Skip to content

আরব বিশ্বের বিক্ষোভ ও নাদানের ভাবনা

ব্লগারের প্রোফাইল ছবি

তিউনিশিয়ার হ্যামামেট, মাহদিয়া বা কারোয়ান যেখানেই যাবেন, প্রতিটি পর্যটন স্থান আপনি ঝকঝকে তকতকে পরিবেশ পাবেন। যদিও ২০০৯ এ এক সপ্তাহের তিউনিশিয়া ভ্রমন ট্যুরিষ্ট গাইডের তত্বাবধানে, তাদের পছন্দ মাফিক আবাসন, ভ্রমন স্থান আর খাবারের কারনে তিউনিশিয়ার প্রকৃত স্বাদ বুঝতে পারিনি সেভাবে। তবে তিউনিস থেকে কারওয়ান যেখানেই গেছি সবখানেই বেন আলীর বিরাট বিরাট সব ছবি দেখতে পেয়েছি এবং তার প্রতিটিই নায়কোচিত ঢং এ তোলা। পুরো দেশটাই যেনো তার ছবির গ্যালারী। উত্তর আফ্রিকান এই দেশটির প্রেসিডেন্ট সূদীর্ঘ ২৪ টি বছর ধরে তিউনিশিয়া শাসন করেছেন, হয়েছেন ব্যাপক বিত্ত বৈভবের মালিক। প্রেসিডেন্ট হওয়ার আগে তিনি মন্ত্রীসভার সদস্যও ছিলেন। অবশ্য সে দেশে গিয়ে কোনভাবেই বুঝতে পারিনি, এতো ক্ষোভ জমা রেখেছে সে দেশের জনগন। পাশ্চাত্য ও মিলিটারী শিক্ষায় শিক্ষিত এই শাসক ২৪ বছর ধরে শাসনভার দখলে রেখেছেন, এটা শুনেই ধারনা করেছিলাম ভেতরে কিন্তু আছে। অবশেষে রাজধানী তিউনিস এ ব্যাপক বিক্ষোভে তার আসন টলে যায়, পারিবার পরিজন ও ব্যাপক পরিমানে অর্থ সমেত তিনি পাড়ি জমান সৌদী আরবে। অথচ তিনি গত নির্বাচনে প্রায় ৯০ শতাংশ ভোট পেয়ে প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত হয়েছিলেন! সেই বেন আলী যুগের অবসান ঘটলো তিউনিশিয়ায়।



তিউনিশিয়ার রেশ কাটতে না কাটতেই আরেক বিস্ফোরন মিশরে, ১৯৮১ সাল থেকে ২০১১ দীর্ঘ এই ৩০ বছর মিশরের ক্ষমতার শীর্ষে থাকা আশিতিপর বুড়ো মোবারক সামনে নির্বাচনে নিজ ছেলেকে প্রেসিডেন্ট প্রার্থী করবেন, এমন ঘোষনার পরই কেঁপে ওঠে তার সিংহাসন। দীর্ঘ ১৮ দিন যাবত আন্দোলনের প্রানকেন্দ্র তাহরির স্কোয়ারে জনতার বিক্ষোভে সেই সিংহাসন ভেঙ্গে পড়ে, তবুও নির্লজ্জ মোবারক ক্ষমতায় টিকে থাকার জন্য নানা ফন্দি-ফিকির বহাল রাখেন। অবশেষে বিদায় নিতে হলো তাকেও। মিশরের সামরিক একাডেমী, বিমানবাহিনী একাডেমী এবং মস্কোর ফ্রুনযে জেনারেল স্টাফ একাডেমীতে সামরিক প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত এই সামরিক প্রেসিডেন্ট ১১ ফেব্রুয়ারী ২০১১ ক্ষমতা ছাড়তে বাধ্য হলেন। মিশরের মানুষ 'আপাত' মুক্তির স্বাদ পেলো।



বিক্ষোভ চলছে লিবিয়াতেও, ১৯৬৯ সাল থেকে অদ্যাবধী ক্ষমতায় আছেন গাদ্দাফী, রাজতন্ত্রের বিরুদ্ধে বিপ্লব ঘটিয়ে তিনি হয়েছিলেন লিবিয়ার সর্বময় ক্ষমতার অধিকারী ব্যাক্তি। লিবিয়ায় গত ৪১ বছরে প্রেসিডেন্ট বা প্রধানমন্ত্রীর পরিবর্তন ঘটলেও কখনো ঘটেনি সরকারের পরিবর্তন। লিবিয়ার সরকার মানেই গাদ্দাফী আর গাদ্দাফি মানেই সরকার। একক আধিপত্যে তিনি প্রতিষ্ঠা করেছেন পারিবারতন্ত্র। সামরিক এই ব্যাক্তিত্বও ক্ষমতা ছাড়তে এখন পর্যন্ত নারাজ। ক্ষমতায় টিকে থাকতে তিনি ব্যাপক হত্যাযজ্ঞ শুরু করেছেন। আন্দোলনকারীদের ব্যাপারে ভুল বার্তা আন্তর্জাতিক মহলে পৌছে দিতে তিনিই সম্ভবত বিদেশীদেরকেও হত্যা করছেন।



