Skip to content

গরম হাওয়া

ব্লগারের প্রোফাইল ছবি


১৯৪৭ সালের দেশভাগের সুদূরপ্রসারি প্রভাব ২০১১ সালে এসেও বারে বারে উপলব্ধি করতে পারি যখন ছিট মহলে বসবাসকারিদের সমস্যা নিয়ে কিংবা তিস্তা পানি বণ্টন নিয়ে আমরা আলোচনা করি । দেশভাগের ৬০ বছর পার হয়ে গেলেও সুনীলের পূর্ব পশ্চিম উপন্যাস কিংবা খুশয়ন্ত সিংয়ের ‘‘ট্রেন টু পাকিস্তান” তাদের বইয়ে দেশভাগের পর সৃষ্ট মানবিক বিপর্যয় নিয়ে আলোচনা করেছেন , পরিচালক দীপা মেহেতা “আর্থ” কিংবা ঋত্বিক ঘোটক “মেঘে ঢাকা তারা” সিনেমায় দেশভাগের নানা দিক তুলে ধরতে চেয়েছেন । তবে আমার কাছে সব সময়েই মনে হয়েছে দেশভাগ নিয়ে করা উপন্যাস বা সিনেমাগুলির বেশির ভাগই বাংলা ও পাঞ্জাবের ঘটনাবলিকে যেভাবে উপজীব্য করছে সেভাবে ভারতের ঊর্দুভাষি মুসলমান অর্থাৎ যারা ভারতের হিন্দি বেল্ট বলে পরিচিত রাজ্যগুলিতে বাস করত দেশভাগের প্রভাব তাদের উপর কেমন পড়ছে তা সেভাবে আলোচিত হয়নি। অথচ মুসলিমলীগ ও পাকিস্তান আন্দোলনের মূল শক্তি ছিল বলা যায় আলিগড় বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রিক শিক্ষিত ঊর্দু ভাষি মুসলিম মধ্যবিত্ত শ্রেণী যারা উত্তর ভারতে বসবাস করত ।

পরিচালক এম এস সত্যায়ু তার গরম হাওয়া সিনেমায় অনালোচিত এই প্রশ্নগুলির উত্তর খুঁজার প্রচেষ্টা নিয়েছেন বলা যায় । গরম হাওয়া সিনেমার কাহিনী মূল কাহিনী আবর্তিত হয় ৪৭ সালের দেশ ভাগ পরবর্তী আগ্রা শহরের বাস করা জুতা কারখানার মালিক সেলিম মিরজার পরিবারকে কেন্দ্র করে । যখন তার পরিচিত বন্ধু বান্ধব ও আপনজনেরা নিজেদের পিতৃপুরুষের ভিতে মাটি ত্যাগ করে নতুন দেশ পাকিস্তানের উদ্দেশ্যে পাড়ি দিচ্ছে তখন সেলিম মিরজা এবং তার একান্নবর্তী পরিবারের সদস্যগণ স্রোতের বিপরীতে যাওয়ার সিদ্ধান্ত নেয়, কিন্তু দেশভাগ যে সাম্প্রদায়িক বিষবাষ্প রাষ্ট্র সমাজে ছড়িয়ে দিয়েছে তার ফলে দেশত্যাগ না করবার সিদ্ধান্ত নেওয়াটা যতোটা না সহজ ছিল তাতে অটল থাকা যেনো ততোটাই কঠিন সিনেমাটা মূলত সেলিম মিরজার পরিবারের এই ঠিকে থাকার সংগ্রামকে পর্দায় তুলে ধরে ।

১৯৭৩ সালে নির্মিত গরম হাওয়া সিনেমার মোট বাজেট ছিল মাত্র ৮ লক্ষ কিন্তু এই সীমিত বাজেট দিয়েই পরিচালক দেশভাগ পরবর্তী রাজনীতিক ও সামাজিক অস্থিরতা গুলা চমৎকারভাবে ছবিতে তুলে ধরেন ।

সিনেমার ইউটিউব লিংক



See video


মন্তব্য


ব্লগারের প্রোফাইল ছবি

নাম শুনে তো প্রথমে বাংলা সিনেমার মনে আসছে!

------------------------------------
ছোট বেলায় গাধার দুধ খেয়ে বড় হয়েছি বলে এখন মনে হয় সবাই আমার মত গাধার দুধ খেয়েই বড় হয়- আফসান চৌধুরী, নির্বাহী সম্পাদক, বিডিনিউজটোয়েন্টিফোরডটকম


ব্লগারের প্রোফাইল ছবি

হা গরম হাওয়া শব্দটা শুনলেই বাংলা খুল্লাম খুলা মুভিগুলার কথায় সবার আগে ছবি মাথায় আসে !

____________________________________
একটা টাইম মেশিন দরকার ছিল, কেউ কি ধার দিবেন ?


ব্লগারের প্রোফাইল ছবি

আসলে প্রথম কমেন্ট পোষ্ট না পড়েই করেছিলাম। আপনি তো আসলেই বাংলা সিনেমা নিয়ে লিখেছেন।
তয় খুল্লাম খুল্লাম কিছু নাই এই আর কি!

