Skip to content

আজকের ৭ মার্চ আওয়ামীলীগের র‌্যালি নিয়ে আমার কয়েকটা পর্যবেক্ষণ

ব্লগারের প্রোফাইল ছবি

প্রথমত রাষ্ট্রীয় উচ্চ পর্যায়ে ক্ষমতায় থাকলে রাজনীতিবিদরা সাধারণত একটু ডিপ্লম্যাটিক সুরে কথা বলেন কাউকে বিলা না করবার অভিপ্রায়ে র‌্যালির প্রারম্ভিক ভাষণে আজকে শেখ হাসিনা এই নিয়মের ব্যাতয় ঘটিয়েছেন তিনি সরাসরি পাকিস্তান সরকার এবং তাদের গোয়েন্দা সংস্থা আইএসআইকে বাংলাদেশের অভ্যন্তরীণ রাজনীতিতে নাক গলানোর জন্য তুলোধনা করলেন ( সম্প্রতি মধ্যপ্রাচ্য ভিত্তিক একটা পত্রিকায় প্রতিবেদনে বলা হয়েছে বিএনপি আইএসআই হতে ৫ কোটি রূপী ৯১ এর ইলেকশন করতে নিয়েছিল । )

সাম্প্রতিক আর্মির মধ্যে হিজুবুত তাহরির সমর্থক অফিসারদের ব্যর্থ কুয়ের মদত দাতা হিসাবে শেখ হাসিনা মনে হয় পাকিস্তানও থাকতে পারে বলে মনে করছেন এই কারনে তার এই অনমনীয় অবস্থান তাদের ব্যাপারে ।

র‌্যালির কভারেজকে কেন্দ্র করে বেসরকারি ইলেক্ট্রিনিকস মিডিয়াগুলার আচরনও ভেবে দেখার মতো কিছুদিন আগে খালেদা জিয়ার রোড মার্চকে কেন্দ্র করে দেশের নানা জায়গায় নোয়খালী চট্টগ্রাম সিলেট জনসভাগুলির লাইভ সম্প্রচার করতে একুশে টিভি অতি উৎসাহী ছিল কিন্তু ঢাকার মধ্যে আওয়ামীলীগের কর্মসূচী হওয়া সত্ত্বেও তা লাইভ কভারেজ করতে তাদের দেখা যায়নি একই কথা অন্য কয়েকটা চ্যানেল বেলাও খাটে অবশ্য সদ্য খুলা একটা চ্যানেলকে আবার উল্টা কাজখানাই বেশি করে করতে দেখা যায়

প্রথম আলো এই র‌্যালি নিয়ে করা প্রতিবেদন খানা পড়লে মনে হবে লোক জমায়েত করতে আওয়ামীলীগ খালিই সচিবালয়ের কেরানি নির্ভর ছিল

র‌্যালির যেখানে সমাপ্ত হয় অর্থাৎ ধানমণ্ডি ৩২ একটা কাজে বিকেল বেলায় ছিলাম আমি কাজেই র‌্যালিটা খুব কাছ থেকে স্বশরীরে দেখার সুযোগ হয়েছিল কথা বলেছিলাম র‌্যালিতে অংশগ্রহণ কারি কয়েক জনের সাথে র‌্যালি যারা অংশগ্রহণ করেছে তাদের বেশির ভাগই আওয়ামীলীগের নেতা কর্মি অনেকে মাদারিপুর , রংপুর , মেহেরপুরের মতো দূরবর্তী অঞ্চল হতেও এসেছেন বাস করে সদ্য বিজয়ি নারায়নগঞ্জ এর মেয়র আইভীকে দেখলাম মিছিল করে আসতে বুঝাই যাচ্ছে ইউনুস ইস্যুতে সরকারের সাথে প্রথম আলোর যে শীতল যুদ্ধ চলছে তা তাদের নিউজ কভারেজকে প্রভাবিত করছে