বিক্ষোভ আরো ছড়াবে, ওরা পারলে আমরাও পারবো এই মনোভাবে এগিয়ে আসবে আলজেরিয়া সহ আর অনেক আরব রাষ্ট্রের জনগন। হয়ত নতুন এক গনতান্ত্রিক বিশ্ব তৈরী হতে চলেছে আরব বিশ্বের ভিতরেই। ২০১১ এর এই বিপ্লব এখানেই থেমে থাকবে না, এই আশা করি। বর্তমানের এই বিপ্লবের পেছনে মূল চালিকা শক্তি অন্য সব কালের মতোই তরুন সমাজ, তবে মজার ব্যাপার হলো এই আন্দোলনে সামনে থেকে নেতৃ্ত্ব দেওয়ার মতোন কোন নেতা ছিলো না সেখানে। আন্দোলন সঙ্গঠনের জন্য দরকার পড়েনি কোন ছাত্র সংগঠনের, প্রয়োজন পড়েনি হরতালের এমনকি প্রয়োজন পড়েনি শাসকের বিরুদ্ধে একাট্টা হতে কোন বিরোধী বক্তৃতামালা, যা বক্তৃতা তা ছিলো কেবলই উজ্জীবনের জন্য, এক হয়ে যাওয়ার জন্য। ওখানের প্রতিটি মানূষ নিজেদের প্রয়োজনটা বুঝেই আন্দোলনে এসেছিলেন, আসছেন। সামাজিক যোগাযোগ সাইটের মতোন সাইট থেকে ২৪, ৩০, ৪১ বছর ধরে ক্ষমতা আঁকড়ে থাকা সামরিক জান্তাদের তারা টেনে নামাচ্ছেন। এটাই গনআন্দোলন, এটা এভাবেই হয়।



বাংলাদেশ প্রেক্ষাপটে উপরের তিনটি রাষ্ট্র, তাদের শাসন ব্যাবস্থা জনগনের আর্থসামাজিক অবস্থার সাথে তুলনা চলে না। প্রতিটি রাষ্ট্র সামরিক ব্যাক্তিত্বের দীর্ঘ শাসনে শোষিত, শাসন ব্যাবস্থা সেই শাসকের মর্জি মতো চলেছে আর আর্থসামাজিক অবস্থাতেও প্রচুর ভিন্নতা রয়েছে। আর তিউনিশিয়া, মিশর বা লিবিয়া যেটা আজকে করছে, সেটাতো আমরা বাঙ্গালীরা আজ থেকে ২০ বছর আগে করে বসে আছি! এই দিক থেকে আমরা ২০টি বছর এগিয়ে আছি। ৯০ এর যে আন্দোলন ছিলো সেই আন্দোলনের সাথে আওয়ামীলীগ-বিএনপি বা কোন "রাজনৈতিক" ছাত্র সংগঠন জড়িত না থাকলেও সেই আন্দোলন হতো, হয়ত সেই ৯০ তে হতো না, আজকে নিশ্চয়ই হতো। 'শহীদ' জিয়া বেঁচে থাকলে কিংবা 'গাজী' এরশাদ এখনো ক্ষমতায় থাকলে আমরা আজকে তিউনিশিয়ার, মিশরের কিংবা লিবিয়ার আন্দোলন থেকে উজ্জিবিত হতাম নিশ্চয়ই।



তিউনিশিয়ায়, মিশরে যে আন্দোলন তার পেছনে অন্য কাউকে ক্ষমতায় আনার লক্ষ্য ছিলোনা। বাংলাদেশে তিউনিশিয়ার কিংবা মিশরের ঝড় দেখার আশায় যারা বসে আছেন, তাদের বলি, বাংলাদেশে অমন ঝড় এলে বড়জোর ক্ষমতার পালাবদল হবে। আর বাংলাদেশে ক্ষমতার পালাবদলের জন্য নির্বাচন নামক সুন্দর একটি ব্যাবস্থ্যা বিদ্যমান, যা এখন কার্যকরও বটে। আমাদের শিশু গনতন্ত্র আজ ২০ বছরের তরুনে পরিনত হয়েছে, এখানে কোন স্বৈরশাসক নেই। এখানে ঝড় তুলে বা ঝড়ের হুমকী দিয়ে লাভ নেই, তবে স্বপ্ন দেখতে দোষ নেই।


