দন জানাতে পারলাম, এ আনন্দ আমার স্মরণীয় হয়ে থাকবে।


রবি সাক্ষাত করেছেন বারবার সর্বপ্রথম ১৩২৯ এ, স্বামী সৈয়দ নেহাল হোসেনের সাথে, এরপর জন্মতিথিতে, গীতিকাব্যের অভিনয় দেখতে; ঠাকুরবাড়ির সুরুচি ও সৌন্দর্যবোধের নব্য রেনেসাঁসের মাধুকরী আভাতে পরিপূর্ণ অবগাহণ করেছিলেন, তারপর সেই পারিবারিক করবী সুবাতাস ছড়িয়ে দিয়েছেন বাঙলার নিভৃতকোনের অন্দর অবধি। রবীন্দ্রনাথ উপহার দিয়েছিলেন একটি পত্রকাব্য, যেটি তিনি লিখেছিলেন সুফিয়ার ‘পঁচিশে বৈশাখ’ কবিতার প্রতিউত্তরে

বিদায় বেলায় রবির পানে
বনশ্রী যে অর্ঘ্য আনে
অশক ফুলের করুণ অঞ্জলি,
আভাস তারি রঙিন মেঘে
শেষ নিমেশে রইল লেগে
রবি যখন অস্তে যাবে চলি।


তার কবিত্ব সামর্থে রবীন্দ্র মূল্যায়ন;

তোমার কবিত্ব আমায় বিস্মিত করে। বাঙলা সাহিত্যে তোমার স্থান উচ্চে এবং ধ্রুব তোমার প্রতিষ্ঠা। আমার আশীর্বাদ গ্রহণ করো।




সুফিয়া কামাল ছিলেন বাংলা সাহিত্যের প্রধান কবিদের একজন। তিনি অনেক ছোটগল্প এবং ক্ষুদ্র উপন্যাসও রচনা করেছেন। তাঁর রচিত ৯টি কাব্যগ্রন্থের মাঝে উল্লেখযোগ্য ‘সাঁঝের মায়া’ (১৯৩৮), ‘মায়া কাজল’ (১৯৫১), ‘অভিযাত্রিক’ (১৯৬৯), ‘মৃত্তিকার ঘ্রাণ’ (১৯৭০) ইত্যাদি। ‘কেয়ার কাঁটা’ (১৯৩৭) তার একটি উল্লেখযোগ্য গল্পগন্থ। লিখেছেন অসংখ্য শিশুতোষ রচনা, তাঁর আরো উল্লেখযোগ্য আত্মজীবনীমূলক রচনা হলো ‘একাত্তরের ডায়েরি’ (১৯৮৯)। তাঁর অসংখ্য কবিতা রুশ ভাষাতে অনূদিত হয়েছে।











অন্তরমাঝে তুমি শুধু একা একাকী, তুমি অন্তরবাসিনী; রাজনীতি ও সমাজ-সঙস্কারে

১৯২৫ সালে মহাত্মা গান্ধী বরিশাল গিয়েছিলেন, সেখানে তাঁর সঙ্গে সাক্ষাৎ ঘটে সুফিয়ার। এই সাক্ষাতের আগেই সুফিয়া চরকায় সুতা কেটেছেন, বর্জন করেছেন জাঁকালো মোঘল পোশাক, পরম মমতায় জড়িয়েছেন বাঙলা মায়ের মোটা কাপড়, সাধারণ তাঁতের শাড়ি, এ ছিল তাঁর স্বাধীনতা তরুতলে প্রাণভরে নিঃশ্বাস নেবার প্রয়াস, ঔপনিবেশিক শাসনের অবসানে স্বর্ণবীণাতন্ত্রীর মঞ্জুরিত রণন, সাম্রাজ্যবাদের প্রভাবমুক্ত স্বাধীন একটি দেশের অস্ফুটকল্লোলধ্বনি বুঝি সেদিন থেকেই গুঞ্জরিত হয়েছিলো কানে। মহাত্মা গান্ধীর সঙ্গে সাক্ষাৎ তাঁর ওই আকাঙ্ক্ষাকে করেছিলো আরো বাসনাবিধুরা। রাজনৈতিক দলের বাইরে থেকেও সুফিয়া তাই রাজনৈতিক হয়ে উঠছিলেন, নারীদের তিনি গড়েছিলেন পরিপূর্ণা রূপে, সমাজ-শিক্ষা-রাজনীতি সচেতন করে তুলছিলেন। না পাওয়ার দৈন্যে তিনি দেখিয়েছেন বিশ্বাসের ছবি, স্বর্গের অমৃতরূপি স্বাধীনতার তৃষায় নারীকেও করেছেন তরঙ্গায়িত।



১৯২৮ এ সকল প্রতিবন্ধকতা ও সামাজিক কুসঙস্কার অগ্রাহ্য করে প্রথম মুসলিম নারী হিসেবে বিমানে উড্ডয়ন করেন। ১৯২৯ সালে বেগম রোকেয়া প্রতিষ্ঠিত মুসলিম নারী সংগঠন ‘আঞ্জুমান-ই-খাওয়াতিন-ই-ইসলাম’-এর সঙ্গে যুক্ত হন। তিনি চেয়েছিলেন রাজনৈতিক চেতনাকে নারীদের মনে সঞ্চারিত করতে, সেই লক্ষে নারী শিক্ষা ও সামাজিক সংস্কারসহ নারীদের বিভিন্ন বিষয় নিয়ে এখানে আলোচনা হতো। বেগম রোকেয়ার সামাজিক আদর্শ সুফিয়াকে আজীবন প্রভাবিত করেছে। তিনি ‘রোকেয়া সাখাওয়াত স্মৃতি কমিটি’ গঠনের সহায়তা করেন, যার প্রস্তাবে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রথম মহিলা হল রোকেয়ার নামে করা হয়।



১৯৩১ সালে সুফিয়া মুসলিম মহিলাদের মধ্যে প্রথম ‘ইন্ডিয়ান উইমেন্স ফেডারেশন’-এর প্রথম মুসলিম মহিলা সদস্য মনোনীত হন। ১৯৪৬ সালে কলকাতায় যখন হিন্দু-মুসলিম দাঙ্গা বাধে তখন দাঙ্গাপীড়িতদের সাহায্যের ক্ষেত্রে সুফিয়া সক্রিয় ভূমিকা পালন করেন, লেডি ব্র্যাবোর্ন কলেজে একটি আশ্রয়কেন্দ্র পরিচালনা করেন। এই বছরেই তাঁর বঙ্গবন্ধুর সাথে প্রথম পরিচয়। জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান সুফিয়া কামালকে আপন বড় বোনের মতো শ্রদ্ধা করতেন। পরের বছর পূর্ব-বাঙলার প্রথম মহিলা সচিত্র সাপ্তাহিক পত্রিকা যার প্রকাশক ছিলেন মোহাম্মদ নাসিরউদ্দীন তিনি ‘বেগম’ এর সম্পাদনায় নিয়োজিত হন। ১৯৪৭ সালের ২০ জুলাই ‘বেগম’ পত্রিকার সম্পাদকীয়তে লিখেছেন;

