Skip to content

যুদ্ধাপরাধীদের বিচার বানচালের ষড়যন্ত্র রুখে দিন

ব্লগারের প্রোফাইল ছবি



গতকাল আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনাল-১ এর বিচারপতি নিজামুল হক নাসিম পদত্যাগে উদ্ভুত পরিস্থিতিতে ঘোলা পানিতে মাছ শিকার করতে চাইছেন, রাজাকার দোসর আইনজীবি ব্যারিষ্টার রাজ্জাক এবং ব্যারিষ্টার মউদুদ। একজন বলছেন বিচার বন্ধ করতে হবে অন্যজন বলছেন পুনঃবিচার করতে হবে। যে আইনটিতে বিচার হচ্ছে আসুন দেখি সেই আইনটি কি বলে, ...

আন্তর্জাতিক অপরাধ (ট্রাইব্যুনালস) এ্যাক্ট ১৯৭৩ (১৯৭৩ সনের এ্যাক্ট নং ১৯) এর সেকশন ৬-এর অনুচ্ছেদ ১ এ বলা হয়েছে,

এই আইনের বর্ণনামতে সংঘঠিত অপরাধসমূহ বিচারের উদ্দেশ্যে, সরকার গেজেট নটিফিকেশনের মাধ্যমে এক বা একাধিক ট্রাইব্যুনাল গঠন করতে পারে যা নুনূতম ২ (দুই) এবং সর্বোচ্চ ৪ (চার) সদস্য বিশিষ্ট হবে।


সেকশন ৬-এর অনুচ্ছেদ ৪ এ বলা হয়েছে,

যদি একটি ট্রাইব্যুনালের কোন সদস্য মৃত্যুবরণ করেন অথবা অসুস্থ অথবা অন্য কোন কারণে তার দ্বায়িত্ব পালনে অপারগ হন, তবে সরকার গেজেট নটিফিকেশনের মাধ্যমে ঐ সদস্যের পদ শূন্য ঘোষনা করতে পারেন এবং অন্য উপযুক্ত সদস্যকে সেই পদে নিয়োগ দিতে পারেন।


সেকশন ৬-এর অনুচ্ছেদ ৫ এ বলা হয়েছে,

যদি বিচার চলাকালীন সময়ে ট্রাইব্যুনালের কোন সদস্য, কোন কারণে বিচারকার্য চালাতে অপারগ হন তবে বিচার অন্য সদস্যদের নিয়ে চলতে পারে।


সেকশন ৬-এর অনুচ্ছেদ ৬ এ বলা হয়েছে সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ বিষয়টি,

শুধুমাত্র ট্রাইব্যুনালের সদস্য পরিবর্তন কিংবা কোন সদস্যের অনুপস্থিতির কারণে, এই ট্রাইব্যুনাল সে সব সাক্ষীকে পুনরায় সাক্ষ্য দিতে বা শুনানি করতে কোন ভাবেই বাধ্য নয়, যারা ইতিপূর্বে কোন সাক্ষ্য দিয়েছে অথবা যেসব বিষয়ে ইতিপূর্বে শুনানি হয়েছে।


বিচারপতি নিজামুল হক নাসিম আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনাল ১ থেকে পদত্যাগ করাতে কোন সমস্যা নেই, কারণ তিন সদস্যের সমন্বয়ে গঠিত ট্রাইব্যুনালে দুইজন সদস্য এখনও আছেন, তাই ট্রাইব্যুনাল কোন সময়ই এর কার্যক্ষমতা হারায়নি। সরকারের নিজামুল হক নাসিমের পদত্যাগ করা শূন্য পদে উপযুক্ত লোক নিয়োগ দেয়াতে কোন বাধা নেই। সরকার চাইলে ট্রাইব্যুনাল ১, দুই সদস্য নিয়েও বিচার চালাতে পারেন। যে সকল মামলায় ইতিপূর্বে সাক্ষ্য গ্রহন শেষ হয়েছে বা আংশিক হয়েছে ট্রাইব্যুনাল সে সকল মামলায় পুনঃশুনানি বা পুনঃসাক্ষ্য গ্রহনে কোন মতেই বাধ্য নয়।