মন্তব্য


ব্লগারের প্রোফাইল ছবি

দারুন বলেছেন বাউল্বাই (Y)

______________________________________________________________________
স্বাক্ষরঃ দিশাহারা লালে লাল।


ব্লগারের প্রোফাইল ছবি

@শারফুদ্দীন, শারফু, কিরাম আছু বাই?

----------------------------------------------------------------------------------------------------------------------
ন্যায় আর অন্যায়ের মাঝখানে নিরপেক্ষ অবস্থান মানে অন্যায়কে সমর্থন করা।


ব্লগারের প্রোফাইল ছবি

@বাউলবাই,



কিরাম আর থাকবাম।



গত কাইল থাইকা সৌদি টেলিকমের ওয়েবসাইটে ঝুলতেছে "দ্যা জয়ফুল রিটার্ণ অব দ্যা কিং" অসুস্থ হয়ে বেশ কয়েক মাস তিনি আম্রিকাতে চিকিৎসাধীন থাকার পর গত কাইল দেশে ফিরছেন। সেই খুশিতে গত কাইল থাইকা সৌদি টেলিকমের আল জাওয়াল টু আল জাওয়াল অপারেটরে এস এম এস, এম এম এস, ভিডিও কল দুই দিনেরল্যাই একদম ফ্রী। তিনি গত কাইল দেশে ফিরা তার নাগরিকদের বেতন ভাতা সহ অন্যান্য সকল নাগরিক সুবিধা অনেক বেশি বৃদ্ধি করার ঘোষণা দিছেন। উনার আগমনের খুশিতে আগামী শনিবার সকল সরকারী, আধাসরকারী, কিছু কিছু বেসরকারি প্রতিষ্ঠান বন্ধ ঘোষনা করা হৈছে। খুশির ঠেলায় আমগো অফিসে একটা সৌদির পয়দাস ও আসেনাই। শুনছি তিনি নাকি বেকারদের জন্য সর্বকালের সহজ শর্তে বিশেষ ব্যাংক লোনের ব্যাবস্থা করছেন যার বেশ কিছু অংশ রাজভান্ডার থেকে পরিশোধ করা হবে আর কিছু অংশ ঋণগ্রহীতা নাম মাত্র মুনাফায় ব্যাংকে পরিশোধ করবে।



এখন চিন্তাইতেছি, কিং এর কি ডর করতেছে প্রতিবেশী দেশের কন্ডিশন দেইখা, নাকি আরব্যদের আরো কয়েকশ বছর চুপ করায়া রাখনের ফন্দি !

______________________________________________________________________
স্বাক্ষরঃ দিশাহারা লালে লাল।


ব্লগারের প্রোফাইল ছবি

@শারফুদ্দীন,ভুতের গলিতে মুক্তর ঝলকানি smile :) :-)

____________________
ঘর ছেড়ে ধন খুঁজিস কেন বনে বনে?


ব্লগারের প্রোফাইল ছবি

@শারফুদ্দীন, দুরু! এইটা বুঝতে এত্তো ভাবা লাগে নাকি! গলা ফাটায়া তুমিও চিক্কুর পারো, "দ্যা জয়ফুল রিটার্ণ অব দ্যা কিং" !

----------------------------------------------------------------------------------------------------------------------
ন্যায় আর অন্যায়ের মাঝখানে নিরপেক্ষ অবস্থান মানে অন্যায়কে সমর্থন করা।


ব্লগারের প্রোফাইল ছবি

যারা মরূ ঝরের দিবা স্বপ্ন দেখছে, তাদের তো চিনতেই পারছেন।



গতকাল টিভিতে খবরে দেখলাম কোন কোন জায়গায় সরকার বিরোধী লিফ্লেট সহ হিজবুত তাহরীর আর হিজবুত তাওহীদ এর সদস্য গ্রেফতার।

~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~
নাস্তিকদের দাঁত ভেঙ্গে দেয়া হোক, যেন তারা ঈদের সেমাই না খেতে পারে। ( রাইট টু কপিঃ ডঃ আইজুদ্দিন)


ব্লগারের প্রোফাইল ছবি

@যুদ্ধদেব, হা হা হা! চিনছি তো! মওদুদ সা'ব বাংলাদেশে মিসরের মতোন বিক্ষোভের আশংকা ব্যক্ত করিয়াছিলেন।