মন্তব্য


ব্লগারের প্রোফাইল ছবি

আলুচনা কইরা কি হইবো? রাজনীতি একটা উর্বর পেশা। মাল কামানোর জায়গা। লোটাকারে ফাকিস্তান পাডাইয়া ফাকিস্তানরে গালি দেওন-কেমুন জানি লাগতেছে। বাদ দেন আপনারা আরাম পাইলেই আমাদের মতো আম জনতার আরাম।

_____________________

ক্ষুদ্র স্বার্থ ভুলে মুক্তির দাঁড় টান।


ব্লগারের প্রোফাইল ছবি

পদ্মা লোচনরে র‌্যালির আশেপাশে দেখা যাই নাই অন্তত আমি দেখি নাই , কয়েকদিন আগে রাঙামাটির বাগাইছড়িতে এক উপজেলা নির্বাহী অফিসারে লগে কথা হইল এইখানে আসার আগে তিনি কুমিল্লায় ছিলেন ওইখানে লোটাসে লগে ক্যাচাল করায় এখন বাগাইছড়িতে রাইতের বেলা ইন্দুরের কামড় তাকে সহ্য করতে হচ্ছে ।

____________________________________
একটা টাইম মেশিন দরকার ছিল, কেউ কি ধার দিবেন ?


ব্লগারের প্রোফাইল ছবি

সে গেছে ফাকি কানেকশনে ইঞ্জিন অয়েল ঢালতে!!

_____________________

ক্ষুদ্র স্বার্থ ভুলে মুক্তির দাঁড় টান।


ব্লগারের প্রোফাইল ছবি

কোর বিএনপির চাইতে কিন্তু ঢাকায় শিবিরের লোকজন উল্লেখযোগ্য হারে বৃদ্ধি পাইছে গত কয়দিনে; এইগুলাই ডেঞ্জারাস। হাসিনার উচিত এই চান্সে শিবিরের সবগুলারে পিটায়ে লাল-নীল সূতা বাইর করে দেয়া

___________________
------------------------------
শ্লোগান আমার কন্ঠের গান, প্রতিবাদ মুখের বোল
বিদ্রোহ আজ ধমনীতে উষ্ণ রক্তের তান্ডব নৃত্য।।
দূর্জয় গেরিলার বাহুর প্রতাপে হবে অস্থির চঞ্চল প্রলয়
একজন সূর্যসেনের রক্তস্রোতে হবে সহস্র নবীন সূর্যোদয়।।


ব্লগারের প্রোফাইল ছবি

সরকার বিরোধী কার্যক্রম-

১.মিডিয়ার জামাত তোষন
২.এস্তেমায় আসা পাকী জঙ্গীদের দেশে না ফেরা
৩.সরকারবিরোধী আন্দোলনে জামাতের সক্রিয়তা বেশী
৪.সৌদি দুতাবাসের স্টাফ হত্যা
৫. ১২ ই মার্চ ধ্বংসাত্বক কিছু করার পরিকল্পনা সহ গনজমায়েত
৬.যুদ্ধাপরাধী বিচারে অবহেলা আর দীর্ঘায়িত করা
৬.সর্বোপরি সরকারের উপর জনগনের ক্রমান্বয়ে আস্থাহিনতা সৃষ্টি

আওয়ামীলীগের সরকারবিরোধী কার্যক্রম-

সরকারের ম্যাসেজ জনগন পর্যন্ত পৌছুচ্ছে না কেন ? ৭ই মার্চ এলাকাভিত্তিক এইবার কোন আলোচনা বা বঙ্গবন্ধুর ভাষন নাই কেন? স্থানীয়ভাবে আওয়ামীর সফলতা প্রচার করে কোন জনসভা হয় না কেন ? দলীয় উপজেলা চেয়ারম্যান ও এমপিরা চুপ কেন ?