আপনার জন্য একটা খুল্লাম খুল্লাম গান



See video




মাইয়ার সাথে মোটা মত লোকটা আমাদের সবার প্রিয় মাটি বাবা

------------------------------------
ছোট বেলায় গাধার দুধ খেয়ে বড় হয়েছি বলে এখন মনে হয় সবাই আমার মত গাধার দুধ খেয়েই বড় হয়- আফসান চৌধুরী, নির্বাহী সম্পাদক, বিডিনিউজটোয়েন্টিফোরডটকম


ব্লগারের প্রোফাইল ছবি

মাটির বাবার খোমা দেখে ভুই পাইছি তয় তার পরীর সাথে লিলা খেলা দেখে ধমাধম ধর্মের প্রতি আগ্রহ বৃদ্ধি পেয়েছে Tongue

____________________________________
একটা টাইম মেশিন দরকার ছিল, কেউ কি ধার দিবেন ?


ব্লগারের প্রোফাইল ছবি

সিনেমাটি ডাউনলোড করে দেখবো। ধন্যবাদ পোষ্টের জন্য।

_________________________________________________________________________________

সিগনেচার নাই।


ব্লগারের প্রোফাইল ছবি

চমৎকার একটা মুভি না দেখলে মিস করবেন ।

____________________________________
একটা টাইম মেশিন দরকার ছিল, কেউ কি ধার দিবেন ?


ব্লগারের প্রোফাইল ছবি

ধন্যবাদ........

ডাউন লোড করে দেখতে হবে।

_________________________
উত্তাল ঢেউয়ের সামনে অসহায় দাঁড়িয়ে
সঠিক দিশার সন্ধানে ব্যপৃত থাকার প্রয়াস............


ব্লগারের প্রোফাইল ছবি

ঠিক আছে smile :) :-)

____________________________________
একটা টাইম মেশিন দরকার ছিল, কেউ কি ধার দিবেন ?


ব্লগারের প্রোফাইল ছবি

দেশভাগ নিয়ে করা উপন্যাস বা সিনেমাগুলির বেশির ভাগই বাংলা ও পাঞ্জাবের ঘটনাবলিকে যেভাবে উপজীব্য করছে সেভাবে ভারতের ঊর্দুভাষি মুসলমান অর্থাৎ যারা ভারতের হিন্দি বেল্ট বলে পরিচিত রাজ্যগুলিতে বাস করত দেশভাগের প্রভাব তাদের উপর কেমন পড়ছে তা সেভাবে আলোচিত হয়নি।


হয়তো বাংলা আর পাঞ্জাবের দাঙ্গার ভয়াবহতা এর কারণ।

পোষ্ট ভাল লাগল, আশা করি দেখব ছবিটা।

....................................................................................


আমরা ছুডলোক, গালিবাজ। জামাত শিবির ছাগুর বিরুদ্ধে গালাগালি করেই যাব, প্রতিরোধ করেই যাব। সুশীলতার মায়েরে বাপ। আমরা ছাগু ও সুশীলদের উত্তমরূপে গদাম দিয়ে থাকি


ব্লগারের প্রোফাইল ছবি

ভালো বলেছেন পাঞ্জাব এবং বাংলা বেশি সাফার করেছে সে ব্যাপারে কোন সন্দেহ নেই তবে পাঞ্জাব ও বাংলার লোকেরা সীমান্ত পাড়ি দেওয়ার পর একই ধরনের ভাষা ও কালচার পেয়েছে কাজেই সেট্টেলড্ হতে খুব একটা বেগ পেতে হয়নি

ঊর্দু ভাষিদের ক্ষেত্রে সেটা হয়নি কারন উত্তর ভারত হতে তারা করাচি না হয় ঢাকাতে গিয়েছে যেখানকার ভাষা কালচার বলা যায় একেবারেই ভিন্ন ( করাচির লোকাল ভাষা সিন্ধি) ফলে তারা কখনই সেইভাবে সেট্টেলড হতে পারেনি