----------------------------------------------------------------------------------------------------------------------
ন্যায় আর অন্যায়ের মাঝখানে নিরপেক্ষ অবস্থান মানে অন্যায়কে সমর্থন করা।


ব্লগারের প্রোফাইল ছবি

@বাউল, উনারা আশা... থুক্কু আশংকা ব্যক্ত করলেও জনগনের সেই দিকে কোন পাত্তা নাই। Tongue

~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~
নাস্তিকদের দাঁত ভেঙ্গে দেয়া হোক, যেন তারা ঈদের সেমাই না খেতে পারে। ( রাইট টু কপিঃ ডঃ আইজুদ্দিন)


ব্লগারের প্রোফাইল ছবি

টেকনিক পছন্দ হয়েছে।

(F) (F) (F)

____________________
ঘর ছেড়ে ধন খুঁজিস কেন বনে বনে?


ব্লগারের প্রোফাইল ছবি

@জাগো, থ্যাঙ্ক্যু! (F)

----------------------------------------------------------------------------------------------------------------------
ন্যায় আর অন্যায়ের মাঝখানে নিরপেক্ষ অবস্থান মানে অন্যায়কে সমর্থন করা।


ব্লগারের প্রোফাইল ছবি

আমাদের দেশে কাদের বিরুদ্ধে বিদ্রোহ ঘটবে?

কোন স্বৈর শাসক নেই।

আর কারা আন্দোলন করবে??

এখন আর কমিউনিজমের হাওয়া নেই। গনতন্ত্রও নেই।

তবে সরকারের নানা ব্যর্থতায় ইসলামী দলগুলো কাঁঠাল ভাংতে চাচ্ছে বলেই মনে হয়। আর এর সুফল খেতে চায় বিএনপি। কিন্তু তারা কি পারবে?? আমার মনে হয় আগামী ৩ বছরে সেরকম কোন সম্ভাবনা নেই।

-------------------------------------------
আমি কেউ না!


ব্লগারের প্রোফাইল ছবি

গনতন্ত্রও নেই >> গণতন্ত্র খোঁড়াভাবে হলেও চলছে

-------------------------------------------
আমি কেউ না!


ব্লগারের প্রোফাইল ছবি

@নামহীন মানুষ, "গনতন্ত্র নেই" এই কথাটা বুঝায়া বলেন।

----------------------------------------------------------------------------------------------------------------------
ন্যায় আর অন্যায়ের মাঝখানে নিরপেক্ষ অবস্থান মানে অন্যায়কে সমর্থন করা।


ব্লগারের প্রোফাইল ছবি

@বাউল, ভুল লিখেছি। তাইতো সংশোধন দিলামঃ





গনতন্ত্রও নেই >> গণতন্ত্র খোঁড়াভাবে হলেও চলছে

-------------------------------------------
আমি কেউ না!


ব্লগারের প্রোফাইল ছবি

@নামহীন মানুষ, ওকে!

----------------------------------------------------------------------------------------------------------------------
ন্যায় আর অন্যায়ের মাঝখানে নিরপেক্ষ অবস্থান মানে অন্যায়কে সমর্থন করা।


ব্লগারের প্রোফাইল ছবি

সুন্দর ভাবে গুছিয়ে বলার জন্য ধন্যবাদ ।

স্বৈর শাসক এবং নির্বাচিত সরকারের মধ্যে

যে পার্থক্য আছে , এই সহজ কথাটা

আমরা অনেকেই না বোঝার ভান করতেছি ।

ভাল থাকুন ।


ব্লগারের প্রোফাইল ছবি

@ভুমিহীন জমিদার, আপনাকেও অনেক ধন্যবাদ।

----------------------------------------------------------------------------------------------------------------------
ন্যায় আর অন্যায়ের মাঝখানে নিরপেক্ষ অবস্থান মানে অন্যায়কে সমর্থন করা।


ব্লগারের প্রোফাইল ছবি

লেখা দারুন ভালো লেগেছে। বিশ্লেষনও চমতকার, বাস্তবধর্মী। (Y) (Y) (Y) (Y)


ব্লগারের প্রোফাইল ছবি

@সায়মন, আপনাকে অনেক ধন্যবাদ! (F)

----------------------------------------------------------------------------------------------------------------------
ন্যায় আর অন্যায়ের মাঝখানে নিরপেক্ষ অবস্থান মানে অন্যায়কে সমর্থন করা।


