Skip to content

বেদূঈন সাম্রাজ্যে এক উদাসী পথিক - ১

ব্লগারের প্রোফাইল ছবি

Saudi traffic police



"And please, dear Dad, don't drink no more

While drivin' on your way

But meet us with our mother, Dad

In heaven some sweet day"





বিগত ছয় মাসে ২৪৩ জন গাড়ীচালকের লাইসেন্স বাতিল করা হয়েছে শুধু মাত্র জেদ্দা নগরীতেই। ট্রাফিক পুলিশের ভাষ্যমতে এরা মাতাল অবস্থায় গাড়ি চালাচ্ছিল। এদের অবশ্য শুধু লাইসেন্স বাতিল করেই ছেড়ে দেয়া হয়নি। শাস্তি হিসাবে প্রত্যেককে ৮০ টি দোররা মারা হয় এবং সাথে ৫০০ রিয়াল জরিমানা। ভাবছি শুধু জেদ্দা নগরীর অবস্থা যদি হয় এমন, তাহলে রাজধানী নগরী রিয়াদ বা পূর্বাঞ্চলের নগরীগুলোর (দাম্মাম , দাহরাইন , আল-খোবার) কি অবস্থা হতে পারে।



Click here for 'Drunk driving: 243 licenses seized this year'





------------------------------------------------------------------------------------------------------------------

থাকবো নাকো বদ্ধ ঘরে,

দেখবো এবার জগতটা কে।



We want to drive and not driven





সৌদিতে বর্তমানে যে ঘটনাটি সবচেয়ে বেশী আলোচিত তা হচ্ছে আইন ভংগ করে মহিলাদের রাস্তায় গাড়ি চালানো। সবাই নিশ্চয় জানেন সৌদি আরবে মহিলাদের জন্যে গাড়ী চালানো সম্পূর্ন নিষিদ্ধ। কিন্তু মহিলারা যেভাবে একের পর এক 'খুলে আম' গাড়ি চালানোর ঘটনার জন্ম দিচ্ছেন তা নিয়ে সরকার বেশ বিব্রত। ঘটনার সূত্রপাত 'মানাল আল-শরীফ' নামের এক মহিলা কে কেন্দ্র করে। মানাল আল-শরীফ একজন নারী মানবাধিকার কর্মী। কিং আব্দুল আজিজ ইউনিভার্সিটি থেকে ব্যাচেলর অব সাইন্স করা এই মহিলা একজন Cisco Career Certification এক্সপার্ট। বর্তমানে তিনি Saudi Aramco তে 'ইন্টারনেট সিকিউরিটি কন্সালটেন্ট' হিসাবে কর্মরত আছেন। সৌদি মহিলাদের গাড়ি চালানোর অধিকার আদায়ের ক্যাম্পেনের অংশ হিসাবে সম্প্রতি নিজেই একদিন হুট করে গাড়ি নিয়ে বের হয়ে পড়েন খোলা রাস্তায়। সাথের সংগী মহিলা করেন ভিডিও। ইউটিউব এবং ফেসবুকে ছেড়ে দেয়া হয় ভিডিওটি।



Click here for 'Manal Al Sharif driving in Saudi Arabia (with English subtitles)'



তিনি বলেনঃ



"This is a volunteer campaign to help the girls of this country "learn to drive". At least for times of emergency, God forbid. What if whoever is driving them gets a heart attack?"



