Skip to content

কে তাদের অনুমতি দিল ?

ব্লগারের প্রোফাইল ছবি

বৃহস্পতিবার সকালে ‘‘এটা বাংলাদেশ নাকি পাকিস্তান ?” এই পোষ্টটি আমার ব্লগে পোষ্ট করে মাঠের দিকে রওনা হলাম, বন্ধুদের সাথে আড্ডা দেওয়ার জন্য । কিন্তু দেখি বন্ধুরা বাংলাদেশের কয়েকজন কুলাঙ্গারের কথা নিয়ে সরব । বাংলাদেশের সন্তান হয়ে কিভাবে মুখমণ্ডলে পাকিস্তানের পতাকার ট্যাটু লাগিয়ে পাকিস্তান দলকে সাপোর্ট এবং সেই সাথে দিব্যি ঘুরে বেরিয়েছে এ কোণা থেকে ও কোণা পর্যন্ত ।

অবশ্যই মনে রাখা উচিত ঐসব পাকিস্তানের জারজ সন্তানরা আমাদের কখনই বন্ধু হতে পারে না । তারা আমাদের রক্ত দিয়ে হোলী খেলা খেলেছে । আজ যারা পাকিস্তান দলকে সাপোর্ট করে তাদের অবশ্য মনে রাখা উচিত ঐই পাকিস্তানের কুত্তাগুলো ৪০ বছর আগে আমাদের ত্রিশ লক্ষ লোক হত্যা করেছে এবং সেই সাথে দুই লক্ষাধিক মা-বোনকে নির্যাতিত করেছে , রক্ত নিয়ে উল্লাস করেছে । আমাদের বাঙালীদের মৃত দেহ শুকুনদের মুখে তুলে দিয়েছিল যেসব বেজন্মা, আমরা কখনই তাদের ক্ষমা করে দিতে পারি না ।

আওয়ামীলীগের রাজনৈতিক খেলা অনেক দেখলাম । ভালই দাবার চাল দিতে পারে । একটু লক্ষ্য করে দেখুন ভারতের প্রধানমন্ত্রী ড: মনমোহন সিং যখন এদেশে আসলেন তখন দেখা গেল বিশ্ব খ্যাত দল মেসির আর্জেন্টাইনদের নিয়ে আসল খেলার জন্য । ভারতের সাথে টেবিলের তলে যে চুক্তিগুলো হয়েছিল তা না দেখার জন্য এবং বিরোধীদলীয় নেত্রী বেগম খালেদা জিয়া যেন রাজনীতির মাঠ উত্তপ্ত করতে না পারে সেজন্যই এই বিরাট আয়োজন ।

তাহলে কি আমরা বুঝে নিব, আওয়ামীলীগ সরকার, পাকিস্তানের সাথে এই খেলার আড়ালে বিজয়ের মাসে আমাদের যুদ্ধাপরাধ বিষয়ে উপহার হিসেবে কোন বার্তা দিবেন ? আবার মুদ্রার ওপিঠে লক্ষ্য করলে বিজয়ের মাসে তরুণ সমাজকে রাজাকারদের বিরুদ্ধে রাজনৈতিক মাঠ উত্তপ্ত করে রাখার আহ্বান জানাচ্ছেন নাকি ! এর ফলে ডিসিসির আবহাওয়া হয়ে পড়বে শান্ত, বিএনপি হয়ে পড়বে ইস্যু-হীন । অর্থাৎ ডিসিসির আবহাওয়া শান্ত করার জন্য পাকিস্তান দলকে বাংলাদেশে খেলার জন্য আহ্বান জানিয়েছেন । এছাড়া আরও একটি বিষয় লক্ষ্য করলে দেখা যায় দেশে বর্তমানে যুদ্ধাপরাধীদের বিরুদ্ধে তরুণ সমাজ সোচ্চার ।

চারদলীয় জোট যাতে ১৬ ডিসেম্বরের ভিতরে কোন ধরনের ইস্যু তৈরি করতে না পারে সেজন্য বাংলাদেশের ক্রিকেট প্রেমিক পাকিস্তান দলকে এদেশে খেলার জন্য আমন্ত্রণ জানিয়েছেন ।

বিজয়ের মাসে পাকিস্তানের সাথে খেলা সেটা আমরা কখনই গ্রহণ করতে পারি না । আমরা কখনই সরকারী দল আওয়ামীলীগের কাছে এরকম আশা করিনি । অনেক কষ্টের পর আমরা পেয়েছি স্বাধীনতা । সেই স্বাধীনতাকে-তো কখনই ভূলুণ্ঠিত হতে দিতে পারি না ।

রাজনৈতিক খেলা হোক যাই হোক তবে আমাদের সরকারের বিজয়ের মাস ডিসেম্বর সম্পর্কে সজাগ দৃষ্টি দেওয়া উচিত ছিল । আমরা চাই না ঐ সব বেজন্মা দেশের খেলোয়াড় গুলো এ দেশে আসুক । আর আমাদের সরকারকে অবশ্যই এসব নব্য রাজাকারদের বিরুদ্ধে শক্ত অবস্থান নিতে হবে । আমাদের সবসময় মনে রাখা প্রয়োজন আগে আমার দেশ তারপর অন্য ------ ।




মন্তব্য


ব্লগারের প্রোফাইল ছবি

আম্বালিক তোর পুটকি মারছিল ?