ব্লগারের প্রোফাইল ছবি

এটা কি সামাজিক নেটওয়ার্কের কারনে হয়েছে বা হচ্ছে ? বাউল ভাইডির কি মনে হয় :-w


ব্লগারের প্রোফাইল ছবি

@আম জনতা, সামাজিক নেটওয়ার্কের কারনে হচ্ছে কিনা মোটা দাগে সেইটা বলা যায় কি? মনে করেন মাইকে আপনি লোক জড়ো করলেন যে কোন কারনে, সেটাকে কি মাইকের কারনে জড়ো হয়েছে বলা যাবে? এটা বলা যায় যে লোক জরো করতে মাইকটিকে আপনি ব্যাবহার করেছেন। সামাজিক নেটওয়ার্ক সেই রকম ভাবে জনগনের ভিউজ শেয়ার, জমায়েতের স্থান, তারিখ এগুলি ঠিক করতে প্রাথমিকভাবে ব্যাবহার করা হয়েছিলো। তবে সামাজিক নেটওয়ার্কের ভূমিকা শক্তিশালী ছিলো এব্যাপারে কোন সন্দেহ নাই। আজকে আমরা যদি ঘুষখোরদের ধরতে সামাজিক সাইটে প্রচারনা চালাই, বিভিন্ন দপ্তরে যদি তাদের প্রমান সহ ধরার জন্য ফাদ তৈরী করি তাহলে সেটা সম্ভব। এটা বলা যাবে না যে সামাজিক নেটওয়ার্কের কারনে সেটা হয়েছে, তবে নেটয়ার্কের ভূমিকা আছে এটা বলা যাবে।

অটঃ আপনাকে বহুদিন বাদে দেখলাম মনে হয়।

----------------------------------------------------------------------------------------------------------------------
ন্যায় আর অন্যায়ের মাঝখানে নিরপেক্ষ অবস্থান মানে অন্যায়কে সমর্থন করা।


ব্লগারের প্রোফাইল ছবি

@আম জনতা, সামাজিক নেটওয়ার্ক বলতে যদি ইন্টারনেট ভিত্তিক বুঝানে, তাহলে না বলতে হবে, কারন এইসব সাইট গুলো একটা ভুমিকা পালন করেছে, কিন্তু অপরিহার্য্য নয়। এরশাদ পতনের সময় গন আন্দোলনে মানুষের কাছে মোবাইল, ইন্টারনেট কিছুই ছিলোনা। কিন্তু এরপরেঅ মানুষ ঠিকই পেরেছে। এখানে মানুষের ভূমিকাটাই প্রধান। খবর মানুষ ই আরেক মানুষের কাছে পোঁছে দিয়েছে সশরীরে। অনেক সময় মুখে বলার দরকার পড়েনি। একজন আরেকজন কে দেখেই যা বুঝার বুঝে নিয়েছে।

~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~
নাস্তিকদের দাঁত ভেঙ্গে দেয়া হোক, যেন তারা ঈদের সেমাই না খেতে পারে। ( রাইট টু কপিঃ ডঃ আইজুদ্দিন)


ব্লগারের প্রোফাইল ছবি

@যুদ্ধদেব, (Y)

----------------------------------------------------------------------------------------------------------------------
ন্যায় আর অন্যায়ের মাঝখানে নিরপেক্ষ অবস্থান মানে অন্যায়কে সমর্থন করা।


ব্লগারের প্রোফাইল ছবি

গুরু সহজ চমৎকার করে বলেছেন.......

---------------------------------------------------------------------------------
'মুক্তিযোদ্ধা সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ঠ সন্তান, দেশ ও জনগণের অতন্দ্রপ্রহরী ১৯৭১ সালের বীর মুক্তিযোদ্ধা মো. মোসলেম উদ্দিন...।'


ব্লগারের প্রোফাইল ছবি

@টোনাটুনির সংসার, থ্যাঙ্ক্যু বস।

----------------------------------------------------------------------------------------------------------------------
ন্যায় আর অন্যায়ের মাঝখানে নিরপেক্ষ অবস্থান মানে অন্যায়কে সমর্থন করা।


ব্লগারের প্রোফাইল ছবি

বেশ কয়েকজনের এ সংক্রান্ত একাধিক আশাময় পোস্ট দেখে আমিও বাধ্য হয়েছি তাদের সেই আশার গুড়ে এমন করে বালি দিতে । তবে দেশ পরিচালনায় পদ্ধতিগত সংস্কার না করলে ঐসব দেশের ১ নায়কতন্ত্রের চেয়ে খুব বেশি উন্নত কোন ব্যাবস্থায় আমরাও যেতে পারবোনা ।


ব্লগারের প্রোফাইল ছবি

@গনতান্ত্রিক ব্লগার, হুম, কাইল এরকম একজনরে কত্ত ডাকাডাকি করলাম পোষ্ট দিয়া রা করলো নাহ!