মুসলিম সমাজ আজ এক কঠোর দায়িত্ব গ্রহণের সম্মুখীন। অর্জিত স্বাধীনতা, সম্মান ও গৌরব অক্ষুণ্ন রাখতে হলে কেবল পুরুষেরই নয়, মুসলিম নারীকেও এগিয়ে আসতে হবে নতুন সমাজ ও রাষ্ট্র গঠনের কাজে। তার সঙ্গে সঙ্গে ভবিষ্যৎ নারীসমাজকে এমনভাবে গড়ে তুলতে হবে, যাতে তারা সেই স্বাধীন সার্বভৌম আদর্শ রাষ্ট্রের সত্যিকার দাবিদার হতে পারে সগৌরবে। এর জন্য চাই আমাদের মানসিক প্রসার, আশা-আকাঙ্ক্ষার ব্যাপ্তি আর জীবন সম্পর্কে এক স্থির ধারণা।


এ বছরেরই অক্টোবর মাসে তিনি সপরিবারে ঢাকা চলে আসেন। ১৯৪৮ এ পুর্ব-বাঙলা মহিলা সমিতির সভাপতি নির্বাচিত হন। বাঙলার অসংখ্য গণতান্ত্রিক আন্দোলনে, সমাজ-সচেতনতায়, বিদ্রোহে, ভাষা-সংস্কৃতি রক্ষায় অগ্নিমুখ হয়ে, নারী-পুরুষের সমতাপূর্ণ সমাজব্যবস্থা প্রতিষ্ঠার আন্দোলনে সব সময়ই ছিলেন সামনের সারিতে। ১৯৪৭ সালের সাম্প্রদায়িক দাঙ্গার পর মহিলা আত্মরক্ষা সমিতি আয়োজিত ‘শান্তি মিছিলে’ গেয়েছেন মানবতার জয়গান। ১৯৪৯ সালে তার যুগ্ম সম্পাদনায় প্রকাশিত হয় সুলতানা পত্রিকা, যার নামকরণ করা হয় বেগম রোকেয়ার ‘সুলতানার স্বপ্ন’ গ্রন্থের প্রধান চরিত্রের নামানুসারে।



See video




১৯৫২ সালের ভাষা আন্দোলনে সুফিয়া কামালসহ আরো মহিলাদের সংগঠিত হন মণিদীপ্ত তিতীর্ষু আলোর মতন প্রতিবাদে। এমনকি ঢাকার রাজপথে দ্রব্যমুল্য বৃদ্ধির প্রতিবাদে ১৯৫৫ সালে প্রথম ঘেরাও আন্দোলনেও ছিলেন তিনি, তাঁর সমাজ সচেতনতা ছিল এতটাই প্রতিক্রিয়াশীল। আইয়ুব খান মৌলিক গণতন্ত্র সমর্থন করার জন্য সুফিয়া কামালের কাছে লোক পাঠিয়েছিলেন। সুফিয়া কামাল সে প্রস্তাব দৃঢ়তার সঙ্গে প্রত্যাখ্যান করে বলেছিলেন, ‘আমার ছাত্ররা আমার দিকে তাকিয়ে আছে’।

সামরিক জান্তা আইয়ুব খান পূর্ববাংলার জনগণের সাংস্কৃতিক স্বাতন্ত্র্য হত্যার উদ্দেশ্যে রবীন্দ্রনাথকে, রবীন্দ্রসঙ্গীত নিষিদ্ধের ঘোষণা করলে সাংস্কৃতিক প্রতিরোধ গড়ে তোলার সংগ্রামে ঝাঁপিয়ে পড়েন সুফিয়া কামাল ফলে আইয়ুব খানের ভ্রুকুটি উপেক্ষা করে রবীন্দ্র জন্মশতবার্ষিকী পালন করা সম্ভব হয়েছিল। তবুও হাফ ছারেনি সাময়িক-জান্তা, শিল্পী-সাহিত্যিক-সমাজসেবীরা রবীন্দ্র শতবার্ষিকী পালনের উদ্যোগ গ্রহণ করলে; তা বন্ধ করতে নিষেধাজ্ঞা জারি। শিল্পী-সাহিত্যিক, সমাজসেবীরা কবি সুফিয়া কামালের নেতৃত্বে নানারূপ পরিকল্পনায় রবীন্দ্রজয়ন্তী পালন করার প্রতিজ্ঞা-শপথ অনড় জেনে সরকার বাধা দেয়ার জন্য পদস্থ কর্মচারী, উপদেষ্টা, ধর্মীয় ব্যক্তিদের পাঠিয়ে প্রতিহত করতে চেয়েছিলো কবি সুফিয়া কামাল তথা বাঙালি কৃষ্টিকে। শত বাধার মধ্যেও ১৯৬১ সালে রবীন্দ্রনাথের জন্ম শতবর্ষে ‘সাংস্কৃতিক স্বাধিকার আন্দোলন’ পরিচালনা করেন। এই বছরেই ‘ছায়ানট’ সাংস্কৃতিক সগঠনের প্রতিষ্ঠা হয় এবঙ তিনি সভানেত্রী নির্বাচিত হন। ১৯৬৯ সালে আইয়ুব বিরোধী গণ-অভ্যুথানে মহিলা সমাবেশ ও মিছিলে নেতৃত্ব দেন, ‘মহিলা সংগ্রাম পরিষদ’ (বর্তমানে বাংলাদেশ মহিলা পরিষদ) আজীবন জড়িত ছিলেন।

১৯৭১ এ ঐতিহাসিক ‘অসহযোগ আন্দোলনে’ ঢাকার মহিলা সমাবেশ ও মিছিলে নেতৃত্ব দেন, বাংলাদেশের স্বাধীনতা যুদ্ধে তাঁর দুই মেয়ে মুক্তিবাহিনীতে সক্রিয়রূপে অংশ নেয়, তিনি ভারতের আগরতলায় মুক্তিযোদ্ধাদের সেবার জন্য একটি হাসপাতাল স্থাপন করেন। স্বামী ও সন্তানসহ দেশে থেকেই মুক্তিবাহিনীকে নানাবিধ সহযোগিতা ও শক্তি যোগান। যুদ্ধকালীন সময়ে তিনি ‘একাত্তরের ডায়েরি’ নামে একটি দিনলিপি রচনা করেন। বঙ্গবিবেক আবুল ফজল বলেন-

আয়ুবীয় সামরিক শাসনের জাঁতাকলে অনেক ডাকসাইটে বুদ্ধিজীবীকেও ভেঙে পড়তে দেখেছি, দেখেছি বহু সংগ্রামী বিপ্লবীকে মাথা নুইয়ে মুচড়ে পড়তে, ত্রিভঙ্গ হতে। প্রলোভনের ইন্দুর কলে ধরা দেয়নি এমন বান্দা খুব কমই ছিল সেদিন। কিন্তু সুফিয়া থেকেছেন সবসময় উন্নত শির। ঘুষ বা ঘুসি কিছুতেই এ ক্ষুদ্রদেহী নম্রস্বভাব মানুষটাকে নোয়াতে পারেনি। একখানি ক্ষুদ্র কোমল দেহের অভ্যন্তরে এমন যে এক অনম্য মেরুদণ্ড- রয়েছে তা ভাবা যায় না।


