Skip to content

ফারমার-এর ব্লগ

ব্লগারের প্রোফাইল ছবি

ব্লগিং যখন কস্টকর

আমি বেশ কিছু সময় 'আমার ব্লগ' পড়তাম, কিন্তু এখানে পোস্ট প্রকাশ করতাম না; আমার এক মুক্তিযোদ্ধা বন্ধু এখানে লিখতেন(আজকাল লিখেন না), আমাকেও আসতে বলতেন, আমি আসলাম। সমাদরের অভাব ছিল না; কারণ আমার সে বন্ধুটি ব্লগের খুব শক্তিশালী গ্রুপের কাছে আমাকে পরিচয় করায়ে দিলেন আমার বিনা অনুমতিতে; অবশ্য আমরা এত ঘনিস্ট যে, অনুমতি নেয়ার কথা নিশ্চয় উনি ভাবেননি।

ব্লগারের প্রোফাইল ছবি

এরা সবাই অসত

আওয়ামী লীগ ও বিএনপি'র মাঝে সেক্রেটারী পর্যায়ে কিছু আলাপ হয়েছে নির্বাচনী সমস্যা সমাধানের জন্য; আওয়ামী লীগ স্বীকার করলেও, বিএনপি এই আলাপকে অস্বীকার করছে; আবার সংলাপে বসার আগে আওয়ামী লীগও এ ধরণের সংলাপের কথা জাতিকে জানায়নি; আপাতত সরকার কোন ভাবেই এগুলোতে যুক্ত আছে বলে মনে হচ্ছে না; মনে হচ্ছে, আওয়ামী লীগ ও বিএনপি যা করবে তাহাই হবে, এখানে সরকারের করার কিছু নেই। অর্থাৎ এদেশের মানুষের কোন হাত নেই এ ব্যাপারে!

ব্লগারের প্রোফাইল ছবি

মগজহীন ইডিয়ট

ভারতের এক প্রাক্তন প্রেসিডেন্ট: ড: আবুল কালাম, আসলে অনেক বড় সায়েন্টিস্ট এবং রাজনীতিবিদ; ভারত তাঁকে সর্বোচ্চ পদ দিয়েছিলেন দেশের; তিনি দেশ চালনার পর, আবারো ফিরে গেছেন সায়েন্সের জগতে; কিন্তু একটিভ রা

ব্লগারের প্রোফাইল ছবি

৫৫ হাজার বর্গ-মাইল পুড়িয়ে দেয়া

খালেদার দলের প্রতিবাদ সভায়, কাদের মোল্লার ফাঁসি কার্যকরী করলে, বা নিজামীর কোন শাস্তি হলে, ৫৫ হাজার বর্গ-মাইল পুড়িয়ে দেয়ার কথা ঘোষনা করেছে এক শিবির সভাপতি; এ ধরণের উক্তির পর, এ শিবিরকে আটকানো, ও এ

ব্লগারের প্রোফাইল ছবি

টাইমস, ইউরোপিয়ান পার্লামেন্ট

জিম্বাবোর মুগাবে, ঢাকার শেখ হাসিনা বা খালেদা বেগম ভোট করার সময় সারা বিশ্বে খবর হয়ে যায় যে, পৃথিবীতে ভোট হচ্ছে: আমারিকান ও ইউরোপিয়ানদের ঘুম হারাম হয়ে যায় ভয়ে, ভালুকের মত কাঁপে আর ঢাকার টিকিট কাটে; কিন

ব্লগারের প্রোফাইল ছবি

ব্লগিং এর সোনালী দিনগুলো

বাংগালীরা যখনই তাদের পুরানোদিনের গল্প করেন, তাঁদের চোখগুলো চিকচিক করে, গলা আদ্র হয়ে যায়: মনে হয়, তারা কোন এক যাদুকরী প্রেমিকার কথা বলছে, যে পুর্নিমার রাতে, দুরে কোন এক গ্রামে, পায়ে আলতা পরে, খোঁপায় ফুল গুঁজে, তালদীঘির শানবাঁধা ঘাটে পা ডুবিয়ে এখনো পথ চেয়ে আছে। যাক, ব্লগিং এর বেলায় কমপক্ষে তা সত্য নয়: হয়তো অনেকের অনেক কাহিনী আছে, তবে আমার চোখে তা পড়েনি।

ব্লগারের প্রোফাইল ছবি

ভেঁড়ার চামড়ায় কতক্ষণ?

খালেদা জিয়া ও তারেক প্রেসিডেন্ট ইয়াজুদ্দীনকে হুকুমের চাকরের মতো (বাড়ীর চাকরের মতো) ব্যবহার করেছিল: জিয়া মাজার জেয়ারত করাই ইয়াজুদ্দিনের মুল কাজ ছিল কয়েক বছর; তারপর উনাকে বানালো 'তত্বাবধায়ক প্রধান'; ২০০৭ সালে ভোট করে ফেলতে পারলে, ইয়াজুদ্দিনকে স্বাস্হ্যগত কারণে বাদ দিয়ে খালেদার প্রসিডেন্ট হওয়ার কথা ছিল; এভাবেই খালেদা জিয়ার নিজের প্রেসিডেন্টকে ব্যবহার করেছিল।

ব্লগারের প্রোফাইল ছবি

জাতি পরাজিত

তারেক 'মানি লন্ডারিং' এ খালাস পায়নি: সে ভয়ংকর অপরাধ করে বাংগালী জাতির বিরুদ্ধে জয়ী হয়েছে: আমার ধারণা স্বয়ং খালেদা ও বিএনপি'র সবার জন্য এটা ছিল বিস্ময়, তারা সবাই অপেক্ষা করছিল, কত বছর জেল হবে!

ব্লগারের প্রোফাইল ছবি

প্রেসিডেন্ট: নিরপেক্ষ পদে, দলীয় লোক

প্রেসিডেন্ট: দলীয় রাজনীতির উর্দ্ধে, নিরপেক্ষ পদ; কিন্তু আব্দুর রহমান বিশ্বাস, বদরুদ্দোজা, জমিরুদ্দীন সরকার, ইয়াজুদ্দিন, জিল্লুর রহমান ও আবদুল হামিদ দলীয় লোক; এরা চাইলে হয়তো কিছুটা নিরপেক্ষ হতে পারতো; কিন্তু খালেদা ও হাসিনার অধীনে নিযুক্তি পেয়ে কার বুকের পাটা ছিল যে, তারা নিজের ইচ্ছাকে দাম দিতে পারতো? মাথায় খালেদা বিরোধী উদ্দেশ্য নিয়ে, বদরুদ্দোজা একটু 'নিরপেক্ষ' ভাব দেখানোর পর, লাথি খেয়ে পোস্ট হারিয়ে 'বিকল্প' রাজনীতিবিদ হয়ে গেছেন; এখন আবার 'কল্প' হচ্ছেন; উনার ছেলে মাহীর শিষ্য তারেকের সুখবর আছে: বাবা-বেটা দু'জনেই নতুন স্যুট অর্ডার দিচ্ছে হয়তো।

ব্লগারের প্রোফাইল ছবি

আগাছার বাগান

বেগম রওশন এরশাদ জাতির কি কি কাজে লাগতে পারে বলে আপনি মনে করেন? গার্বেজ থেকে সার তৈরি হচ্ছে পুরাতন কাল থেকেই: নতুন আবিস্কার হচ্ছে: গার্বেজ থেকে টয়লেট পেপার!

Syndicate content
glqxz9283 sfy39587p07