----------------------------------------------------------------------------------------------------------------------
ন্যায় আর অন্যায়ের মাঝখানে নিরপেক্ষ অবস্থান মানে অন্যায়কে সমর্থন করা।


ব্লগারের প্রোফাইল ছবি

বস,দারুন গুছানো কথা। এইপোস্ট যদি ব্রেসিয়ার মওদুদের গুয়ার মধ্যে রোল কইরা ঢুকানো গেলে খুব ভালো লাগতো Laughing out loud

___________
জয় বাংলা,জয় বঙ্গবন্ধু


ব্লগারের প্রোফাইল ছবি

@বেলের কাঁটা• •, হা হা হা!

----------------------------------------------------------------------------------------------------------------------
ন্যায় আর অন্যায়ের মাঝখানে নিরপেক্ষ অবস্থান মানে অন্যায়কে সমর্থন করা।


ব্লগারের প্রোফাইল ছবি

(Y)

‌‌‌‌‌‌‌‌‌‌‌‌‌‌‌‌‌‌‌‌‍‍‍‍‍‍‍‍‍‌‌‌‌‌‌‌‌‌‌‌‌~~~~~~~~~~~~~~~~~~~
সর্বোচ্চ নয় সর্বনিম্ন শাস্তি ফাঁসি চাই..............
We hate Pakistan,Pakistani & their supporters.
https://www.facebook.com/groups/wehatepakistan/


ব্লগারের প্রোফাইল ছবি

@৬ টি তার, (F)

----------------------------------------------------------------------------------------------------------------------
ন্যায় আর অন্যায়ের মাঝখানে নিরপেক্ষ অবস্থান মানে অন্যায়কে সমর্থন করা।


ব্লগারের প্রোফাইল ছবি

বাংলাদেশ প্রেক্ষাপটে উপরের তিনটি রাষ্ট্র, তাদের শাসন ব্যাবস্থা জনগনের আর্থসামাজিক অবস্থার সাথে তুলনা চলে না। প্রতিটি রাষ্ট্র সামরিক ব্যাক্তিত্বের দীর্ঘ শাসনে শোষিত, শাসন ব্যাবস্থা সেই শাসকের মর্জি মতো চলেছে আর আর্থসামাজিক অবস্থাতেও প্রচুর ভিন্নতা রয়েছে। আর তিউনিশিয়া, মিশর বা লিবিয়া যেটা আজকে করছে, সেটাতো আমরা বাঙ্গালীরা আজ থেকে ২০ বছর আগে করে বসে আছি! এই দিক থেকে আমরা ২০টি বছর এগিয়ে আছি। ৯০ এর যে আন্দোলন ছিলো সেই আন্দোলনের সাথে আওয়ামীলীগ-বিএনপি বা কোন "রাজনৈতিক" ছাত্র সংগঠন জড়িত না থাকলেও সেই আন্দোলন হতো, হয়ত সেই ৯০ তে হতো না, আজকে নিশ্চয়ই হতো। 'শহীদ' জিয়া বেঁচে থাকলে কিংবা 'গাজী' এরশাদ এখনো ক্ষমতায় থাকলে আমরা আজকে তিউনিশিয়ার, মিশরের কিংবা লিবিয়ার আন্দোলন থেকে উজ্জিবিত হতাম নিশ্চয়ই।





এটা অনেকের মাথা থেকে বের হয়ে গেছে বলেই অনেক আজগুবি স্বপ্ন দেখে।

চমতকার গোছানো পোস্ট (Y) (Y) (Y)

শিশিরে শিশিরে করি সমুদ্র সৃষ্টি...


ব্লগারের প্রোফাইল ছবি

@বন্দনা, আপনাকে অনেক ধন্যবাদ। + (F)

----------------------------------------------------------------------------------------------------------------------
ন্যায় আর অন্যায়ের মাঝখানে নিরপেক্ষ অবস্থান মানে অন্যায়কে সমর্থন করা।