ভাবিয়া না পাই, কি দিব তোমারে, করি পরিতোষ কোন উপহারে

সাহিত্যচর্চার জন্য সুফিয়া কামাল অসংখ্য পুরস্কার ও সম্মাননা লাভ করেছেন। ১৯৬১ সালে তিনি পাকিস্তান সরকার কর্তৃক ‘তঘমা-ই-ইমতিয়াজ’ নামক জাতীয় পুরস্কার লাভ করেন; কিন্তু ১৯৬৯ সালে বাঙালিদের ওপর অত্যাচারের প্রতিবাদে ও সামরিক শাসনবিরোধী আন্দোলনের সমর্থনে তিনি এই খেতাব বর্জন করেন। বাংলা একাডেমী পুরস্কার (১৯৬২), একুশে পদক (১৯৭৬), নাসিরউদ্দীন স্বর্ণপদক (১৯৭৭), মুক্তধারা পুরস্কার (১৯৮২), জাতীয় কবিতা পরিষদ পুরস্কার (১৯৯৫), Women's Federation for World Peace Crest (১৯৯৬), বেগম রোকেয়া পদক (১৯৯৬), দেশবন্ধু চিত্তরঞ্জন দাশ স্বর্ণপদক (১৯৯৬), স্বাধীনতা দিবস পুরস্কার (১৯৯৭) ইত্যাদি। তিনি সোভিয়েত ইউনিয়নের Lenin Centenary Jubilee Medal (১৯৭০) এবং Ges Czechoslovakia Medal (১৯৮৬)সহ বেশ কয়েকটি আন্তর্জাতিক পুরস্কার লাভ করেন।



বাঙালির চেতনার যুগযুগান্তরের যাত্রায় মুক্তবুদ্ধির পক্ষে এবং সাম্প্রদায়িকতা ও মৌলবাদের বিপক্ষে আহ্বানসঙ্গীতে আমরণ অন্তরপ্রদীপখানি জ্বেলে যাওয়া এই মহীয়সী নারীর শেষ ইচ্ছে ছিলো সাধারণ মানুষের মতই কবরে যাওয়া ১৯৯৯ সালের ২০ নভেম্বর ঢাকায় সুফিয়া কামালকে পূর্ণ রাষ্ট্রীয় মর্যাদায় সমাহিত করা হয়।

তথ্যসুত্রঃ

১। কবি ও তার কবিতা প্রসঙ্গে স্বনির্বাচিত সঙ্কলন, মুক্তধারা দ্বিতীয় সংস্করণ, ১৯৯০

২। আধুনিক কবি ও কবিতা,হাসান হাফিজুর রহমান

৩। মালেকা বেগম সম্পাদিত রাজপথে জনপথে সুফিয়া কামাল, আগামী-১৯৯৭


মন্তব্য


ব্লগারের প্রোফাইল ছবি


Star Star Star
Star Star Star
Star Star Star
Star Star Star
Star Star Star

দাড়াইয়া স্যালুট মাইরা গেলাম

___________
জয় বাংলা,জয় বঙ্গবন্ধু


ব্লগারের প্রোফাইল ছবি

বেকাদা, আমাকে ধুলায় না মিশালে চলতো না? আপনি আসেন, পড়েন তাতেই আমি ধন্য। শুধু শুধু লজ্জা দেন কেন?

..............................................................

সেদিন উতলা প্রাণে, হৃদয় মগন গানে,
কবি এক জাগে_
কত কথা পুষ্পপ্রায় বিকশি তুলিতে চায়
কত অনুরাগে
একদিন শতবর্ষ আগে।।
আজি হতে শতবর্ষ পরে
এখন করিছে গান সে কোন্ নূতন কবি
তোমাদের ঘরে!


ব্লগারের প্রোফাইল ছবি

আমার অতিপ্রিয় ব্যাক্তিত্বের একজন। প্রিয়তে নিলাম। ধন্যবাদ পঁচিশে।

--

রীতু
"আমার মুক্তি আলোয় আলোয়, এই আকাশে। আমার মুক্তি ধুলায় ধুলায়, ঘাসে ঘাসে.."


ব্লগারের প্রোফাইল ছবি

রিতু, আপনাকেও অসংখ্য ধন্যবাদ, কৃতজ্ঞতা।

..............................................................

সেদিন উতলা প্রাণে, হৃদয় মগন গানে,
কবি এক জাগে_
কত কথা পুষ্পপ্রায় বিকশি তুলিতে চায়
কত অনুরাগে
একদিন শতবর্ষ আগে।।
আজি হতে শতবর্ষ পরে
এখন করিছে গান সে কোন্ নূতন কবি
তোমাদের ঘরে!


ব্লগারের প্রোফাইল ছবি

অসাধারন। দূর্দান্তিস ।

Star Star Star Star Star

পোস্ট টি স্টিকি করার অনুরোধ জানিয়ে গেলাম।

*************************************************************************************
আমি অতো তাড়াতাড়ি কোথাও যেতে চাই না;
আমার জীবন যা চায় সেখানে হেঁটে হেঁটে পৌঁছুবার সময় আছে,
পৌঁছে অনেকক্ষণ বসে অপেক্ষা করবার অবসর আছে।


ব্লগারের প্রোফাইল ছবি

উদাসী দা, থাঙ্কু। আপনাকে সব সময়ই পাই, লেখা যতই মন্দ হোক না কেন। কৃতজ্ঞতা জানবেন।

..............................................................

সেদিন উতলা প্রাণে, হৃদয় মগন গানে,
কবি এক জাগে_
কত কথা পুষ্পপ্রায় বিকশি তুলিতে চায়
কত অনুরাগে
একদিন শতবর্ষ আগে।।
আজি হতে শতবর্ষ পরে
এখন করিছে গান সে কোন্ নূতন কবি
তোমাদের ঘরে!


ব্লগারের প্রোফাইল ছবি

অসাধারন।

-
একবার রাজাকার মানে চিরকাল রাজাকার; কিন্তু একবার মুক্তিযোদ্ধা মানে চিরকাল মুক্তিযোদ্ধা নয়। -হুমায়ুন আজাদ


ব্লগারের প্রোফাইল ছবি

সুশান্ত দা, অশেষ ধন্যবাদ, কৃতজ্ঞতা। smile :) :-)
আপনার জন্যে শুভকামনা রইলো।

..............................................................

সেদিন উতলা প্রাণে, হৃদয় মগন গানে,
কবি এক জাগে_
কত কথা পুষ্পপ্রায় বিকশি তুলিতে চায়
কত অনুরাগে
একদিন শতবর্ষ আগে।।
আজি হতে শতবর্ষ পরে
এখন করিছে গান সে কোন্ নূতন কবি
তোমাদের ঘরে!


ব্লগারের প্রোফাইল ছবি

নামের সার্থকতা টের পেলাম।

অসাধারন।

~-^
উদ্ভ্রান্ত বসে থাকি হাজারদুয়ারে!


ব্লগারের প্রোফাইল ছবি

উদ্ভ্রান্তদা, এইবার আমাকেও উদ্ভ্রান্ত করে ছাড়বেন দেখছি।
ভালো থাকবেন, খুব ভালো।

..............................................................