তাই, ব্যারস্টার মওদুদ ও রাজ্জাককে বলছি, মানুষকে বিভ্রান্ত করার চেষ্টা করবেন না। আমরা বিচারের পক্ষে সাধারণ জনগন, আমরা যেটুকু আইন বুঝি আপনারা সেটুকু বুঝেন কি না সন্দেহ আছে। বুঝে শুনে যদি বিচার বন্ধের কথা বলে থাকেন তাহলে, আপনারা আসলে আদালত অবমাননা করছেন। রাস্তায় বানর নাচালে অনেকেই আগ্রহী হয়ে জটলা পাকাতে পারে কিন্তু তা জনসভা হয়, আপনাদের এই বিচার বানচালের বাদর নাচ অবিলম্বে বন্ধ করুন। আপনারা জনবিচ্ছিন্ন। যুদ্ধাপরাধীদের বাঁচাতে হরতাল দিয়ে, মানুষ পুড়িয়ে, তাদের সম্পদ বিনষ্ট করে আর কতদিন? সেদিন বেশি দূরে নয় যখন বাংলার মানুষ আপনাদের অবাঞ্ছিত ঘোষনা করবে, সবখানে প্রতিহত করবে। আর সেদিন পালাবার কোন পথ পাবেন না।

বাংলার মানুষের জয় হবেই।


ব্লগারের প্রোফাইল ছবি

এই দুই ছিল খাওয়া অরাজনীতিবিদের কথায় বিচার বন্ধ করার প্রশ্নই ওঠে না।

ঘোলা পানিতে মৎস শিকারের অপচেষ্টা রুখে দিতে হবে।
ভালো পোস্ট। শেয়ার দিলাম।

.........................................
ধর্মান্ধ এবং রাজাকার মুক্ত দেশ চাই
.....................................


ব্লগারের প্রোফাইল ছবি

সংখ্যা কোন বিষয় না। ২ কোটিতে না চাইলেই কি বিচার বন্ধ হবে? এটা আমার মায়ের সম্ভ্রমহানি, ভাইয়ের রক্ত, বাবার হত্যার বিচার। বিচার নিয়ে নো টাল্টি বাল্টি। প্রয়োজনে অস্র হাতে নিবো।


ব্লগারের প্রোফাইল ছবি

কথা হই দেশের মানুষ ধীরে ধীরে ছাগলে পরিনত হচ্ছে। মিথ্যা প্রচারনাকে গুরুত্ব দেয় অথচ সত্যটাকে এড়িয়ে যায় জেনে শুনে বুঝে।

শেয়ার দিছি।

___________
জয় বাংলা,জয় বঙ্গবন্ধু


ব্লগারের প্রোফাইল ছবি

সত্য চাপিয়ে রাখবে কতক্ষন? সরকার যদি খালি অর্থনীতিটারে সামাল দিতে পারে, বাকিটা পাবলিকের উপর ছেড়ে দিয়ে ভরসা রাখতে পারে। বাংলার মানুষ বেঈমান না।


ব্লগারের প্রোফাইল ছবি

সরকার যদি খালি অর্থনীতিটারে সামাল দিতে পারে, বাকিটা পাবলিকের উপর ছেড়ে দিয়ে ভরসা রাখতে পারে। বাংলার মানুষ বেঈমান না।


এটা অনেক ইম্পোর্টেন্ট পয়েন্ট।

_____________________

ক্ষুদ্র স্বার্থ ভুলে মুক্তির দাঁড় টান।


ব্লগারের প্রোফাইল ছবি

মিথ্যেবাদী এই দুই ব্যারিস্টারকে জুতানিক্ষেপ করতঃ যুদ্ধাপরাধীদের বিচার বানচালের ষড়যন্ত্র রুখে দিন।

-
একবার রাজাকার মানে চিরকাল রাজাকার; কিন্তু একবার মুক্তিযোদ্ধা মানে চিরকাল মুক্তিযোদ্ধা নয়। -হুমায়ুন আজাদ


ব্লগারের প্রোফাইল ছবি

জুতা দিলে কম হয়ে যাবে, এরা শুধু মিথ্যেবাদী না চরিত্রহীন। পয়সার জন্য এরা নিজের মাকে বিক্রি করতে দ্বিধা করে না।


ব্লগারের প্রোফাইল ছবি

সুশীল ছাগ্না ব্যারিষ্টার রফিকুল হকও দেখলাম কইতেছে আবার প্রথম থেকে শুনানী করতে হবে।