সমীকরণটা মিলাতে পারছি না Sad

___________
জয় বাংলা,জয় বঙ্গবন্ধু


ব্লগারের প্রোফাইল ছবি

এলাকা ভিত্তিক কর্মসূচী ঢাকার বাইরে কেমন হয়েছে তা নিয়ে কোন ধারনা নেই তবে এই ব্যাপারে যেহেতু ঢাকায় র‌্যালি করে প্রচুর লোক জমায়েতের পরিকল্পনা ছিল তাই মফস্বলে খুব একটা কর্মসূচি নেওয়া হয় নাই বলে আমার ধারনা

____________________________________
একটা টাইম মেশিন দরকার ছিল, কেউ কি ধার দিবেন ?


ব্লগারের প্রোফাইল ছবি

শিবিরের এখন ডেসপারেট অবস্থা নিজেদের দলের ব্যানারে কিছু করতে চাইলে পাবলিক খাবে না বিএনপির কাঁধে বন্ধুক রেখে যতোটা সম্ভব তারা নিজেদের রক্ষা করতে চাচ্ছে ।

ধরপাকড়ের আগে যেইটা বেশি জরুরী সেইটা হচ্ছে যেগুলারে ধরা হয় সেগুলা যেনো জেলেই থাকে পত্রিকায় দেখলাম ৭০ ভাগ মামলা কার্য সুষ্ঠু ভাবে সম্পন্ন না করায় দ্রুতই আবার বের হয়ে মজবাজারে গিয়ে ডিউটি আরম্ভ করে দেয়

____________________________________
একটা টাইম মেশিন দরকার ছিল, কেউ কি ধার দিবেন ?


ব্লগারের প্রোফাইল ছবি

এ ব্যাপারে মাইট্যা বাবাই শ্যাষ ভরসা।

------------------------------------
ছোট বেলায় গাধার দুধ খেয়ে বড় হয়েছি বলে এখন মনে হয় সবাই আমার মত গাধার দুধ খেয়েই বড় হয়- আফসান চৌধুরী, নির্বাহী সম্পাদক, বিডিনিউজটোয়েন্টিফোরডটকম


ব্লগারের প্রোফাইল ছবি

জাতির এই ক্রান্তি লগ্নে মাটিবাবার ফু দেওয়া দু বোতল পানি সরবত বানিয়ে নেত্রীদের কে পান করালে দেশে শান্তি কায়েম হয়ে
যাবে ।

____________________________________
একটা টাইম মেশিন দরকার ছিল, কেউ কি ধার দিবেন ?


ব্লগারের প্রোফাইল ছবি

এই শোভাযাত্রা থেকে আওয়ামী লীগের অর্জনটা কী? আমি যদি বলি এই শোভাযাত্রাটার প্রয়োজন ছিল না, তাহলে অনেকেই হয়তো ভাববেন আমি ৭ মার্চ উদযাপনের পক্ষপাতি নই। আদতে আমি ৭ মার্চ পালনের পক্ষপাতি। কিন্তু এই উদযাপনটা আগে দেখতাম মোড়ে মোড়ে ৭ মার্চের ভাষন বাজিয়ে হতো। বিশেষ করে সকাল বেলার দিকে এটি বেশি হতো। শব্দদূষণ হতো বটে, তবু বড় জনদুর্ভোগ হতো না। এবং এর চাইতেও বড় ব্যাপার হচ্ছে এতে করে গোটা শহরেই এই ভাষন ছড়িয়ে পড়ত, ৭ মার্চের আবেগ ও আমেজ পাওয়া যেত। প্রত্যেকটা প্রোগ্রামের একেকটা স্টাইল দাঁড়িয়ে যায়। ৭ মার্চে এই স্টাইলটা রাখতে পারলে বেশ হতো। কিন্তু আওয়ামী লীগ এবার করেছে শোভাযাত্রা।