সেদিন উতলা প্রাণে, হৃদয় মগন গানে,
কবি এক জাগে_
কত কথা পুষ্পপ্রায় বিকশি তুলিতে চায়
কত অনুরাগে
একদিন শতবর্ষ আগে।।
আজি হতে শতবর্ষ পরে
এখন করিছে গান সে কোন্ নূতন কবি
তোমাদের ঘরে!


ব্লগারের প্রোফাইল ছবি

Star Star Star Star Star

আজকে সকালে পত্রিকায় দেখছিলাম সুফিয়া কামালের জন্মদিন। ভেবেছিলাম শনিবারের চিঠি অথবা পঁচিশে বৈশাখ এর একটি পোস্ট থাকবে এইদিনে। আজকে আপনারা দু'জন বাংলার ইতিহাসের দু'জন শ্রেষ্ঠ নারীকে উপস্থিত করলেন তাঁদের সমহিমায় আপনাদের শিল্পের ছোঁয়ায়। সালাম।
----------------------------------------------------------------------------------------------------------------------

আমি আমার ভেতরে প্রতিনিয়ত বংশবৃদ্ধি করছি
যেমনটি করে থাকে অকোষী জীব হাইড্রা ।
বিলুপ্ততা ঠেকানোর কিংবা টিকে থাকার লক্ষ্যে নয়
নশ্বরতা আবিস্কারের লক্ষ্যে।


ব্লগারের প্রোফাইল ছবি

জটিল দা, অনেক অনেক ধন্যবাদ।
তারপর সাইদীর সাথে যে আপনার নামটা জড়ালো, প্রতিক্রিয়া দিলেন না?
কিযে বলেন, রাগ লাগে শুনতে, অন্য নামটা ঠিক আছে কিন্তু আমিতো চুনোপুঁটি।

..............................................................

সেদিন উতলা প্রাণে, হৃদয় মগন গানে,
কবি এক জাগে_
কত কথা পুষ্পপ্রায় বিকশি তুলিতে চায়
কত অনুরাগে
একদিন শতবর্ষ আগে।।
আজি হতে শতবর্ষ পরে
এখন করিছে গান সে কোন্ নূতন কবি
তোমাদের ঘরে!


ব্লগারের প্রোফাইল ছবি

অন্য নামটা ঠিক আছে কিন্তু আমিতো চুনোপুঁটি।


চুনোপুঠি উপাদেয় না এটা আপনাকে কে বলল। সৃজনশীলতা আকারে না বৈচিত্র্যতায়।
-----------------------------------------------------------------------------------------------

আমি আমার ভেতরে প্রতিনিয়ত বংশবৃদ্ধি করছি
যেমনটি করে থাকে অকোষী জীব হাইড্রা ।
বিলুপ্ততা ঠেকানোর কিংবা টিকে থাকার লক্ষ্যে নয়
নশ্বরতা আবিস্কারের লক্ষ্যে।


ব্লগারের প্রোফাইল ছবি

সৃজনশীলতা আকারে না বৈচিত্র্যতায়।

Wink Wink Wink

..............................................................

সেদিন উতলা প্রাণে, হৃদয় মগন গানে,
কবি এক জাগে_
কত কথা পুষ্পপ্রায় বিকশি তুলিতে চায়
কত অনুরাগে
একদিন শতবর্ষ আগে।।
আজি হতে শতবর্ষ পরে
এখন করিছে গান সে কোন্ নূতন কবি
তোমাদের ঘরে!


ব্লগারের প্রোফাইল ছবি

ডাইরেক্ট প্রিয়তে।

________________________________
----------------------------------------------------
তুই যে আগুন জল-ধারা চাস কার কাছে?
বাষ্প হয়ে উড়ে যায় জল সাগর-শোষা তোর আঁচে!
ফুলের মালার হুলের জ্বালায় জ্বলবি কত অগ্নি-স্নান!
আয় রে চির তিক্ত-প্রাণ।
--------------


ব্লগারের প্রোফাইল ছবি

অনেক ধন্যবাদ একাকী।
ডাইরেক্ট শাহবাগ গেলে আমারেও লইয়েন, আজ জ্যামে যে নাকালটাই হইলাম। smile :) :-)

..............................................................

সেদিন উতলা প্রাণে, হৃদয় মগন গানে,
কবি এক জাগে_
কত কথা পুষ্পপ্রায় বিকশি তুলিতে চায়
কত অনুরাগে
একদিন শতবর্ষ আগে।।
আজি হতে শতবর্ষ পরে
এখন করিছে গান সে কোন্ নূতন কবি
তোমাদের ঘরে!


ব্লগারের প্রোফাইল ছবি

মাহমুদা আপা, অনেক অনেক ধন্যবাদ। আপনার পোস্ট পাইনা অনেক দিন।

..............................................................

সেদিন উতলা প্রাণে, হৃদয় মগন গানে,
কবি এক জাগে_
কত কথা পুষ্পপ্রায় বিকশি তুলিতে চায়
কত অনুরাগে
একদিন শতবর্ষ আগে।।
আজি হতে শতবর্ষ পরে
এখন করিছে গান সে কোন্ নূতন কবি
তোমাদের ঘরে!


ব্লগারের প্রোফাইল ছবি

চমৎকার একটা পোষ্ট !!

আপনি কি কারো মাল্টি নাকি? কেমন যেন পরিচিত লেখার ঢং


ব্লগারের প্রোফাইল ছবি

হ- আমারও তাই মনে হয়। অতীতে এইরকম সন্দেহ কয়েকজন করছে। পঁচিশ- আপনে কার মাল্টি কন তো?

..................................................................

বারান্দা জুড়ে হাসি অচেনা চোখের জল
বিকেলের শরীর ছুঁয়ে আমার কবিতা চঞ্চল
.. .. .. .. ..
শুধু কবিতাটুকু সত্যি আর সব মিথ্যে নামে আসে
ওই আকাশটাকে দেখো- সে কবিতাই ভালোবাসে


ব্লগারের প্রোফাইল ছবি

Laughing out loud Laughing out loud Laughing out loud
কারটা বললে খুশি হন?

..............................................................

সেদিন উতলা প্রাণে, হৃদয় মগন গানে,
কবি এক জাগে_
কত কথা পুষ্পপ্রায় বিকশি তুলিতে চায়
কত অনুরাগে
একদিন শতবর্ষ আগে।।
আজি হতে শতবর্ষ পরে
এখন করিছে গান সে কোন্ নূতন কবি
তোমাদের ঘরে!


ব্লগারের প্রোফাইল ছবি

আমার মাল্টি Cool

___________
জয় বাংলা,জয় বঙ্গবন্ধু


ব্লগারের প্রোফাইল ছবি

আমি আগেই সন্দেহ কর্ছিলাম। Cool

..................................................................

বারান্দা জুড়ে হাসি অচেনা চোখের জল
বিকেলের শরীর ছুঁয়ে আমার কবিতা চঞ্চল
.. .. .. .. ..
শুধু কবিতাটুকু সত্যি আর সব মিথ্যে নামে আসে
ওই আকাশটাকে দেখো- সে কবিতাই ভালোবাসে


ব্লগারের প্রোফাইল ছবি

সত্য, সত্য।
smile :) :-)
আমি এক কঠিন ফাইটার।

..............................................................