একারনে দেখা যায় এখনও করাচিতে মোহাজির ও সিন্ধি পাঠান বন্ধুক যুদ্ধ হয় ।

____________________________________
একটা টাইম মেশিন দরকার ছিল, কেউ কি ধার দিবেন ?


ব্লগারের প্রোফাইল ছবি

গুড সাবজেকট


ব্লগারের প্রোফাইল ছবি

ধন্যবাদ ।

____________________________________
একটা টাইম মেশিন দরকার ছিল, কেউ কি ধার দিবেন ?


ব্লগারের প্রোফাইল ছবি

ধন্যবাদ মাষ্টার সাহেব।
আমার আগ্রহের বিষয় নিয়ে লিখছেন তাই আমারো ধন্যবাদ।

_____________________

ক্ষুদ্র স্বার্থ ভুলে মুক্তির দাঁড় টান।


ব্লগারের প্রোফাইল ছবি

ভবিষ্যৎতে এ ধরনের পোস্ট আরও দেওয়ার চেষ্টা থাকবে ।

____________________________________
একটা টাইম মেশিন দরকার ছিল, কেউ কি ধার দিবেন ?


ব্লগারের প্রোফাইল ছবি

ডাউনলোড করে দেখে নিব। ধন্যবাদ।

__
দুই ধরন ধরণীর অধিবাসীর--
যাদের বুদ্ধি আছে, নাই ধর্ম,
আর যাদের ধর্ম আছে, অভাব বুদ্ধির।
--একাদশ শতকের অন্ধ আরব কবি আবুল 'আলা আল-মা'আররি।


ব্লগারের প্রোফাইল ছবি

দেখার পর কেমন লাগল জানাবেন ।

____________________________________
একটা টাইম মেশিন দরকার ছিল, কেউ কি ধার দিবেন ?


ব্লগারের প্রোফাইল ছবি

ভারত ভাগ হয়েছে ৬৪ বছর হয়ে গেল। আপনার কি মূল্যায়ন , অখন্ড ভারত ভাগ হওয়া সকলের জন্য আশীর্বাদ নাকি অভিশাপ হয়েছে?

-------------------------------------------------------------------------------------------------------
৫৪:১৭ আমি কোরআনকে সহজ করে দিয়েছি বোঝার জন্যে। অতএব, কোন চিন্তাশীল আছে কি?


ব্লগারের প্রোফাইল ছবি

ফারুক ভাই প্রশ্নটা আসলে খুবই জটিল এবং “ সকলে “ শব্দটা এই খানে প্রযোজ্য হবে না কিনা সে ব্যাপারেও সন্দেহ আছে
কারন ভারত ভাগের ফলে কেউ বিত্তবান হতে সব কিছুই খুইয়ে পথের ফকির হয়ে গেছে আবার একই অবস্থার প্রেক্ষিতে অনেকে নিঃসহ হতে বিত্তবান হয়েছে

পাকিস্থান হওয়ার কথা ছিল সকল মুসলমানের জন্য একটা সেইফ হোম শিয়া সুন্নী কাদিয়ানি ইস্যু নিয়ে প্রতিনিয়ত দাঙ্গা বেলুচি পাঠান মোহাজির পাঞ্জাবি দাঙ্গা আঙুল উঁচিয়ে দেখিয়ে দেয় সেই উদ্দেশ্যে ব্যর্থ হয়েছে

আবার ভারতে শিখ হিন্দু মুসলিম রায়ট্ হয় কয়েক বছর পর পর এবং রাজনীতিতে ধর্মিয় শক্তির উথান ভারতের ধর্মনিরপেক্ষ আইন বন্ধ করতে ব্যর্থ হয়েছে কাজেই অখণ্ড ভারত কি সব ধর্মের সমান অধিকার নিশ্চিত করতে পারত কিনা সেইটা নিয়েও বিতর্ক সব সময়েই থাকবে কাজেই ভারত ভাগের পক্ষে বিপক্ষে চাইলে নানা যুক্তি খাড়া করা সম্ভব ।

তবে একটা বিষয়ে আমি নিশ্চিত ভারত পাকিস্তান কিংবা বাংলাদেশে সংখ্যালঘু হিন্দু/ মুসলিম যারা নিজ নিজ শিকড় আঁকড়ে টিকে থাকার চেষ্টা করেছে এবং দেশ ত্যাগের অপশন গ্রহণ করেনি তাদেরকে প্রতিনিয়ত সংগ্রাম করতে হয়েছে এখনও হচ্ছে ।

____________________________________
একটা টাইম মেশিন দরকার ছিল, কেউ কি ধার দিবেন ?


ব্লগারের প্রোফাইল ছবি

তবে একটা বিষয়ে আমি নিশ্চিত ভারত পাকিস্তান কিংবা বাংলাদেশে সংখ্যালঘু হিন্দু/ মুসলিম যারা নিজ নিজ শিকড় আঁকড়ে টিকে থাকার চেষ্টা করেছে এবং দেশ ত্যাগের অপশন গ্রহণ করেনি তাদেরকে প্রতিনিয়ত সংগ্রাম করতে হয়েছে এখনও হচ্ছে ।



চরম সত্য কথা।

_________________________
উত্তাল ঢেউয়ের সামনে অসহায় দাঁড়িয়ে
সঠিক দিশার সন্ধানে ব্যপৃত থাকার প্রয়াস............


ব্লগারের প্রোফাইল ছবি

ভালো লাগলো
ফারুক সাহেব ,দেশ ভাগ কিন্তু কোনো সাধারন মানুষ চায় নি চেয়েছিল তথাকথিত নেতা আর কিছু 'শিক্ষিত' লোক

glqxz9283 sfy39587p07