এই শোভাযাত্রা থেকে আওয়ামী লীগের ফায়দা হচ্ছে বিরোধী দলকে দেখিয়ে দেয়া -শেখ হাসিনা ভয় নাই/ রাজপথ ছাড়ি নাই। তবে এতে করে জনদুর্ভোগ হয়েছে এবং যে মানুষ কষ্ট পেয়েছে। এই কষ্টটা কম হতো যদি রেলি না করে শুধু জনসভার মধ্যেই সীমাবদ্ধ রাখা যেত ব্যাপারটিকে।


আবার আপনার পোস্টের আলাপে আসি। আপনি বলেছেন মিডিয়া এ্যাটেনশন পায় নাই। টিভি মিডিয়ায় লাইভ সম্প্রচারের জন্য কিছু আদেশ-নিষেধ-উপদেশ-অনুরোধের ম্যানেজমেন্ট থাকা লাগে। একসময় শেখ হাসিনার গাড়ি বহরে যেসব সাংবাদিক যাইতেন খুব ভোরে উঠতে পারলে তাঁরা শেখ হাসিনার সঙ্গে ব্রেকফাস্ট করতে পারতেন সার্কিট হাউসে। সেই দিন বোধহয় এখন আর নাই।
মিডিয়া ম্যানেজমেন্ট আওয়ামী লীগ এখন আর করবে না, কারণ এসব করার চাইতে লাভজনক কাজে সময় দেয়ায়ই বেশির ভাগ হয়তো ব্যস্ত।


ব্লগারের প্রোফাইল ছবি

৭ মার্চে এই স্টাইলটা রাখতে পারলে বেশ হতো। কিন্তু আওয়ামী লীগ এবার করেছে শোভাযাত্রা।


জেলা পর্যায়েও কি শোভাযাত্রা হইছে ? সকালে ৮ টার দিকে কোথাও মাইকে শুনলাম,তারপর সারাদিনও কোথাও আওয়াজ পাইলাম না

___________
জয় বাংলা,জয় বঙ্গবন্ধু


ব্লগারের প্রোফাইল ছবি

জনভোগান্তির হ্রাস করবার সবচেয়ে ভালো উপায় আমার মতে সকল ধরনের মিছিল সমাবেশ শুধুমাত্র ছুটির দিনে ( শনিবার সবচেয়ে উপযুক্ত) করবার ব্যবস্থা করা অন্তত ঢাকা শহরে এই নিয়ম চালু করা উচিত সারা দেশে সম্ভব না হলেও

ধানমণ্ডি ৩২ এ দাঁড়িয়ে যখন র‌্যালি দেখছিলাম তখন পাবলিকদের প্রতিক্রিয়াগুলিও কানে আসছিল কেউ কেউ বলছিল ক্ষমতায় থাকলে সবই হয় এই বলে ব্যঙ্গ করছিল কেউ কেউ বলছিল লীগ চাঙ্গা হয়ে গেছে বলে ফিস ফিস করছিল

সরকারি দলের নেতা কর্মিদের নিষ্ক্রিয় করে বসিয়ে রেখে স্রেফ পুলিশ এবং প্রশাসন দিয়ে সব কিছু ম্যানেজ করতে চাইলে জনমনে একটা ইমপ্রেশন তৈরি হয় যে সরকারে থাকা দলের জন সমর্থন একদম শুন্য এই ধরনের ইমপ্রেশন অত্যন্ত বিপদ জনক ইরানের শাহে ও হুসনি মোবারকের একদম হোয়াইট ওয়াস হয়ে যাওয়ার নেপথ্যে কিন্তু এইটা নিজেদের সমর্থকদের মোবাইলাইজ করতে ব্যর্থ হওয়া
অথচ ইয়েমেনে সরকারে থাকা দল ভালো শো ডাইন করতে সক্ষম হওয়ায় একদম শেষ হয়ে যায়নি