সেদিন উতলা প্রাণে, হৃদয় মগন গানে,
কবি এক জাগে_
কত কথা পুষ্পপ্রায় বিকশি তুলিতে চায়
কত অনুরাগে
একদিন শতবর্ষ আগে।।
আজি হতে শতবর্ষ পরে
এখন করিছে গান সে কোন্ নূতন কবি
তোমাদের ঘরে!


ব্লগারের প্রোফাইল ছবি

smile :) :-) smile :) :-) smile :) :-) smile :) :-)


ব্লগারের প্রোফাইল ছবি

Tongue Tongue Tongue Tongue


ব্লগারের প্রোফাইল ছবি

খাইসে, আপার তো অনেক বুদ্ধি Laughing out loud Laughing out loud
আপনের কারে সন্দেহ? খুইল্লা কন।

..............................................................

সেদিন উতলা প্রাণে, হৃদয় মগন গানে,
কবি এক জাগে_
কত কথা পুষ্পপ্রায় বিকশি তুলিতে চায়
কত অনুরাগে
একদিন শতবর্ষ আগে।।
আজি হতে শতবর্ষ পরে
এখন করিছে গান সে কোন্ নূতন কবি
তোমাদের ঘরে!


ব্লগারের প্রোফাইল ছবি

মাহমুদা আপা, পরিচিত লেখার ঢঙ?
কার মতো লাগছে বলুন তো?

..............................................................

সেদিন উতলা প্রাণে, হৃদয় মগন গানে,
কবি এক জাগে_
কত কথা পুষ্পপ্রায় বিকশি তুলিতে চায়
কত অনুরাগে
একদিন শতবর্ষ আগে।।
আজি হতে শতবর্ষ পরে
এখন করিছে গান সে কোন্ নূতন কবি
তোমাদের ঘরে!


ব্লগারের প্রোফাইল ছবি

শনির চিঠি


ব্লগারের প্রোফাইল ছবি

এইটা আপনি কি বললেন?
এতোজন থাকতে শেষমেশ কল্লোলপন্থী ষষ্ঠ পাণ্ডবের নাম নিলেন?
আমার রবীন্দ্র ভালবাসা এতোই তুচ্ছ মনে হোল আপনার?
এই দুঃখের কোন সীমা নাই।
চিৎকার কইরা কান্দনের ইমো।

..............................................................

সেদিন উতলা প্রাণে, হৃদয় মগন গানে,
কবি এক জাগে_
কত কথা পুষ্পপ্রায় বিকশি তুলিতে চায়
কত অনুরাগে
একদিন শতবর্ষ আগে।।
আজি হতে শতবর্ষ পরে
এখন করিছে গান সে কোন্ নূতন কবি
তোমাদের ঘরে!


ব্লগারের প্রোফাইল ছবি

আমি জানি কার মাল্টি Wink
লিখা অসাধারন হয়েছে!

**********************************************
"Do not make any decisions when you are angry And never make any promises when you are happy."


ব্লগারের প্রোফাইল ছবি

কার? বড়ই কৌতূহল জাগছে।

..............................................................

সেদিন উতলা প্রাণে, হৃদয় মগন গানে,
কবি এক জাগে_
কত কথা পুষ্পপ্রায় বিকশি তুলিতে চায়
কত অনুরাগে
একদিন শতবর্ষ আগে।।
আজি হতে শতবর্ষ পরে
এখন করিছে গান সে কোন্ নূতন কবি
তোমাদের ঘরে!


ব্লগারের প্রোফাইল ছবি

Star Star Star Star Star

....................................................................................


আমরা ছুডলোক, গালিবাজ। জামাত শিবির ছাগুর বিরুদ্ধে গালাগালি করেই যাব, প্রতিরোধ করেই যাব। সুশীলতার মায়েরে বাপ। আমরা ছাগু ও সুশীলদের উত্তমরূপে গদাম দিয়ে থাকি


ব্লগারের প্রোফাইল ছবি

আরে আরে, আপনি আবার যান কই? দেখিনা কেন? ভাবতেসি একটা ছাগু নিক খুলবো, তাও যদি আপনি আর দ্রোহের মন্ত্র ব্লগে থাকেন। Sad

..............................................................

সেদিন উতলা প্রাণে, হৃদয় মগন গানে,
কবি এক জাগে_
কত কথা পুষ্পপ্রায় বিকশি তুলিতে চায়
কত অনুরাগে
একদিন শতবর্ষ আগে।।
আজি হতে শতবর্ষ পরে
এখন করিছে গান সে কোন্ নূতন কবি
তোমাদের ঘরে!


ব্লগারের প্রোফাইল ছবি

অসাধারন।
Star Star Star Star Star

=========================================================
স্মৃতি ঝলমল সুনীল মাঠের কাছে আমার অনেক ঋণ আছে......


ব্লগারের প্রোফাইল ছবি

অনেক অনেক ধন্যবাদ। smile :) :-)

..............................................................

সেদিন উতলা প্রাণে, হৃদয় মগন গানে,
কবি এক জাগে_
কত কথা পুষ্পপ্রায় বিকশি তুলিতে চায়
কত অনুরাগে
একদিন শতবর্ষ আগে।।
আজি হতে শতবর্ষ পরে
এখন করিছে গান সে কোন্ নূতন কবি
তোমাদের ঘরে!


ব্লগারের প্রোফাইল ছবি

সুফিয়া কামালের লেখা আমি তেমন একটা পড়ি না। আগে তেমন পছন্দও করতাম না। লেখাটা পড়ে তার প্রতি আগ্রহ বাড়ল। তার লেখা পড়তে হবে। আগ্রহ তৈরির জন্য লেখককে অনেক অনেক ধন্যবাদ। আর লেখা সম্পর্কে নাই বা বললাম, বরাবরের মতই ফাটাফাটি।
Star Star Star Star Star

________________________________

পাপ হলে ভবে আসি, পূণ্য হলে স্বর্গবাসী
লালন বলে নাম উর্বশী
নিত্য নিত্য তাঁর প্রমাণ পাই।

পাপ পূণ্যের কথা আমি কারে বা শুধাই
একদেশে যা পাপ গণ্য
অন্য দেশে পূণ্য তাই।


ব্লগারের প্রোফাইল ছবি

ধন্যবাদ গৃহত্যাগী, আগে বলেন একাত্তরের চিঠি পড়া শেষ হইসে?

..............................................................

সেদিন উতলা প্রাণে, হৃদয় মগন গানে,
কবি এক জাগে_
কত কথা পুষ্পপ্রায় বিকশি তুলিতে চায়
কত অনুরাগে
একদিন শতবর্ষ আগে।।
আজি হতে শতবর্ষ পরে
এখন করিছে গান সে কোন্ নূতন কবি
তোমাদের ঘরে!


ব্লগারের প্রোফাইল ছবি

সুফিয়া কামাল, একটা অনুপ্রেরনার নাম। পোষ্টের জন্য ধইন্যা পঁচিশ smile :) :-)

***********************************************************************
"এহনবি জিন্দা আছি, মৌতের হোগায় লাথথি দিয়া
মৌত তক সহি সালামত জিন্দা থাকবার চাই"


ব্লগারের প্রোফাইল ছবি

থাঙ্কু হাদা দা। পড়েছেন তাতেই ভালো লাগলো।
smile :) :-)

..............................................................