যথারীতি মুতাওয়া পুলিশ (Religious police / Authority for the promotion of virtue and prevention of vice) মানাল আল-শরীফ কে গ্রেফতার করে। তবে গ্রেফতারের ৬ ঘন্টা পরেই তাকে ছেড়ে দেয়া হয়। কিন্তু পরদিন আবার তাকে গ্রেফতার করা হয়। এইবার অবশ্য ঠিকানা সোজা জেলখানা। নয় দিন জেল খাটার পর অবশেষে শর্তসাপেক্ষে জামিনে মুক্তি দেয়া হয়। শোনা যায় শর্তগুলোর মাঝে ছিল, গাড়ি না চালানো, মিডিয়ার সামনে মুখ না খোলা ইত্যাদি। ভাবছেন ঘটনার বুঝি এখানেই ইতি। মোটে ও না। এরই মাঝে সৌদি মুতাওয়াদের ঘুম হারাম করে একটি ফেসবুক গ্রুপ ক্যাম্পেন শুরু করে দিয়েছে নারীদের গাড়ি চালানোর অধিকার নিয়ে। গ্রুপটি ঠিক করে যে সতের ই জুন সৌদি মহিলারা খোলা রাস্তায় গাড়ী নিয়ে যেভাবে পারেন বের হবেন। র‍্যালী করবেন। ১৭ই জুন, সরকারের বিশেষ কড়াকড়ি নিরাপত্তা ব্যাবস্থার পরও ৫০ জনের মতো মহিলা সেদিন গাড়ি চালানোর বিশেষ সৌভাগ্য অর্জন করেন বলে জানা যায়। সবচেয়ে অবাক বা আনন্দের ব্যাপার হলো যে এদের প্রায় সবার সাথেই নিজ পরিবারের একজন করে পুরুষ সংগী ছিলেন। ইন্টারনেট ছেয়ে যায় মহিলাদের বিভিন্ন ড্রাইভিং করার ছবিতে। মানাল আল-শরীফ বিশেষ শর্তে জামিনে থাকার কারনে এই ঘটনায় অংশগ্রহন করতে পারেননি। যদি ও এই আন্দোলনের শুরু মূলত তাকে ঘিরেই। সৌদি নামক রাষ্ট্রের আকাশে এই মুহুর্তে দূর্যোগের কালো মেঘের ঘনঘটা, কবে যে ঝড় হয়ে সব ভাসিয়ে নিয়ে যায় তা নিয়ে সরকার কিছুটা চিন্তিতই এই মুহুর্তে। দিন সত্যিই বদলাচ্ছে।





Click here for 'A Historical Moment: The Saudi Women Challenging A Government By Driving'



------------------------------------------------------------------------------------------------------------------



camel





আজকের পর্ব শেষ করবো আরেক সৌদি মহিলার কথা লিখে।

রীম আল ফয়সাল। জেদ্দায় বসবাসকারী এই মহিলা পেশায় একজন ফটোগ্রাফার। সম্প্রতি মহিলাদের ড্রাইভিং নিয়ে বেশ বিদ্রুপাত্তক একটি আর্টিকেল লিখে আলোচিত হোন । তিনি বেশ মজার একটি উক্তি করেনঃ



“OK, we give up and allow the men to drive cars and allow us what was never denied our grandmothers – camels. Let every household own as many camels as they wish or can afford. Open up schools to teach women how to ride and house and maintain a camel.”




তিনি ঊট কে বাহন হিসাবে গাড়ি থেকে বেশী উত্তম দাবী করে নিম্নোক্ত যুক্তিগুলো দেনঃ



১) অতিশয় পরিবেশ বান্ধব - চালাতে গ্যাস বা তেল কোনটাই লাগেনা তাই পরিবেশ দূষিত হওয়ার সম্ভাবনা ও জিরো।

২) মেইনট্যানান্স খরচ গাড়ি পালা থেকে অনেক কম এবং বিদেশ থেকে আমদানী ও করতে হয়না।

৩) ইহার ল্যাদা প্রসেস করে সার হিসাবে ব্যাবহার করে ফসলের ফলন বাড়ানো যেতে পারে।

৪) ল্যাদা কে শীতের সময় উত্তাপ এর জন্যে জালানী হিসাবে ব্যাবহার করা যেতে পারে।

৫) প্রিথিবীর আর কোথাও এমন বাহন পাবেন যা আপনাকে চাহিবা মাত্র পুষ্টিকর খাবার দিতেও বাধ্য থাকিবে? - - 'ঊষ্ট্র দুধ'



Click here for 'Unlike cars, camels don't pollute'



আজকের মতো বেদূঈন সাম্রাজ্যে এক উদাসী পথিক এর এখানেই ইতি টানলাম।

আবার হাজির হবো হয়তো নতুন কোন সংবাদ নিয়ে।

ততোদিন ভালো থাকুন। সুস্থ থাকুন।

মা' সালামা।



ডিসক্লেইমারঃ

আমার এই লেখার উদ্দেশ্য সৌদি আরব বা এর জনগন কে ছোট করা নয়। ভালো বা খারাপ পৃথিবীর সব প্রান্তেই বিরাজমান। বিষয়বস্তু বেশিরভাগ সময়ই কিছু মজার এবং আনইউজুয়াল ঘটনা নিয়ে হবে। কেউ অফেনডেড বোধ করলে তা নিতান্তই অনিচ্ছাকৃত ।ধন্যবাদ।