ক্ষমতায় থেকেও মিডিয়ার লোকদের মাখন দিয়ে কভারেজ পেতে অসফল হলে বুঝতে হবে সরকারের পিআর দায়িত্বে থাকা লোকেরা একটা একটা বড় হরিদাশ পাল ।

____________________________________
একটা টাইম মেশিন দরকার ছিল, কেউ কি ধার দিবেন ?


ব্লগারের প্রোফাইল ছবি

জনভোগান্তির হ্রাস করবার সবচেয়ে ভালো উপায় আমার মতে সকল ধরনের মিছিল সমাবেশ শুধুমাত্র ছুটির দিনে ( শনিবার সবচেয়ে উপযুক্ত)


স্টেডিয়ামে করলে তো কোন ক্ষতি নাই বরং দেশের জান মালের ক্ষতি কম হবে।

___________
জয় বাংলা,জয় বঙ্গবন্ধু


ব্লগারের প্রোফাইল ছবি

আপনার প্রস্তাবখানাও আরও বাস্তবসম্মত আমেরিকার রাজনৈতিক দলগুলা এই কাজটা করে

____________________________________
একটা টাইম মেশিন দরকার ছিল, কেউ কি ধার দিবেন ?


ব্লগারের প্রোফাইল ছবি

আইনশৃংখলা রক্ষা সরকারের দায়িত্ব। আজকে খাদ্যমন্ত্রী ডঃ রাজ্জাক বলেছেন-সৌদি দুতাবাস কর্মকর্তা হত্যাকান্ড রাজনৈতিক হত্যা না আর যুগাযুগ মন্ত্রী কইলেন-নাশকতা। কেমনে কিতা?
ষড়যন্ত্র থিওরী ক্ষমতায় থাইক্কাও পাব্লিক খাইলে অবশ্য সরকারের দোষ নাইক্কা।

_____________________

ক্ষুদ্র স্বার্থ ভুলে মুক্তির দাঁড় টান।


ব্লগারের প্রোফাইল ছবি

আমি বুযিনা ফাকিস্থান নামক দেশটার সাথে আমাদের ডিপ্লোমেটিক
রিলেশন রাখার কোন প্রয়োজন আছে ? হাসিনা আজ ফাকিস্থানের নাম সরাসরি বলাতে খুশি হয়েছি ।
ফাকিস্থান নামক একটা বর্বর দেশ এবং জাতির সাথে ডিপ্লোমেটিক ল্যাঙ্গুয়েজে কথা বলার প্রয়োজন আছে বলে আমি মনে করিনা । এই একটা দেশ যেখানে ধর্মের নামে গভঃ স্পনসরড জঙ্গিবাদের
ব্রিডিং সেন্টার আছে এবং সরকারি ভাবে বিভিন্ন দেশে জঙ্গিবাদ এক্সপোর্ট করে ।
মোহতারেমা খালেদা আযম ফাকিস্থানের সাথে ডিপ্লোমেটিক ল্যাঙ্গুয়েজে কথা বলুক ,
হাসিনা যা বলেছে ঠিকই বলেছে ।


ব্লগারের প্রোফাইল ছবি

@ভুমি,
হাসিনা চাকুরী সৃস্টি করে নাই, চীৎকার দিয়ে লাভ নেই; পাকিস্তানে কত লাখ বাংগালী চাকুরী করে?
যারা পাকিস্তানে চাকুরী করে তারা হাসিনাকে চায় না।