ব্লগারের প্রোফাইল ছবি

চারদলীয় জোট যাতে ১৬ ডিসেম্বরের ভিতরে কোন ধরনের ইস্যু তৈরি করতে না পারে সেজন্য বাংলাদেশের ক্রিকেট প্রেমিক পাকিস্তান দলকে এদেশে খেলার জন্য আমন্ত্রণ জানিয়েছেন ।

বিজয়ের মাসে পাকিস্তানের সাথে খেলা সেটা আমরা কখনই গ্রহণ করতে পারি না । আমরা কখনই সরকারী দল আওয়ামীলীগের কাছে এরকম আশা করিনি


আন্তর্জাতিক ক্রিকেট খেলার সময়সূচি কারা ঠিক করে, তা কি আপনি জানেন না? আই সি সি দুই তিন বছর আগেই বিভিন্ন দেশ কে কোথায় কবে খেলবে তার সময়সূচি তৈরি করে। ঐ দেশের সরকারের এই ব্যাপারে কোনই হাত থাকে না। বলদ নাকি আপনি?

--------------------------------------------------------------------------------
ধর্ম হচ্ছে বিশ্বাস। বিশ্বাসে কোন যুক্তি প্রমাণের প্রয়োজন পড়েনা।


ব্লগারের প্রোফাইল ছবি

আপনি মানেন আর না মানেন এটা ফাল্তু একটা পোষ্ট। রাজনীতি,খেলা,যুদ্ধ এগুলো সম্পুর্ন আলাদা বিষয়।কিসের মাধ্যে কি যে নিয়ে আসেন ভাই বুঝিনা।কথাগুলো খারাপ লাগতে পারে, কিন্তু সত্যিটা মেনে নেয়ার চেষ্টা করুন।

----------------------------------------------------------------
আমার ভাল লাগার প্রতিটি মুহূ্র্ত আমি আমার মতই উপভোগ করে যাব।


ব্লগারের প্রোফাইল ছবি

রাজনীতি,খেলা,যুদ্ধ এগুলো সম্পুর্ন আলাদা বিষয়।কিসের মাধ্যে কি যে নিয়ে আসেন ভাই বুঝিনা।কথাগুলো খারাপ লাগতে পারে, কিন্তু সত্যিটা মেনে নেয়ার চেষ্টা করুন।


প্রোফাইলে পতাকা লাগাইলে দেশপ্রেমিক হওয়া যায় না। বোকাচোদা পাকিরা যে খেলার সময় পাকি পতাকা নিয়া নাচে ঐটা কি রাজনীতির গুয়াদিয়া বের হইছে। রাজনিতী খেলা আর যুদ্ধ ঐ এক পতাকার জন্যই হয় এইটা যে কয় বুজি না তারে উস্টা

****************************
ঘৃণার চাষাবাদ জারি থাকুক প্রজন্ম থেকে প্রজন্মান্তরে।মানবতা মানুষের জন্যই সংরক্ষিত থাক।পশুদের জন্য বরাদ্দ থাক শুধুই উগ্র ঘৃণার দাবানল।


ব্লগারের প্রোফাইল ছবি

বোকাচোদা পাকিরা যে খেলার সময় পাকি পতাকা নিয়া নাচে ঐটা কি রাজনীতির গুয়াদিয়া বের হইছে।।।।।
ভদ্রতার লক্ষন বটে।যাই হোক রাজনীতি,খেলা এবং যুদ্ধ এই বিষয়গুলি যে একই সুত্রে গাঁথা তার পেছনে কয়েকটা যুক্তি দ্বার করান যাতে আমি বা আমরা নি:সংশয়ে মেনে নিতে পারি যে আপনিই ঠিক। পাইককারা যদি তাদের পতাকা নিয়ে নাচে তবে সেটা তাদের অভ্যন্তরিন ব্যপার, কিন্তু সমস্যাটা হয় যখন আমাদের স্বদেশীরাও একি আচরন করে এবং তাদের সেই আচরন দ্বারা এটাই প্রতিয়মান হয় যে বাস্তবিক অর্থেই তারা এদেশকে ভালবাসেনা।কিন্তু প্রতিবাদ স্বরুপ আমরা কি করছি??