ব্লগারের প্রোফাইল ছবি

শুনেন তাইলে আজকে একটা কথা বলি। এই বছর সম্ভবত জুনের দিকে, গণস্বাস্থ্যের জাফরউল্লাহ চৌধুরী সাভারে বেগম খালেদা জিয়াকে নিয়ে যান তাদের তিনদিন ব্যাপি বর্ষপূর্তির অনুষ্ঠানে। সেখানে সেদিনের বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ব্যরিস্টার রফিকুল হক, ডক্টর মুহাম্মদ ইউনূস এবং আরেকজনের নাম আমি মনে করতে পারছি না। গণস্বাস্থ্যের সেই অনুষ্ঠান সেদিন বিএনপির কর্মী সভায় রূপ নেয়। জাফরউল্লাহ, রফিক সহ চার জনকে সেদিন বেগম জিয়ার উপদেষ্টা হিসেবে ঘোষনা করা হয়। সুতরাং যারা, ব্যারিস্টার রফিককে সুশীল না হয় নিরপেক্ষ ভাবছেন তারা অন্ধকারে রয়েছেন।


ব্লগারের প্রোফাইল ছবি

কোনখানে দেখছিলাম খবরটা। এই শুয়োর সুশীলের ছাল পইরা সাইদী-নিজামীর পাছা বাঁচানোর জন্য আপ্রান চেষ্টা চালায়া যাইতেছে। টিভি খুললেই টকশোতে সুশীল নিরপেক্ষ হিসাবে তার চেহারা দেখা যায়। সে আবার নিরপেক্ষ তত্বাবধায়ক সরকারেরও প্রধান হইতে চায়।


ব্লগারের প্রোফাইল ছবি

জুতা মারার সিরিয়াল দিয়া গেলাম

*****************************
আমার কিছু গল্প ছিল।
বুকের পাঁজর খাঁমচে ধরে আটকে থাকা শ্বাসের মত গল্পগুলো
বলার ছিল।
সময় হবে?
এক চিমটি সূর্য মাখা একটা দু'টো বিকেল হবে?


ব্লগারের প্রোফাইল ছবি

দরকারী পোস্ট।
শেয়ার্ড ।

*************************************************************************************
আমি অতো তাড়াতাড়ি কোথাও যেতে চাই না;
আমার জীবন যা চায় সেখানে হেঁটে হেঁটে পৌঁছুবার সময় আছে,
পৌঁছে অনেকক্ষণ বসে অপেক্ষা করবার অবসর আছে।


ব্লগারের প্রোফাইল ছবি

দুঃখিত, শেয়ার করতে গিয়া দেখি আমার ওয়ালে আগেই শেয়ার্ড।

*************************************************************************************
আমি অতো তাড়াতাড়ি কোথাও যেতে চাই না;
আমার জীবন যা চায় সেখানে হেঁটে হেঁটে পৌঁছুবার সময় আছে,
পৌঁছে অনেকক্ষণ বসে অপেক্ষা করবার অবসর আছে।


ব্লগারের প্রোফাইল ছবি

ছাগুদের বিচারের কোন ট্রাইবুনাল লাগবো না-ওদের ওপেন ফায়ার করা হোক

------------------------------------------------------
সব মানুষেরই কিছু না কিছু অক্ষমতা থাকে


ব্লগারের প্রোফাইল ছবি

''''''''''''''''''''''''''''''''''''''''''''''''''''''''''''''''''''''''''''''''''''''''''''''""""""""""""""""""""""""""""""""""""""""

কষ্ট পোড়াতে চাই বলে অশ্রু খুঁজি........


ব্লগারের প্রোফাইল ছবি

রাজাকারের বিবির বাচ্চারা সব শিবিরদের এত খুশি হবার কিছু নেই !! যুদ্ধাপরাধীদের বিচার বাংলার মাটিতে হবেই হবে ইনশাল্লাহ।

-----------------------------------------------------------------------------------------------
"লাখ শহীদ ডাক পাঠাল, সব সাথীদের খবর দে, সারা পৃথিবী ঘেরাও করে রাজাকারদের কবর দে"


ব্লগারের প্রোফাইল ছবি

ট্রাইবুনালের শুনানী আবার প্রথম থেকে শুরু করতে হবেঃ রফিক-উল-হক।

-

এটার ভিডু লিঙ্ক আছে?