ব্লগারের প্রোফাইল ছবি

@ ফারমার ভাই
মাঝে মধ্যে আফনের কথাবার্তা বুযিনা । হাসিনা জব ক্রিয়েট করে নাই । হাসিনা কি
৪০ বছর যাবত ক্ষমতায় আছে নাকি যে আপনি বেকার সমস্যার জন্য হাসিনাকে দায়ী
কর্তেছেন ? ফাকিস্থানে কর্মরত কয়েক লাখ বাঙ্গালিরা হাসিনাকে পসন্দ করেনা ।
আপনি কি বলতে চান ঐ কয়েক লাখ লোকের জন্য আমারা পাকিস্থান জিন্দাবাদ বলি ?
আপনি খোজ নিয়া দেখেন কারা পাকিস্থানে কাজ কর্তে গেছে এবং তাদের সংখা কত ।
ফাকিস্থানে যারা হিজরত করেছে তারা এই দেশে থাকলেও হাসিনাকে পসন্দ কর্তোনা
কারন তারাই ফাকিস্থান গেছে যাদের মন মানসিকতায় চান তারা এবং তারা আমার
সোনার বাংলার পরিবর্তে পাক সার জমিন সাদ বাদ গায় ।


ব্লগারের প্রোফাইল ছবি

@ভুমি,
আমি বাংগালী পাকি নাগরিকদের কথা বলছিনা; বলছি যারা আরব বা মালয়েশিয়া যেতে না পেরে পাকিস্তানে গিয়ে চাকুরী করে তাদের কথা; বেশ কয়েক লাখ।

আইএসআই বাংলাদেশকে পাকিদের সমপর্যায়ে রাখার জন্য খালেদা, সাকাকে ও জামাতকে টাকা দিয়ে যাচ্ছে।

দরিদ্রদের পাকিস্তান যাওয়া বন্ধ করার জন্য চাকুরী সৃস্টি করার দরকার ছিল, এবং সেটা হাসিনার দা্যিত্ব ছিল।

মানুষের আশা হাসিনার প্রতি, খালেদার প্রতি নয়; মানুষ খালেদাকে ভোট দেয় আওয়ামী লীগকে শাস্তি দিতে।


ব্লগারের প্রোফাইল ছবি

@ফারমার

বলছি যারা আরব বা মালয়েশিয়া যেতে না পেরে পাকিস্তানে গিয়ে চাকুরী করে তাদের কথা; বেশ কয়েক লাখ।


তাহলে বিএনপি আমলে কই যাইতো?? বিদেশে বসে শুধু সমালোচনা না করে তথ্য যাচাই করেন না কেন? প্রশংসা না করেন, মিথ্যা তথ্য দিয়ে উসকানি নাই বা দিলেন।

Manpower export rises by 40pc
Bangladesh Sangbad Sangstha . Dhaka

The country has witnessed a 40 per cent growth in overseas labour markets as about 5.5 lakh local workers went abroad with employment this year compared with 3.9 lakh in 2010.

‘Till today this year around 5.5 lakh workers went abroad that might be nearly six lakh by the last two weeks of the month,’ expatriate welfare and overseas employment secretary Zafar Ahmed Khan told a news conference at the National Press Club on the eve of International Migrants Day.

He said the reason behind the growth was that the government had put its sincere efforts in finding new destinations as well as unlocking the closed overseas labour markets.

source: bangladesheconomy.wordpress.com/.../manpower-export-rises-by-40...

২০০১-২০০৬ বিএনপির পাঁচ বছর মেয়াদে মোট ১৩,৮৭০০০ জন বিদেশে চকুরি নিয়ে যায়। আর ২০০৯-২০১১ এই তিন বছরে অলরেডি ১৩,২৫০০০ জন বিদেশে গেছে চাকুরি নিয়ে।

export-hub.com/...bangladesh/4751-exports-bangladesh-manpower-e...

--------------------------------------------------------------------------------
ধর্ম হচ্ছে বিশ্বাস। বিশ্বাসে কোন যুক্তি প্রমাণের প্রয়োজন পড়েনা।


ব্লগারের প্রোফাইল ছবি

ভূমি ভাই শেখ হাসিনার এই শক্ত কথার পর পাকিস্তানে সরকার বিশেষ করে মিলিটারি ষ্টাবলিষ্টমেনট প্রচণ্ড বিলা হবে সন্দেহ নাই রাষ্ট্রদূত প্রত্যহারের দিকেও ঘটনা মোড় নিতে পারে হয়তো ।