মন্তব্য


ব্লগারের প্রোফাইল ছবি

মানালকে নিয়ে লেখার চিন্তা করেছিলাম, আলসেমি করে আর লেখা হয়নি। আপনি কাজটা করে দেওয়ায় ধন্যবাদ।



মুতোয়ার প্রসঙ্গে একটা কথা মনে পড়ে গেল, অপ্রাসঙ্গিক হলেও বলি। এই তথাকথিত কমিশন ফর দ্য প্রমোশন অভ ভারচু এন্ড প্রিভেনশন অভ ভাইসের সদস্যরা ধর্মীয় শিক্ষায় শিক্ষিত (আমাদের মাদ্রাসার মত) মোল্লা গোছের লোকজন। তা এদের একজন দেখা গেল সাত বিয়ে করে বসে আছে। তাকে ধরার পর সে জানায় ইসলামে যে চারের বেশি বিয়ে করা যায় না, তা নাকি সে জানত না। নবীজীর সুন্নত ঠিকই জানত।

__
দুই ধরন ধরণীর অধিবাসীর--
যাদের বুদ্ধি আছে, নাই ধর্ম,
আর যাদের ধর্ম আছে, অভাব বুদ্ধির।
--একাদশ শতকের অন্ধ আরব কবি আবুল 'আলা আল-মা'আররি।


ব্লগারের প্রোফাইল ছবি

@কাঠ মোল্লা,

সময় পেলে লিখে ফেলুন না মানাল কে নিয়ে আরো বিস্তৃত আকারে।





মুতোয়ার প্রসঙ্গে একটা কথা মনে পড়ে গেল, অপ্রাসঙ্গিক হলেও বলি। এই তথাকথিত কমিশন ফর দ্য প্রমোশন অভ ভারচু এন্ড প্রিভেনশন অভ ভাইসের সদস্যরা ধর্মীয় শিক্ষায় শিক্ষিত (আমাদের মাদ্রাসার মত) মোল্লা গোছের লোকজন।




একমত। এদের বেশীরভাগ ই এরকম তাতে তেমন সন্দেহ নাই। একবার গিয়েছিলাম ডিশ মার্কেট এ, সেলসম্যান রা যে সব কথা বলল এই ধর্ম উদ্ধারকারীদের নিয়ে, কি আর বলব। দেখি হয়তো লিখে ফেলবো কোন একদিন।

*************************************************************************************
আমি অতো তাড়াতাড়ি কোথাও যেতে চাই না;
আমার জীবন যা চায় সেখানে হেঁটে হেঁটে পৌঁছুবার সময় আছে,
পৌঁছে অনেকক্ষণ বসে অপেক্ষা করবার অবসর আছে।


ব্লগারের প্রোফাইল ছবি

আরবের কিছু লোকদের নিয়মিত জমজম কুপের পানিতে চুবিয়ে রাখা দরকার, আমি ব্যাক্তিগতভাবে ওদের কে মানুষই মনে করি না...।

________________________________________________________________________

একটা হাতিয়ার দাও
আমি সূর্য্যটাকে লুট করবো,
অতবড় ছায়াদানব, আজ প্রকাশ্যে
হাতিয়ার নেই আজ হাতের কাছে...........।


ব্লগারের প্রোফাইল ছবি

@তানিম হক,

পড়ার জন্যে ধন্যবাদ।

*************************************************************************************
আমি অতো তাড়াতাড়ি কোথাও যেতে চাই না;
আমার জীবন যা চায় সেখানে হেঁটে হেঁটে পৌঁছুবার সময় আছে,
পৌঁছে অনেকক্ষণ বসে অপেক্ষা করবার অবসর আছে।


ব্লগারের প্রোফাইল ছবি

(Y) (Y) (Y) (Y) (Y)

~-^
উদ্ভ্রান্ত বসে থাকি হাজারদুয়ারে!