সেদিন উতলা প্রাণে, হৃদয় মগন গানে,
কবি এক জাগে_
কত কথা পুষ্পপ্রায় বিকশি তুলিতে চায়
কত অনুরাগে
একদিন শতবর্ষ আগে।।
আজি হতে শতবর্ষ পরে
এখন করিছে গান সে কোন্ নূতন কবি
তোমাদের ঘরে!


ব্লগারের প্রোফাইল ছবি

আপনার লেখনিও সেইরকম মনোযোগ আকর্ষক। কেউ দ্রুত লয়ে পড়ে গেলেও তথ্যগুলো ঠিকমত সংগ্রহ করতে পারবে এই লেখা থেকে। আবার কেউ একটু ধীরে পড়বে বলে ধারনা করলে সে এই লেখাকে ছেড়ে চলে যাবে না মাঝপথে। ভাল লেখার বুঝি এটাই গুণ!!

------------
অকিঞ্চন
banglaydebu.blogspot.com


ব্লগারের প্রোফাইল ছবি

কিযে বলেন অকিঞ্চনদা, আপনার কবিতার জন্যে অপেক্ষা করি।

..............................................................

সেদিন উতলা প্রাণে, হৃদয় মগন গানে,
কবি এক জাগে_
কত কথা পুষ্পপ্রায় বিকশি তুলিতে চায়
কত অনুরাগে
একদিন শতবর্ষ আগে।।
আজি হতে শতবর্ষ পরে
এখন করিছে গান সে কোন্ নূতন কবি
তোমাদের ঘরে!


ব্লগারের প্রোফাইল ছবি

পোষ্ট প্র্রিয়তে। অসাধারণ। মন্তব্য করার ভাষা নেই। তবে আজ ব্লগটাই অন্যরকম লাগছে। দুটো অসাধারণ পোষ্ট smile :) :-)

সুফিয়া কামালের একটি অন্যরকম কবিতা মনে পড়ছে। একবার আবৃত্তি করেছিলাম একটি প্রতিযোগীতার জন্য।

বধূ হয়ে তুমি রহ নাই ঘরে
মাতা হয়ে আছ ভূবনে
মর্মের বাণী শুনেছ যার
সহধর্মিনী হয়েছ তার
রয়েছ সাধক পূজনে।


(চরণ কয়টি সুফিয়া কামালের একটি কবিতা থেকে নেয়া)

সুফিয়া কামালের পূণ্য স্মৃতির প্রতি রইল অন্তরের অন্তস্থল থেকে শ্রদ্ধা।

পঁচিশে বৈশাখ ভাল থাকুন সতত smile :) :-)

অট: ব্লগেও এই সুযোগে একটু আবৃত্তি ফলাইলাম আরকি Laughing out loud

------------------------------------------------------------
আমি বাংলায় দেখি স্বপ্ন, বাংলায় বাঁধি সুর
আমি এই বাংলার মায়াভরা পথে হেঁটেছি এতটাদূর


ব্লগারের প্রোফাইল ছবি

কবি নিরব, একদিন আপনার আবৃত্তি শুনবো, সেদিন ভোলা মনের স্রোতে ভাসবো।
অনেক অনেক ধন্যবাদ। কৃতজ্ঞতা।

..............................................................

সেদিন উতলা প্রাণে, হৃদয় মগন গানে,
কবি এক জাগে_
কত কথা পুষ্পপ্রায় বিকশি তুলিতে চায়
কত অনুরাগে
একদিন শতবর্ষ আগে।।
আজি হতে শতবর্ষ পরে
এখন করিছে গান সে কোন্ নূতন কবি
তোমাদের ঘরে!


ব্লগারের প্রোফাইল ছবি

কবি নিরব, একদিন আপনার আবৃত্তি শুনবো, সেদিন ভোলা মনের স্রোতে ভাসবো।


গলার এখন যা অবস্থা ভোলা মনের স্রোতে ডুবতেও পারেন Laughing out loud

অট: আপনার ইচ্ছাপূরণের ব্যাবস্থা করব। একদিন ব্লগে কবিতা আবৃত্তি কইরা (অডিও লিংক সহ) পোষ্টামু ভাবতাছি smile :) :-)

------------------------------------------------------------
আমি বাংলায় দেখি স্বপ্ন, বাংলায় বাঁধি সুর
আমি এই বাংলার মায়াভরা পথে হেঁটেছি এতটাদূর


ব্লগারের প্রোফাইল ছবি

রাজি, রাজি।
smile :) :-)

..............................................................

সেদিন উতলা প্রাণে, হৃদয় মগন গানে,
কবি এক জাগে_
কত কথা পুষ্পপ্রায় বিকশি তুলিতে চায়
কত অনুরাগে
একদিন শতবর্ষ আগে।।
আজি হতে শতবর্ষ পরে
এখন করিছে গান সে কোন্ নূতন কবি
তোমাদের ঘরে!


ব্লগারের প্রোফাইল ছবি

সবদিক থেকে অসাধারন পোষ্ট, খুবই ভাল হয়েছে।

_____________
কবে কোন প্রদোষকালে
এসেছিলে হেথা হে প্রাকৃতজন
এ বিলের জেলেদের জালে
পেয়েছিলে কবে সে রুপকাঞ্চন


ব্লগারের প্রোফাইল ছবি

আপনার 'আমাদের ভাষা!! তাহাদের ভাষা' কিন্তু আমার খুব ভালো লেগেছে, আমার ব্লগটা এজন্যেই এতো ভালো লাগে, সবাই কতো খেটে-খুটে এক একটা পোস্ট দেয় এখানে।
ধন্যবাদ আপনাকে। smile :) :-)

..............................................................

সেদিন উতলা প্রাণে, হৃদয় মগন গানে,
কবি এক জাগে_
কত কথা পুষ্পপ্রায় বিকশি তুলিতে চায়
কত অনুরাগে
একদিন শতবর্ষ আগে।।
আজি হতে শতবর্ষ পরে
এখন করিছে গান সে কোন্ নূতন কবি
তোমাদের ঘরে!


ব্লগারের প্রোফাইল ছবি

ধন্যবাদ!
কাল ল্যাপটপ থেকে এই পোষ্টের বেশ কিছু ছবি দৃশ্যমান হচ্ছিল না, ভেবেছিলাম স্লো নেটওয়ার্কের কারনে হয়তো সেরকম হচ্ছিল, কিন্তু এখন বেশ দ্রুতগতির নেটওয়ার্কেও পরিস্থিতি পূর্ববত। সব ছবি আসছেনা।

_____________
কবে কোন প্রদোষকালে
এসেছিলে হেথা হে প্রাকৃতজন
এ বিলের জেলেদের জালে
পেয়েছিলে কবে সে রুপকাঞ্চন


ব্লগারের প্রোফাইল ছবি

Sad
এডিট করতে গিয়ে ভটজট পাকিয়ে ফেলেছি, খুব দুঃখিত।

..............................................................

সেদিন উতলা প্রাণে, হৃদয় মগন গানে,
কবি এক জাগে_
কত কথা পুষ্পপ্রায় বিকশি তুলিতে চায়
কত অনুরাগে
একদিন শতবর্ষ আগে।।
আজি হতে শতবর্ষ পরে
এখন করিছে গান সে কোন্ নূতন কবি
তোমাদের ঘরে!