----------------------------------------------------------------
আমার ভাল লাগার প্রতিটি মুহূ্র্ত আমি আমার মতই উপভোগ করে যাব।


ব্লগারের প্রোফাইল ছবি

রাজনীতি,খেলা,যুদ্ধ এগুলো সম্পুর্ন আলাদা বিষয়। কিসের মাধ্যে কি যে নিয়ে আসেন ভাই বুঝিনা।কথাগুলো খারাপ লাগতে পারে, কিন্তু সত্যিটা মেনে নেয়ার চেষ্টা করুন।

রাজনীতি,খেলা,যুদ্ধ এগুলো কখনই আলাদা বিষয় নয় । প্রত্যেকটিই মুদ্রার এপিট ওপিট । খেলা, যুদ্ধ দুনোটাতেই রাজনীতি বিদ্যমান থাকে @ Shujan ভাই।


দুরন্ত ভাই এর সাথে সহমত পোষণ করলাম ।

.................................................
প্রাচীরের ছিদ্রে এক নাম গোত্রহীন
ফুটিয়াছে ছোট ফুল অতিশয় দীন
ধিক্ ধিক্ বলে তারে কাননে সবাই
সূর্য উঠি বলে তারে “ভালো আছো ভাই ? ”


ব্লগারের প্রোফাইল ছবি

ভাইজান যুদ্ধে রাজনীতি থাকতে পারে কিন্তু তাই বলে খেলায়? সত্যি করে বলুনত আপনি কি আগামিকালের খেলা দেখবেননা?আপনার লেখা যদি সত্যিই আপনার বিস্বাশ হতে উৎপন্ন হয় থাকে তবে আগামিকালের খেলা না দেখাই উচিত। যাই হোক, মত এবং পথ ভিন্ন হতেই পারে, শুধু প্রত্যাশা অন্তত নিজ দেশকে কেউ যেন অবমানিত না করি।

----------------------------------------------------------------
আমার ভাল লাগার প্রতিটি মুহূ্র্ত আমি আমার মতই উপভোগ করে যাব।


ব্লগারের প্রোফাইল ছবি

ওরে আমার চুশিল। আবালরে আবাল কইয়া গালি দিতে আমার কোন্আপত্তি নাই। পাকি গেলমান রে গেলমান কইলে দেশের মানসম্মান যায় এইরাম তত্ব দিলে আপনেরে পাইলে উপ্তা করে যে কেউ সোগা মেরে দিবে

****************************
ঘৃণার চাষাবাদ জারি থাকুক প্রজন্ম থেকে প্রজন্মান্তরে।মানবতা মানুষের জন্যই সংরক্ষিত থাক।পশুদের জন্য বরাদ্দ থাক শুধুই উগ্র ঘৃণার দাবানল।


ব্লগারের প্রোফাইল ছবি

গেলমান সব্দের অর্থটা ঠিক বুঝলামনা। যাই হোক আপনার তত্ব নিয়ে আপনি খুশি থাকুন কোন আপত্তি নেই,তবে একটা কথা মনে রাখা ভাল যে অন্যকে গালি দিলেই নিজের সম্মান বাড়েনা। সম্মান বাড়ে তার কর্মে। যাক ভাল থাকুন,যা খুশি মন্তব্য করুন, কেননা এর পর ভাল-মন্দ কোন কিছুর জবাব দেবার জন্যেই আমি আর আসবনা।

----------------------------------------------------------------
আমার ভাল লাগার প্রতিটি মুহূ্র্ত আমি আমার মতই উপভোগ করে যাব।


ব্লগারের প্রোফাইল ছবি

দাবা খেলা ভালো জিনিশ তো।

..................................................................

বারান্দা জুড়ে হাসি অচেনা চোখের জল
বিকেলের শরীর ছুঁয়ে আমার কবিতা চঞ্চল
.. .. .. .. ..
শুধু কবিতাটুকু সত্যি আর সব মিথ্যে নামে আসে
ওই আকাশটাকে দেখো- সে কবিতাই ভালোবাসে


ব্লগারের প্রোফাইল ছবি

যাক ভাল থাকুন,যা খুশি মন্তব্য করুন, কেননা এর পর ভাল-মন্দ কোন কিছুর জবাব দেবার জন্যেই আমি আর আসবনা।

আমরা স্বাধীনচেতা মানুষ । কখন রাত পোহাবে সেটার দিকে তাকিয়ে আছে আমাদের নতুন প্রজন্ম । আমরা যদি নিজেরা দমিয়ে যায় তাহলে তাদের পথ দেখাবে কে ? কে,কি গালি দিল সেটা আমাদের দেখার বিষয় নয় । গালির মাঝেই সমালোচনা খুঁজে পাওয়া যায় । নিজেকে সংশোধন করার অন্যতম পথ এটি । @ Shujon.

.................................................
প্রাচীরের ছিদ্রে এক নাম গোত্রহীন
ফুটিয়াছে ছোট ফুল অতিশয় দীন
ধিক্ ধিক্ বলে তারে কাননে সবাই
সূর্য উঠি বলে তারে “ভালো আছো ভাই ? ”


ব্লগারের প্রোফাইল ছবি

চিন্তাহীন জ্ঞানহীন ফালতু পোষ্ট , পোস্টে মাইনাস

হিজিবিজি

glqxz9283 sfy39587p07