ব্লগারের প্রোফাইল ছবি

@ㄱউদভ্রান্তㄴ,

ধন্যবাদ।

*************************************************************************************
আমি অতো তাড়াতাড়ি কোথাও যেতে চাই না;
আমার জীবন যা চায় সেখানে হেঁটে হেঁটে পৌঁছুবার সময় আছে,
পৌঁছে অনেকক্ষণ বসে অপেক্ষা করবার অবসর আছে।


ব্লগারের প্রোফাইল ছবি

শাস্তি হিসাবে প্রত্যেককে ৮০ টি দোররা মারা হয়


Shock Shock Shock

হালারা এখনো মধ্যযুগেই আছে।

______________________________________
'বিপ্লব স্পন্দিত বুকে মনে হয় আমিই মুজিব'


ব্লগারের প্রোফাইল ছবি

@পাভেল চৌধুরী,

সৌদি তে ১০০% শরীয়া আইন পালন করা হয়।

*************************************************************************************
আমি অতো তাড়াতাড়ি কোথাও যেতে চাই না;
আমার জীবন যা চায় সেখানে হেঁটে হেঁটে পৌঁছুবার সময় আছে,
পৌঁছে অনেকক্ষণ বসে অপেক্ষা করবার অবসর আছে।


ব্লগারের প্রোফাইল ছবি

@পাভেল চৌধুরী,





হালারা এখনো মধ্যযুগেই আছে।




দোররা মারা দেখে হালা বললেন, মধ্যযুগীয় বললেন, তো হাত কাটা দেখলে কী বলবেন?


ব্লগারের প্রোফাইল ছবি

@উদাসী পথিক,



সেই আইনের সমর্থনবৃন্দ আমাদের এই ব্লগেই আছেন।



অবশ্য নিঃসন্দেহে ওনারা চ্যালেনজ় দেবেন যে কোরানের কোথায় মহিলাদের গাড়ি চালানো নিষেধ তা দেখান এবং সাথে সাথে আপনি ইসলাম বিদ্বেষী খেতাব। যদিও শরিয়া আইনের তীর্থভূমিতে কিভাবে কিভাবে এসব অনৈসলামিক কান্ডকীর্তন হয় তা নিয়ে ওনারা ভাবিত হনব না।

------------------------------------------------
পৃথিবী আজ দুই ভাগে বিভক্ত। আস্তিক এবং নাস্তিক; আমি অবশ্যই আস্তিকের দলে। যে কম্পিউটরে ব্লগিং করছেন সেও কিন্তু হতে পারে এক ভয়াবহ ঘৃন্য নাস্তিক, আজই পরীক্ষা করে নিশ্চিত হয়ে নিন।


ব্লগারের প্রোফাইল ছবি

@আকাশ মালিক,

কিছুদিন আগে একটা বিচার দেখার সুযোগ হয়। তবে সরাসরি নয়। একজন যিনি সেখানে উপস্থিত ছিলেন ভিডিও করে নিয়ে আসেন। ৪ পাকিস্থানী হবে। কি তাদের দোষ তা সেই প্রত্যেক্ষদর্শী বলতে পারেননি। ঘটনাস্থল একটি জনবহুল চার রাস্তার মোড়। প্রতিটি মোড়ে যেখানে ট্রাফিক সিগনালের খাম্বা আছে দড়ি টানানো হয়। ৪ জন কে গলায় ফাস লাগিয়ে দাড় করিয়ে দেয়া হয় গাড়ির উপর তেলের খালি কন্টেইনার রেখে তার উপর। তারপর গাড়ি চালিয়ে দেয়া মাত্রই কন্টেইনার গুলো পড়ে যায় আর মানুষ গুলো ঝুলতে থাকে।

ধন্যবাদ।

*************************************************************************************
আমি অতো তাড়াতাড়ি কোথাও যেতে চাই না;
আমার জীবন যা চায় সেখানে হেঁটে হেঁটে পৌঁছুবার সময় আছে,
পৌঁছে অনেকক্ষণ বসে অপেক্ষা করবার অবসর আছে।


ব্লগারের প্রোফাইল ছবি

@আদিল মাহমুদ,

শরীয়া আইন টা ঠিক কি এইটাই এখনো বুঝে উঠতে পারিনি।

আমার জানামতে সৌদি সম্পুর্ন শরীয়া আইন মোতাবেক বিচার কার্য চালায়। সুতরাং এই দেশে প্রতিনিয়ত যেসব বিচার বা রায় বাস্তবায়ন হচ্ছে সেটাকেই কিন্তু আমাদের শরীয়া আইনের আদর্শ উদাহরন হিসাবে ধরে নিতে হবে। কিন্তু দেখা যায় এইসব উদাহরন টানা হলে অমুক বলা শুরু করে এইরকম কোরানে নেই, হাদীসে নেই। এরা সৌদিরা কি কম আরবী বুঝে?