ব্লগারের প্রোফাইল ছবি

আরব বিশ্বের সাথে আসলেই আমাদের কোন তুলনাই চলে না। তাদের জনগন আমাদের চেয়ে বহু বহু গুনে ভাল আছে। তারপরো তারা আরো স্বাধীনতা ও আরো ভাল থাকার অভিপ্রায়ে লুটেরা শাশকগোষ্ঠীর বিরুদ্ধে আন্দোলনে নেমেছে।আমাদের এরশাদ,খালেদা, হাসিনার অপরাধের তুওলায় গাদ্দাফি, মোবারকের দল শিশু ।তেলের খনি থেকে তারা কিছু লুট করে সুইস ব্যাংকে পাচার করেছে।আর এরশাদ,খালেদা, হাসিনা সরাসরি জনগনের টাকা লূট করে বছরের পর বছর আমেরিকা, লন্ডন আর সুইসে পাচার করছে।দুর্ভাগ্য যে আমাদের ৯০% দরিদ্র জনগোষ্ঠীকে জোড়পুর্বক অশিক্ষিত ও অজ্ঞ বানিয়ে রাখা হয়েছে এই সত্যকে উপলব্ধি না করার অভিপ্রায়ে।



তবে তারপরো এদেশের সচেতন জনগন আশাবাদি।মধ্যপ্রাচ্যের গৃহযুদ্ধের প্রয়োজন আমাদের নেই।১/১১ নামক এক অসমাপ্ত ঝড়ের পুনরায় আগমন হবেই হবে, সকল লুটেরাদের মুখোশ খুলতে।



জানি এখন একঝাক গালিবাজ উদয় হবে গালির বহর নিয়ে।গালির জোর যত বেশি, মনে করব তত ধারালো হয়েছে আমার কমেন্ট।

ধন্যবাদ।


ব্লগারের প্রোফাইল ছবি

@সমুদ্রতীর, কই, এখনও পর্যন্ত আপনাকে কেউ গালি দিলো নাতো! যাইহোক আপনি ধারালো কমেন্ট দিতে থাকেন, আশা করি নিরাশ হবেন না।

----------------------------------------------------------------------------------------------------------------------
ন্যায় আর অন্যায়ের মাঝখানে নিরপেক্ষ অবস্থান মানে অন্যায়কে সমর্থন করা।


ব্লগারের প্রোফাইল ছবি

@সমুদ্রতীর, ১/১১ এর সরকারতো দুই বছর ছিলো, আসলে বাংলাদেশের সমস্যার সমাধানের উপায় কি ঐ ধরনের অনির্বাচিত সরকার? আর আপনি এক পোষ্টের কমেন্টে শাসনতন্ত্র বদলাবার কথা বলেছেন দেখলাম, বর্ত্মান শাসনতন্ত্র থেকে কোন শাসনতন্ত্রে উত্তরন ঘতলে বাংলাদশের অবস্থার উন্নয়ন ঘটবে বলে আপনি মনে করেন?

----------------------------------------------------------------------------------------------------------------------
ন্যায় আর অন্যায়ের মাঝখানে নিরপেক্ষ অবস্থান মানে অন্যায়কে সমর্থন করা।


ব্লগারের প্রোফাইল ছবি

@সমুদ্রতীর, তেলের খনি কি লিবিয়ার জনগনের নাকি গাদ্দাফীর বাপের সম্পত্তি?

~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~
নাস্তিকদের দাঁত ভেঙ্গে দেয়া হোক, যেন তারা ঈদের সেমাই না খেতে পারে। ( রাইট টু কপিঃ ডঃ আইজুদ্দিন)


ব্লগারের প্রোফাইল ছবি

গোছানো পোষ্ট। আসলে বর্তমান বিরোধী দলে যারা আছেন তারা ২০০১ - ২০০৬ পর্যন্ত তেল ঘি খেয়ে শরীরে এত চর্বি জমিয়েছেন যে এখন আর ঢাকা শহরের (বা অন্য যেকোন শহরে) গরমে কষ্ট করে আন্দোলন করতে পারেন না। পরিস্থিতি এমন পর্যায়ে গেছে যে কিছুদিন আগে সাদেক হোসেন খোকার মত এককালের হাইপারএকটিভ নেতাও এক মিছিলের পরে গিয়ে হাসপাতালে ভর্তি হয়েছিলেন কিছুদিন আগে। অন্যদের কথা নাই বললাম। তাই তারা ও তাদের সমর্থকরা মনে মনে আশা করেন, কেউ এসে যদি একটু আন্দোলনটা করে দিয়ে যায় আর তারা যদি সেটার সুফল ভোগ করতে পারেন...



এইজন্যই তারা নিজেদের সাংগঠনিক দক্ষতা না বাড়িয়েই আশা করেন আরব বিশ্বে হতে পারলে এখানে পারবে না কেন? Wink


ব্লগারের প্রোফাইল ছবি

@যাত্রী,



কেউ এসে যদি একটু আন্দোলনটা করে দিয়ে যায় আর তারা যদি সেটার সুফল ভোগ করতে পারেন...