-
একবার রাজাকার মানে চিরকাল রাজাকার; কিন্তু একবার মুক্তিযোদ্ধা মানে চিরকাল মুক্তিযোদ্ধা নয়। -হুমায়ুন আজাদ


ব্লগারের প্রোফাইল ছবি


ব্লগারের প্রোফাইল ছবি

একটা জিনিস লক্ষ্য করতেছি, আগে শুধু জামাত একা একা যে কাজগুলো করত এখন বিএনপিও তাদের সাথে সাথে একই কাজ করতেছে। আর বিএনপি এটা করা শুরু করছে গোলাপি বেগম ভারত থেকে ফেরার পর।

------------------------------------------------------------------------------------------------
কথা কম কাজ বেশি


ব্লগারের প্রোফাইল ছবি

আপনার সাহসী লেখা ও দৃষ্টি ভঙ্গির জন্য , আপনাকে অসংখ্য ধন্যবাদ।।


ব্লগারের প্রোফাইল ছবি

খুবই কাজের পোস্ট। একটা জিনিস খেয়াল করছেন-- ব্যারিষ্টার রাজ্জাক, ব্যারিষ্টার মৌদুধ, ব্যারিষ্টার রফিকুল একই আইনী ভাষায় কথা বলতেছে!


ব্লগারের প্রোফাইল ছবি

এইটা হলো ষড়যন্ত্রের আরেক ধাপ, বিচারপতি নিজামুল হকের পদত্যাগের পরে রাজ্জাক, মৌদুধ এবং রফিকুলরা এসব বলবেন, এটা তাদের প্ল্যানের অংশ। যা-ই হোক তাদের এই আবদার আইনেই টেকে না।

----------------------------------------------------------------------------------------------------------------------
ন্যায় আর অন্যায়ের মাঝখানে নিরপেক্ষ অবস্থান মানে অন্যায়কে সমর্থন করা।


ব্লগারের প্রোফাইল ছবি

এই জন্যই আমি আগে কইছিলাম যে রফিকুলরে শাহজাহান পিঠাইতে গেছিল তাতে আমার খুব খারাপ লাগেনি শুধুমাত্র ডিপ্লোমাটিক বিষয়টা অপসনটা বাদ দিলে।

------------------------------------
ছোট বেলায় গাধার দুধ খেয়ে বড় হয়েছি বলে এখন মনে হয় সবাই আমার মত গাধার দুধ খেয়েই বড় হয়- আফসান চৌধুরী, নির্বাহী সম্পাদক, বিডিনিউজটোয়েন্টিফোরডটকম


ব্লগারের প্রোফাইল ছবি

দুইটা এক রফিকুল না। এইটা হইল রফিকুল হয়, শাহজাহান পিটাইতে গেসিল রফিকুল ইসলাম মিয়ারে।


ব্লগারের প্রোফাইল ছবি

হ, শাহজাহান পিটাইতে গেছিলো বিএনপি রফিকুলরে, এইটা সুশীল রফিকুল।

----------------------------------------------------------------------------------------------------------------------
ন্যায় আর অন্যায়ের মাঝখানে নিরপেক্ষ অবস্থান মানে অন্যায়কে সমর্থন করা।


ব্লগারের প্রোফাইল ছবি

ওরা ব্যারিষ্টার না বেশ্যা


ব্লগারের প্রোফাইল ছবি

বাংলার মানুষের জয় হবেই।

খুবই কাজের পোস্ট।

=========================================================
স্মৃতি ঝলমল সুনীল মাঠের কাছে আমার অনেক ঋণ আছে......


