Skip to content

ছোট গল্প

ব্লগারের প্রোফাইল ছবি

উল্কার কথামালা

হাঁটি হাঁটি পা করে একে একে এসে নীল চাদরে রূপালী উজ্জল এক নকশা এঁকে দিল তারার দল আকাশের বুকে। এঁকে অপরের আলো আরও বেশি উদ্ভাসিত হয়ে উঠছে, মিটি মিটি করে কেউ হাসছে কেউ বা আবার মাঝে মাঝে মুখ ভার করে; দুঃখ লুকিয়ে হাসছে। ওরা কেউ নুপুর, টিউলিপ, কেউ কেউ অঞ্জলি কেউ বা সিমা, মুন্নি, সুন্দরী, আবার শাহদাত হোসেন অথবা তাহেরা খাতুন, দিপন,নাসির – নিলয়রা ও আছে -আছে অবশ্যই আছে এরা সবাই আছে সবখানেই আছে।

ব্লগারের প্রোফাইল ছবি

কপাল গুণে বিধাতা নাম কিনেছে ভাগ্যদাতা

চাল ডাল তেল নুনের অভাবে রান্না না হলেও মুখ কিন্তু থেমে থাকে না মিলনদের বাড়ির লোকজনের; সারাদিন মুখ চলে পুরোদমে। তাই মিলনদের বাড়ির কান্নাকাটি বা কোলাহল- কোনো কিছুতেই আর উৎসাহ দেখায় না প্রতিবেশীরা। তবুও গ্রাম বাংলার প্রতিবেশী বলে কথা! ঝগড়ার সময় পক্ষে-বিপক্ষের মুখে কথা যোগান দেয় কেউ, কেউ বা আবার ঝগড়ার সময় উপস্থিত থেকে গোপন খবরে নিজের ভাঁড় সমৃদ্ধ করে পরে সুযোগ মতো ব্যবহার করার জন্য- এরাই হলো শত্রুপক্ষ; আর একদল আছে নীরব দর্শক।

ব্লগারের প্রোফাইল ছবি

রূঢ় রাত্রি

সন্ধ্যে পেরিয়ে রাত ঘনিয়ে আসছে তখনো ঋজুর বাসায় ফেরার খবর নেই অথচ সে কখনো সন্ধ্যের পর বাইরে সময় কাটানো পছন্দ করেনা,কিংবা বলা যায় এটা তার নিয়মের মধ্যে নেই।|
কালো মেঘে আকাশ ঢেকে আছে,যেকোন সময় বৃষ্টি আছড়ে

ব্লগারের প্রোফাইল ছবি

মে দিবসের গল্প

মে দিবসের গল্প
রণজিৎ সরকার

তখন মিছিলটা লাল রঙের নিষাণ উড়িয়ে ঘুরছে সারা চট্টগ্রাম শহর। ডিসি হিল থেকে বটতলি হয়ে জিইসি। মিছিলের প্রতিবাদী স্বর কিছুটা ক্ষীণ। মাঝে মাঝে দলছুট মিছিলের অংশবিশেষ চোখে পড়

ব্লগারের প্রোফাইল ছবি

ভেলায় পাড়

একটা নদী,তার দুপাশে বয়ে চলা আঁকা বাঁকা তীর। নদীটা তীর দুইটিকে ভাগ করে রেখেছে। তাই দুইপাশেই ভিন্ন সভ্যতা। মাঠে গরু চড়ানো হচ্ছে,নদীর পাড়ে গড়ে ওঠেছে লোকালয়, গ্রামের মেয়ে, বৌ দলে বেধে জল নিচ্ছে নদী থেকে

ব্লগারের প্রোফাইল ছবি

হতাশার ফানুস

আই সি ইউ রুমে পেশেন্ট মনিটরটা সমানে বিপ বিপ করেই যাচ্ছে। প্রত্যেক আই সি ইউ রুমে রোগীর পাশে একটা করে পেশেন্ট মনিটর থাকে। এটা রোগীর ই সি জি, ওয়েভ ফরম, পালস রেট, হার্ট রেট, টেম্প

ব্লগারের প্রোফাইল ছবি

‘আঁধারে ডোবা চাঁদ’

সুমি গোসল করে আয়নার দিকে তাকায়। চেহারাটা মিষ্টি আছে। কিন্তু রঙটা কাল। আর শরীর বেঢব সাইজের মোটা। সেই শরীরের দিকে তাকিয়ে সুমির প্রায় কান্না এসে যায়। ছোট থেকেই এই অবস্থা। সে কাল এবং মোটা। কাল রঙ পেয়েছে ত

ব্লগারের প্রোফাইল ছবি

'গাঢ় আঁধারের উজ্জ্বল ফুল’

ও মতিন ভাই, একটা সিগারেট দেও ত দেহি।‘
কাশেম শার্ট থেকে পাঁচ টাকা বের করতে গিয়ে দেখে, টাকাটা নেই! কি আশ্চর্য ব্যাপার!

ব্লগারের প্রোফাইল ছবি

ভালোবাসার এক ভিন্ন রং


তোমায় গান শোনাবো তোমায় গান শোনাবো ||
তাই তো আমায় জাগিয়ে রাখো ওগ

ব্লগারের প্রোফাইল ছবি

প্রতিশোধ

প্রবাসী রিফাত মধ্যপ্রাচ্যের একটি দেশে কোন একটা রেস্টুরেন্টে চাকরি করছে প্রায় নয় বছর ধরে। বিকেল পাঁচটা হতে রাত একটা পর্যন্ত নানা ধরণের কাবাব বানানোই তার কাজ। তার বানানো কাবাবের সুনামের কারণেই রেস্টুরেন

Syndicate content
glqxz9283 sfy39587p07