আসল কথাটা বলেছেন বস।

----------------------------------------------------------------------------------------------------------------------
ন্যায় আর অন্যায়ের মাঝখানে নিরপেক্ষ অবস্থান মানে অন্যায়কে সমর্থন করা।


ব্লগারের প্রোফাইল ছবি

(Y) (Y) (Y) (Y) (Y) (Y)



আমরা কি আর কচি খোকা ?

ফেলতে যাবো দাতের পোকা?

;;) ;;) ;;)

~-^
উদ্ভ্রান্ত বসে থাকি হাজারদুয়ারে!


ব্লগারের প্রোফাইল ছবি

@ㅕউদভ্রান্তㅑ, ক্যামনে কি?

----------------------------------------------------------------------------------------------------------------------
ন্যায় আর অন্যায়ের মাঝখানে নিরপেক্ষ অবস্থান মানে অন্যায়কে সমর্থন করা।


ব্লগারের প্রোফাইল ছবি

ম'দুদের বিদেশী বোতলগুলা সিজ করার ফলে কি ম'দুদ কেরু খাইয়া উতাপাল্টা বকা শুরু করছে?



পোস্টে (Y)

.
~ ‎"বিদ্যা স্তব্ধস্য নিস্ফলা" ~


ব্লগারের প্রোফাইল ছবি

@হোরাস্, আরে নাহ উস্তাদ, এইটা কেরু খাওয়া বকবকানি না, এইটা একটা স্বপ্ন অনেকটা দিবা স্বপ্নের মতোন।



কেউ এসে যদি একটু আন্দোলনটা করে দিয়ে যায় আর তারা যদি সেটার সুফল ভোগ করতে পারেন...


এই হচ্ছে উনার মনের কথা, যা যাত্রী বলেছেন। ১/১১ আমাদের দেশে বিপ্লব হয়ে এসেছিলো তাতে কীইবা এমন পরিবর্তন এসেছে। সেই হরতাল, জ্বালাও-পোড়াও, সংসদ বর্জন এগুলিতো বহাল তবিয়তেই আছে।

----------------------------------------------------------------------------------------------------------------------
ন্যায় আর অন্যায়ের মাঝখানে নিরপেক্ষ অবস্থান মানে অন্যায়কে সমর্থন করা।


ব্লগারের প্রোফাইল ছবি

বাংলাদেশে তিউনিশিয়ার কিংবা মিশরের ঝড় দেখার আশায় যারা বসে আছেন, তাদের বলি, বাংলাদেশে অমন ঝড় এলে বড়জোর ক্ষমতার পালাবদল হবে। আর বাংলাদেশে ক্ষমতার পালাবদলের জন্য নির্বাচন নামক সুন্দর একটি ব্যাবস্থ্যা বিদ্যমান, যা এখন কার্যকরও বটে।
(Y) (Y) (Y)

---------------------------------
লাইগ্যা থাকিস, ছাড়িস না!


ব্লগারের প্রোফাইল ছবি

আমাদের শিশু গনতন্ত্র আজ ২০ বছরের তরুনে পরিনত হয়েছে, এখানে কোন স্বৈরশাসক নেই। এখানে ঝড় তুলে বা ঝড়ের হুমকী দিয়ে লাভ নেই, তবে স্বপ্ন দেখতে দোষ নেই।




:-/ :-/ :-/ :-/ :-/



১) আমরা কি আদৌ পরিবার তন্ত্র থেকে বেরুতে পেরেছি?

২) দলের প্রধানদের সাথে এক নায়কদের পার্থক্য কোথায়?

৩) আইচ্ছা বঙ্গীয় রাজনীতিকে যৌথ স্বৈরাচারী রাজনীতি বললে ভুল হবে? [যেখানে ৫ বছর পর পর একজন ডিক্টেটর নির্বাচিত হন]



লেখার অন্তর্নিহিত কথাটা খুব ভালো লেগেছে (Y)


ব্লগারের প্রোফাইল ছবি

আমরা ফাঁইস্যা গেছি মাইনকার চিপায়। তাই পরিবারতন্ত্র বেড় হওয়ার চেষ্টা করি না। পরিবার তন্ত্রের থেকে চেড় হতে পারলে সামনের দিকে আগানো কষ্ট সাধ্য হতো না।


~***********************~

যার সাথে সংসার করা সম্ভব নয় তার সাথে পিরিতের কথা বলার প্রয়োজন আছে বলে মনে করি না।

glqxz9283 sfy39587p07