ধন্যবাদ।

*************************************************************************************
আমি অতো তাড়াতাড়ি কোথাও যেতে চাই না;
আমার জীবন যা চায় সেখানে হেঁটে হেঁটে পৌঁছুবার সময় আছে,
পৌঁছে অনেকক্ষণ বসে অপেক্ষা করবার অবসর আছে।


ব্লগারের প্রোফাইল ছবি

@উদাসী পথিক,



এইসব প্রশ্নের জবাব শরিয়া ওয়ালাদের থেকে কোন জিন্দেগিতেও পাবেন না। ওনারা তখন চট করে আপনাকে টাইম মেশিনে করে ১৪০০ বছর আগে নিয়ে যাবেন।



এই যুগে কোনটা আদর্শ শরিয়া দেশ সেই প্রশ্নের জবাব আমি আজ পর্যন্ত সরাসরি পাইনি।



ওনাদের উর্বর মস্তিষ্কে এটা কোনদিনই প্রবেশ করবে না যে এই আমলে শরিয়া কায়েম করলে তালেবানী আর নয়ত আরব বা ইরানী ধারার কোন সমাজ পাওয়া যাবে।

------------------------------------------------
পৃথিবী আজ দুই ভাগে বিভক্ত। আস্তিক এবং নাস্তিক; আমি অবশ্যই আস্তিকের দলে। যে কম্পিউটরে ব্লগিং করছেন সেও কিন্তু হতে পারে এক ভয়াবহ ঘৃন্য নাস্তিক, আজই পরীক্ষা করে নিশ্চিত হয়ে নিন।


ব্লগারের প্রোফাইল ছবি

ঐদিনই মোটে আরেকজনকে উদাহরন হিসাবে উটের আর মোটর গাড়ির উদাহরন দিছিলাম প্রাচীনপন্থী আইনের সাথে বর্ৎমান কালের আইন কানুনের তূলনা হিসেবে।

------------------------------------------------
পৃথিবী আজ দুই ভাগে বিভক্ত। আস্তিক এবং নাস্তিক; আমি অবশ্যই আস্তিকের দলে। যে কম্পিউটরে ব্লগিং করছেন সেও কিন্তু হতে পারে এক ভয়াবহ ঘৃন্য নাস্তিক, আজই পরীক্ষা করে নিশ্চিত হয়ে নিন।


ব্লগারের প্রোফাইল ছবি

সৌদী মহিলাদের কাঁটা দিয়ে কাঁটা তোলার বুদ্ধির তারিফ করতেই হয়। গাড়ি চালানো আন্দোলনে ওনারা নিরূপায় হয়ে এই হুমকি দিয়েছিলেন।



Saudi women threaten to breastfeed drivers

------------------------------------------------
পৃথিবী আজ দুই ভাগে বিভক্ত। আস্তিক এবং নাস্তিক; আমি অবশ্যই আস্তিকের দলে। যে কম্পিউটরে ব্লগিং করছেন সেও কিন্তু হতে পারে এক ভয়াবহ ঘৃন্য নাস্তিক, আজই পরীক্ষা করে নিশ্চিত হয়ে নিন।


ব্লগারের প্রোফাইল ছবি

@আদিল মাহমুদ,







কাঁটা দিয়ে কাঁটা








ঠিকই বলেছেন। (Y)


ব্লগারের প্রোফাইল ছবি

@আদিল মাহমুদ,





"We either be allowed to drive or breastfeed foreigners"




খাইছে।

*************************************************************************************
আমি অতো তাড়াতাড়ি কোথাও যেতে চাই না;
আমার জীবন যা চায় সেখানে হেঁটে হেঁটে পৌঁছুবার সময় আছে,
পৌঁছে অনেকক্ষণ বসে অপেক্ষা করবার অবসর আছে।


ব্লগারের প্রোফাইল ছবি

শেয়ারের জন্য ধইন্যাপাতা।

----------------------------------------------------------------------------------------------------------------------
ন্যায় আর অন্যায়ের মাঝখানে নিরপেক্ষ অবস্থান মানে অন্যায়কে সমর্থন করা।


ব্লগারের প্রোফাইল ছবি

@বাউল,

পড়ার জন্যে ধন্যবাদ।

*************************************************************************************
আমি অতো তাড়াতাড়ি কোথাও যেতে চাই না;
আমার জীবন যা চায় সেখানে হেঁটে হেঁটে পৌঁছুবার সময় আছে,
পৌঁছে অনেকক্ষণ বসে অপেক্ষা করবার অবসর আছে।

glqxz9283 sfy39587p07