ব্লগারের প্রোফাইল ছবি

আমদের যেসব পুর্বেদের কাছে আমরা ঋণী সুফিয়া কামাল তাদের একজন। প্রথা ভাঙ্গা বাঙ্গালীর অগ্রদূত।

তারকা মারকা সব শেষ। আর দিয়াই কি হবে। বোশেখের লেখাতো বরাবরই এমন হবে জানা কথা।
অনেক কষ্ট করেছো আস বিয়ার খাই। Beer Beer Beer Beer

===================================================================
যেখানে পাইবে ছাগু আর বাদাম

চলিবে নিশ্চিত উপর্যপরি গদাম...............


ব্লগারের প্রোফাইল ছবি

খালি মাঝিদাই বুঝলো যে তিয়াস পেয়েছে।
ধন্যবাদ, ধন্যবাদ।

..............................................................

সেদিন উতলা প্রাণে, হৃদয় মগন গানে,
কবি এক জাগে_
কত কথা পুষ্পপ্রায় বিকশি তুলিতে চায়
কত অনুরাগে
একদিন শতবর্ষ আগে।।
আজি হতে শতবর্ষ পরে
এখন করিছে গান সে কোন্ নূতন কবি
তোমাদের ঘরে!


ব্লগারের প্রোফাইল ছবি

অসাধারন , প্রিয়তে। ব্লগের দুই ষ্টিকি পোষ্ট দুই মহিয়াসী নারীকে নিয়ে। দেখে খুব ভালো লাগলো।

Star Star Star Star Star

------------------------------------------------------------------------------------
বেঁচে থাকি আগামীর আশায়, সুন্দর বাংলাদেশের প্রত্যাশায় smile :) :-)


ব্লগারের প্রোফাইল ছবি

অরিত্র, অসংখ্য ধন্যবাদ। smile :) :-)

..............................................................

সেদিন উতলা প্রাণে, হৃদয় মগন গানে,
কবি এক জাগে_
কত কথা পুষ্পপ্রায় বিকশি তুলিতে চায়
কত অনুরাগে
একদিন শতবর্ষ আগে।।
আজি হতে শতবর্ষ পরে
এখন করিছে গান সে কোন্ নূতন কবি
তোমাদের ঘরে!


ব্লগারের প্রোফাইল ছবি

@ পঁচিশে বৈশাখ,

চাঁদ-তারা কাউকে কোনদিন দিয়েছি বলে মনে পড়েনা। আজ দিবো আকাশের সবগুলো তারা। সেল্যুট জানালাম মাথা নত করে। লেখাটি একবার নয় অনেক অনেকবার পড়বো।


ব্লগারের প্রোফাইল ছবি

আপনি আকাশ মালিক smile :) :-) সবগুলো তারাতো দিতেই পারেন।
স্যালুট আমাদের মাকে, কৃতজ্ঞতা জানবেন।

..............................................................

সেদিন উতলা প্রাণে, হৃদয় মগন গানে,
কবি এক জাগে_
কত কথা পুষ্পপ্রায় বিকশি তুলিতে চায়
কত অনুরাগে
একদিন শতবর্ষ আগে।।
আজি হতে শতবর্ষ পরে
এখন করিছে গান সে কোন্ নূতন কবি
তোমাদের ঘরে!


ব্লগারের প্রোফাইল ছবি

অসাধারন । Star Star Star Star Star । নিচের কথা গুলোই বলতে চাই -

http://www.kabirsumanonline.com/home/2011/06/21/the-song-sufia-kamal/

----------------------------------------------------------------
ইচ্ছে আছে উড়ব সোজা, কিম্বা বেঁকে ...


ব্লগারের প্রোফাইল ছবি

নয়ন, অনেক ধন্যবাদ।
কৃতজ্ঞতা জানবেন।

..............................................................

সেদিন উতলা প্রাণে, হৃদয় মগন গানে,
কবি এক জাগে_
কত কথা পুষ্পপ্রায় বিকশি তুলিতে চায়
কত অনুরাগে
একদিন শতবর্ষ আগে।।
আজি হতে শতবর্ষ পরে
এখন করিছে গান সে কোন্ নূতন কবি
তোমাদের ঘরে!


ব্লগারের প্রোফাইল ছবি

সুফিয়া কামাল বাংলা সাহিত্যের উজ্জ্বল নক্ষত্র । তাকে নিয়ে এমন সুন্দর লেখার জন্য ধন্যবাদ ।


ব্লগারের প্রোফাইল ছবি

smile :) :-)
থাঙ্কু বিপরীতদা।
আপনার ৩ নঙ পর্বটা মিস করে ফেলেছিলাম, এখন পড়বো। Laughing out loud

..............................................................

সেদিন উতলা প্রাণে, হৃদয় মগন গানে,
কবি এক জাগে_
কত কথা পুষ্পপ্রায় বিকশি তুলিতে চায়
কত অনুরাগে
একদিন শতবর্ষ আগে।।
আজি হতে শতবর্ষ পরে
এখন করিছে গান সে কোন্ নূতন কবি
তোমাদের ঘরে!


ব্লগারের প্রোফাইল ছবি

অসাধারণ!
প্রিয়তে নিলাম।

--------------------------------------------------------
সোনালী স্বপ্ন বুনেছি
পথ দিয়েছি আধারী রাত ........


ব্লগারের প্রোফাইল ছবি

জিনিয়াস দা, কৃতজ্ঞতা।
বর্ষার তো অনেক দিন গেলো, সেই প্রথম বর্ষার পর আর যে কবিতা দিলেন না? Sad

..............................................................

সেদিন উতলা প্রাণে, হৃদয় মগন গানে,
কবি এক জাগে_
কত কথা পুষ্পপ্রায় বিকশি তুলিতে চায়
কত অনুরাগে
একদিন শতবর্ষ আগে।।
আজি হতে শতবর্ষ পরে
এখন করিছে গান সে কোন্ নূতন কবি
তোমাদের ঘরে!


ব্লগারের প্রোফাইল ছবি

ইদানিং লোড শেডিং পাইনা বললেই চলে;
কিন্তু বিভিন্ন কাজে ব্যস্ত থাকতে হয়।
তবে কবিতা আসবে বর্ষার, যে দিন খিচুরী খাওয়ার মত বৃষ্টি হবে!

--------------------------------------------------------
সোনালী স্বপ্ন বুনেছি
পথ দিয়েছি আধারী রাত ........


ব্লগারের প্রোফাইল ছবি

সত্যি অপু্‍‌‌রভ । সুভ জন্ম দিন ্‌্‌্‌্‌্‌্‌্‌সুফিয়া কামাল

khaled


ব্লগারের প্রোফাইল ছবি

ধন্যবাদ।
শুভ জন্মদিন মা।

..............................................................

সেদিন উতলা প্রাণে, হৃদয় মগন গানে,
কবি এক জাগে_
কত কথা পুষ্পপ্রায় বিকশি তুলিতে চায়
কত অনুরাগে
একদিন শতবর্ষ আগে।।
আজি হতে শতবর্ষ পরে
এখন করিছে গান সে কোন্ নূতন কবি
তোমাদের ঘরে!