ব্লগারের প্রোফাইল ছবি

১৬ অক্টোবরে ৪৭ মিনিটব্যাপী স্কাইপি কথোপকথনের একপর্যায়ে ড. আহমদ জিয়াউদ্দিন বলেন, ‘...এবং ডান দিকের সিটে গিয়ে আপনি বসে গেলেন, তার পর দেখে যে, এ্যা এ্যা উনারা দুইজন বাইরে আছে। তো তার পরে আমি তখন এই পাশে দাঁড়িয়ে রয়েছি, বাম দিকে গাড়ির। শাহিনুল (ট্রাইব্যুনাল-২ এর বিচারক শাহিনুল ইসলাম) সাহেব এসে ঠাস কইরা আমার পায়ে পইড়া গেল। সালাম কইরা বলে যে, স্যার, আমার জন্য দোয়া করবেন।’ এ প্রসঙ্গে তিনি আরও বলেন, ‘কিন্তু এই প্র্যাক্টিসটা আমি অ্যাবসুলেটলি পছন্দ করি না। এবং এই অ্যাটিচ্যুডটা যে আপনে এ্যা... এ্যা... এ্যা... যদি পটেনশিয়ালি দরকার থাকে, এ্যা... এ্যা... এ্যা‘... পায়ে ধইরা সালমা করবেন আর কি—এটা শেখ হাসিনার টেকনিক। শেখ হাসিনা মানে ছাত্রলীগের টেকনিক আর কি। হ্যাঁ এইগুলা আন এক্সেপটেড।’
এ কথা শুনে বিচারপতি নিজামুল হক নাসিম হি-হি-হি করে হাসতে থাকেন এবং বলেন, ‘এই হলো আওয়ামী টাইপ চরিত্র, এইটা-ই... ফাস্ট ভুলে যায় আর কি।’



ব্লগারের প্রোফাইল ছবি

মউদুত তো সবসময়ই ব্যাস্ব্যা।

খবর

সংসদে না গিয়া ও শয়তান খালেদারা (বেতন ভাতা ছাড়াই) ১৭ কোটি টাকা নিয়েছে ।

এই ১৭ কোটি টাকা জনগনের /আমাদের, দূর্নিতী কইরা হাজার হাজার কোটি টাকা বিদেশে পাচার করছো, এখন শয়তানের চোর বাচ্চারা (জিয়া,খালেদা,মালুর চোর বাচ্চা) পায়ের উপর ঠেং তুইল্লা বিদেশে গুমাইতাছে।মনে রাখিশ,এই টাকা ফেরত্ না দেওয়া পর্যন্ত মাপ নাই। জনগনের গু,মুত তোদের মুখে ।


ব্লগারের প্রোফাইল ছবি

বাংলার মানুষের জয় হবেই।


ব্লগারের প্রোফাইল ছবি

কোন বাংলার মানুষের জয় হবে? বাংলাদেশ লিখতে কষ্ট হয় নাকি?


ব্লগারের প্রোফাইল ছবি

কে ছাগু তোমার ক্যাটাগরি সম্পর্কে জানো।

.........................................
ধর্মান্ধ এবং রাজাকার মুক্ত দেশ চাই
.....................................


ব্লগারের প্রোফাইল ছবি

" মুক্তি এখনো আসে নি, বিপ্লব অপেক্ষমাণ "

" মুক্তি এখনো আসে নি, বিপ্লব অপেক্ষমাণ "


ব্লগারের প্রোফাইল ছবি

দিনের শেষে একটা মন ভালো হওয়া পোস্ট পড়লাম।

‍‍‌‍‍‍‍**********
স্বপ্নের কারিগর


ব্লগারের প্রোফাইল ছবি

একে একে সব গুলোকেই ঝুলানো হবে, রাজাকার এবং তাদের পক্ষ নেওয়া কেউ বাদ যাবে না। বাংলার মানুষ এদের চিনে রাখুক।

~-^
উদ্ভ্রান্ত বসে থাকি হাজারদুয়ারে!


ব্লগারের প্রোফাইল ছবি

ওদের দেয়ালে পিঠ ঠেকে গেছে, তাই হাতের কাছে যা পাচ্ছে তাই দিয়ে কিছু একটা করার চেষ্টা করছে। কিন্তু লাভ হবেনা, জয় আমাদের হবেই।

------------------
ন্যায় এবং অন্যায়, দুইটার মধ্যে মাঝামাঝি কোন অবস্থান বলে কিছু নাই। মাঝামাঝি থাকা মানেই অন্যায়কে সাপোর্ট করা। নদীর দুইপারের যেকোন একপারেই আপনাকে থাকতে হবে, মাঝামাঝি থাকতে চাইলে হয় ডুবে যাবেন, অথবা ভাসতে ভাসতে যেকোন একপারেই আবার ভিড়বেন।


ব্লগারের প্রোফাইল ছবি

রাস্তায় বানর নাচালে অনেকেই আগ্রহী হয়ে জটলা পাকাতে পারে কিন্তু তা জনসভা হয়,
না

______________________________________
'বিপ্লব স্পন্দিত বুকে মনে হয় আমিই মুজিব'

glqxz9283 sfy39587p07