____________________________________
একটা টাইম মেশিন দরকার ছিল, কেউ কি ধার দিবেন ?


ব্লগারের প্রোফাইল ছবি

সকাল বিকাল নাসতা কর দুইটা একটা বিএনপি ধর।।।।। Cool Cool

রাজাকারদের বিচার চাই


ব্লগারের প্রোফাইল ছবি

সকালে বাসা থেকে বের হবার আগে এন টিভিতে র‍্যালিটার অংশ বিশেষ দেখানো হয়েছে। ভাল লাগল। আরও ভাল লেগেছে আওয়ামিলীগের সৌজন্যে নির্মলেন্দুগুনের একটি কবিতা এন টিভিতে প্রচার হয়েছে - আসাদুজ্জামান কবিতাটি আবৃতি করেছেন।

ভাল ভাল সবকিছু মিস করছি। ফেব্রুয়ারী এবং মার্চ মাসে দেশকে খুব মিস করি।

______________________________________
'বিপ্লব স্পন্দিত বুকে মনে হয় আমিই মুজিব'


ব্লগারের প্রোফাইল ছবি

বিএনপি থেকে জামাত শিবির আরও ভয়ংকর, দিন দিন শিবির বেড়ে যাচ্ছে, কারন তাদের শক্ত অর্থনীতিক ভিত্তি আছে, তারা ইহকাল পরকাল ২টারই লোভ দেখায়া দলে টানে, চট্রগ্রামের মহসিন কলেজ ও চট্রগ্রাম কলেজ শিবিরের দখলে, হাই স্কুল থেকে বিশেষ করে ৯ম ১০ম শ্রেনীর মেধাবী ছাত্রদের তারা ভালো কলেজে ভর্তির লোভ দেখিয়ে দলে ভিরায়, আর কলেজ ছাত্রদের ভার্সিটিতে ভর্তির লোভ দেখায়া দলে টানে, পাশ করলে ইসলামি ব্যাংক, কেয়ারি লিমিটেড ও অন্যান্য জামাত শিবিরের প্রতিষ্ঠানে চাকরি দিয়ে থাকে, সাধারন মধ্যবিত্য ছাত্ররা কিন্তু দেশ রাজনীতি নিয়া ভাবার সময় নাই, একটা মধ্যবিত্য পরিবারে অভাব অনোটনের সংসারে একটা চাকরীর মূল্য অনেক, আমি আমার আশে পাশে অনেককে দেখছি তারা আধুনিক ও লিবারেল ছিলো কিন্তু পরে জামাত শিবির হয়ে গেছে। আওয়ামিলিগ নেতারা এইসব নিয়া ভাবে না, গালভরা বুলি আর রেলি দিয়া জামাত শিবিরকে প্রতিহত করতে পারবে না, জামাত শিবিরে আর্থিক প্রতিষ্ঠান বন্ধ করতে হবে আর শিক্ষা প্রতিষ্ঠান থেকে উচ্ছেদ করতে হবে।

-------------------------------------
বাংলার আপদে আজ লক্ষ কোটি বীর সেনা
ঘরে ও বাইরে হাঁকে রণধ্বনি, একটি শপথে
আজ হয়ে যায় শৌর্য ও বীরগাথার মহান
সৈনিক, যেন সূর্যসেন, যেন স্পার্টাকাস স্বয়ং সবাই।


ব্লগারের প্রোফাইল ছবি

আওয়ামী লীগ সবচেয়ে বড় অন্যায় যেটা করছে - বঙ্গবন্ধুরে আওয়ামীলীগের দলীয় সম্পত্তি বানাইয়া ফেলছে |

সোর্স হিসেবে মধ্যপ্রাচ্য ভিত্তিক একটা পত্রিকা না ইকনমিস্ট কোনটা বেশি গ্রহণযোগ্য ?

glqxz9283 sfy39587p07