ব্লগারের প্রোফাইল ছবি

ভাই মনে কিসু কইরেন না আমি ব্লঅগ পস্ত করতএ পারসি না তাই এই কাম করসি

বন্ধুরা এই লিঙ্ক টিতে ক্লিক করে দেখুন ইন্ডিয়া আমাদের সাথে কি কোরসে
(friends click this link and see what did to with us india)

http://www.facebook.com/photo.php?fbid=406848432700140&l=5dd094bf89

Habib
Facebook ID: habib_64@live.com

Habib
Facebook ID: habib_64@live.com


ব্লগারের প্রোফাইল ছবি

এই সর সর ,এইখানে এইডস ছড়াইছ না

___________
জয় বাংলা,জয় বঙ্গবন্ধু


ব্লগারের প্রোফাইল ছবি

Laughing out loud Laughing out loud Laughing out loud
বেঁকাদা আছে না।

..............................................................

সেদিন উতলা প্রাণে, হৃদয় মগন গানে,
কবি এক জাগে_
কত কথা পুষ্পপ্রায় বিকশি তুলিতে চায়
কত অনুরাগে
একদিন শতবর্ষ আগে।।
আজি হতে শতবর্ষ পরে
এখন করিছে গান সে কোন্ নূতন কবি
তোমাদের ঘরে!


ব্লগারের প্রোফাইল ছবি

অসাধারণ!!

‍‍‌‍‍‍‍**********
স্বপ্নের কারিগর


ব্লগারের প্রোফাইল ছবি

যূথী আপা, অনেক ধন্যবাদ। smile :) :-)

..............................................................

সেদিন উতলা প্রাণে, হৃদয় মগন গানে,
কবি এক জাগে_
কত কথা পুষ্পপ্রায় বিকশি তুলিতে চায়
কত অনুরাগে
একদিন শতবর্ষ আগে।।
আজি হতে শতবর্ষ পরে
এখন করিছে গান সে কোন্ নূতন কবি
তোমাদের ঘরে!


ব্লগারের প্রোফাইল ছবি

দেরির জন্য ক্ষমাপ্রার্থী Sad

সুফিয়া কামালের জন্য একটা চিরঞ্জীব মোমবাতি
পঁচিশে বৈশাখের জন্য এক থোকা সাদা গোলাপ

*****************************
আমার কিছু গল্প ছিল।
বুকের পাঁজর খাঁমচে ধরে আটকে থাকা শ্বাসের মত গল্পগুলো
বলার ছিল।
সময় হবে?
এক চিমটি সূর্য মাখা একটা দু'টো বিকেল হবে?


ব্লগারের প্রোফাইল ছবি

প্রীতমদা, লজ্জা দেবেন না।
রবির একটা কবিতা;

আজ প্রথম ফুলের পাব প্রসাদখানি, তাই ভোরে উঠেছি।
আজ শুনতে পাব প্রথম আলোর বানী, তাই বাইরে ছুটেছি।

ফুলেল ধন্যবাদ, গোলাপ গন্ধ হাওয়ায় ওঠে ভ'রে।
বিদ্রঃ এই আলো কিন্তু রবির, ১ম আলুর না।

..............................................................

সেদিন উতলা প্রাণে, হৃদয় মগন গানে,
কবি এক জাগে_
কত কথা পুষ্পপ্রায় বিকশি তুলিতে চায়
কত অনুরাগে
একদিন শতবর্ষ আগে।।
আজি হতে শতবর্ষ পরে
এখন করিছে গান সে কোন্ নূতন কবি
তোমাদের ঘরে!


ব্লগারের প্রোফাইল ছবি

"নিষ্ঠুর নিদয় শশী সুদুর গগণে বসি,
কি দেখিছো জগতের হিংসা পাপ রাশি,
মোরে দেখে পায় তব হাসি?"..........
অনেক কাল আগে এই কবিতাটা পড়েছিলাম। এখনো এই বিখ্যাত চরণ দুটো মনে আছে।
আরো বেশী নেশাতুর হলাম বৈশাখের লেখার গাঁথুনীতে।
অনেক ধইন্যা আপনাকে।

-----------------------
মনের শুদ্ধতাই পবিত্রতা


ব্লগারের প্রোফাইল ছবি

উদাসী হাওয়ার স্মৃতিকাতরতা বয়ে আনলেন।
অনেক ধন্যবাদ।

..............................................................

সেদিন উতলা প্রাণে, হৃদয় মগন গানে,
কবি এক জাগে_
কত কথা পুষ্পপ্রায় বিকশি তুলিতে চায়
কত অনুরাগে
একদিন শতবর্ষ আগে।।
আজি হতে শতবর্ষ পরে
এখন করিছে গান সে কোন্ নূতন কবি
তোমাদের ঘরে!


ব্লগারের প্রোফাইল ছবি


ব্লগারের প্রোফাইল ছবি

কৃতজ্ঞতা।
সজল শ্রদ্ধা।

..............................................................

সেদিন উতলা প্রাণে, হৃদয় মগন গানে,
কবি এক জাগে_
কত কথা পুষ্পপ্রায় বিকশি তুলিতে চায়
কত অনুরাগে
একদিন শতবর্ষ আগে।।
আজি হতে শতবর্ষ পরে
এখন করিছে গান সে কোন্ নূতন কবি
তোমাদের ঘরে!


ব্লগারের প্রোফাইল ছবি

খুব গুছানো লেখা।
আপনার লেখা অবশ্য সব সময়ই অনেক ভালো হয়।
এবারেও কোন ব্যতিক্রম নয়।
এমন তথ্য বহুল আর সুন্দর লেখার জন্য ধন্যবাদ।


ব্লগারের প্রোফাইল ছবি

অনেক ধন্যবাদ। smile :) :-)

..............................................................

সেদিন উতলা প্রাণে, হৃদয় মগন গানে,
কবি এক জাগে_
কত কথা পুষ্পপ্রায় বিকশি তুলিতে চায়
কত অনুরাগে
একদিন শতবর্ষ আগে।।
আজি হতে শতবর্ষ পরে
এখন করিছে গান সে কোন্ নূতন কবি
তোমাদের ঘরে!


ব্লগারের প্রোফাইল ছবি

প্রিয়তে নিলাম Star Star Star Star Star Star Star

--------------------------------------------------------------------------------------------------------------------------------------
" যারা পাকিস্তানের সাথে রিকন্সিলিয়েশন এর ধুয়া তোলে , থুথু ছিটাই সেসব বেজন্মাদের মুখে "


ব্লগারের প্রোফাইল ছবি

smile :) :-)
কৃতজ্ঞতা।

..............................................................

সেদিন উতলা প্রাণে, হৃদয় মগন গানে,
কবি এক জাগে_
কত কথা পুষ্পপ্রায় বিকশি তুলিতে চায়
কত অনুরাগে
একদিন শতবর্ষ আগে।।
আজি হতে শতবর্ষ পরে
এখন করিছে গান সে কোন্ নূতন কবি
তোমাদের ঘরে!


ব্লগারের প্রোফাইল ছবি

Star Star Star Star Star

""""""""""""""""""""""""""""""""""""""""""""""""""""""""""""""""""""""""""""""""""""""""""""
স্বেচ্ছায় নেওয়া দুঃখকে ঐশ্বর্যের মতই ভোগ করা যায় ........................

glqxz9283 sfy39587p07