Skip to content

মাসকাওয়াথ আহসান-এর ব্লগ

ব্লগারের প্রোফাইল ছবি

সাংবাদিকতা; পুলিশ উইদাউট একাউন্টিবিলিটি

নিজেকে দেখলে মনে হয় আমি একজন পুলিশ। পুলিশের বস থাকে, আমার কোন বস নাই। পুলিশের ঘুষ খেতে গিয়ে ধরা খেয়ে খাগড়াছড়িতে বদলী হতে হয়। আমি গিয়ে কোন ব্যবসায়ীকে ভয় দেখিয়ে চাঁদা নিয়ে ধরা খেলেও আমাকে কেউ কোথাও ট্রান্সফার করবে না; আমি যে জাতির বিবেক, অন্ধকারে হারিকেন।

ব্লগারের প্রোফাইল ছবি

শিলাইদহের সুরের জলসায়

শিলাইদহের সন্ধ্যে গুলো মন্দ্র ছিলো, চোখের সামনে পূর্ণ যৌবনা পদ্মা ছিলো
পূর্ণ চন্দ্র ছিলো আকাশে, অলৌকিক বজরার খুশীজল থই থই সন্তরণ ছিলো।
কোলকাতার কঠিন কঠিন কথা বলা বুদ্ধিজীবীদের চর্বিত চর্বন থেকে দূরে
একজন গগণ হরকরার সঙ্গে কথা আর সুরের ইন্দ্রজাল এসেছিলো ঘুরে ঘুরে।

ব্লগারের প্রোফাইল ছবি

স্পটলাইট নারায়ণগঞ্জ

আমরা প্রতিনিয়ত ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের ব্যবচ্ছেদ করি সুসরকার ও সুশাসনের আগ্রহে। আওয়ামী লীগের নেতারা এইসব সমালোচনায় বেশীরভাগ ক্ষেত্রেই সাড়া দেন। অন্যদিকে ২০০১-০৬ বিএনপি-জামাতের বাংলাভাই-একুশে অগাস্ট-দশট্রাক অস্ত্রযজ্ঞে মিডিয়ায়-নাগরিক সভায়-প্রান্তিক চায়ের স্টলে অনেক দাবী তুলেছি আমরা;রাজনৈতিক সংস্কারের আগ্রহে। বিন্দুমাত্র সাড়া পাওয়া যায়নি।

ফলে আওয়ামী লীগ নিয়ে আমাদের চানমারী খুব সফল এক চর্চা। বাংলাদেশের দুর্নীতিগ্রস্ত জিনে প্রতিটি এলাকায় রাজনৈতিক গুন্ডা রয়েছে। কিন্তু নারায়ণগঞ্জের শামীম ওসমান মিডিয়া ন্যারেটিভে বাংলাদেশের একমাত্র খলনায়ক যেন। আওয়ামী লীগকে ঢিল দিয়ে পাড়ার জন্য সহজতম ক্যাচ হচ্ছে শামীম ওসমান। বাকী সবাই সাধু-সন্ত।

ব্লগারের প্রোফাইল ছবি

অন্তহীন যাদুযাত্রা

একজন তরুণী সাংবাদিক বসার ঘরে বসে গ্যাবোর প্রতীক্ষায়। ডাক্তার নিষেধ করেছে, প্রেসের সঙ্গে কথা বলার কোন দরকার নেই, গ্যাবোর ডিমেনশিয়া। তিন মিনিট আগের কথা মনে রাখতে পারেন না। সুতরাং সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলা উচিত হবে না। আর তরুণ-তরুণী সাংবাদিকের সঙ্গে কথা বলা মানেই বারবার জিজ্ঞেস করবে, আপনার নিউমোনিয়া হবার পর অনুভূতি কী? অথবা ওয়াও চিৎকার করে বলবে, আপনার ৮৭ বছর বয়স তবুও এতো ফ্রেশ দেখাচ্ছে কেন? কোন দরকার নেই। হয়েছে তো অনেক নাম, অনেক সাক্ষাতকার। গ্যাবোতো নিজেই বলতেন, লেখাগুলো ভাঙ্গা স্যুটকেসে রেখে দিলেই পারতাম। মৃত্যুর পর ছাপলে এই শোবিজের টেন পার্সেন্টের ব্যবসা ফাঁদতে হতোনা। কোন ভাবনা থেকে শতবর্ষের নীরবতা উপন্যাস লিখেছেন; এই এক প্রশ্নের উত্তর দিতে দিতে গ্যাবো এতো বিরক্ত হয়ে গিয়েছিলেন; যে এক সময় এই প্রশ্নের উত্তরে উনি শুধু জিভ দেখাতেন। সেই গুন্টার গ্রাসের জিভ কাটো লজ্জায় গ্রন্থের প্রচ্ছদ হয়ে গিয়েছিলেন গ্যাবো।

ব্লগারের প্রোফাইল ছবি

শাহবাগঃ বন্ধু চলো হাঁটি

ঢাকা ইউনিভার্সিটিটাই আমার চোখে আমাদের অসাম্প্রদায়িক মানবিক সাম্যবাদের মুক্তাঞ্চল। সেশন জ্যামে পড়ে ছয়টা বছর কেটেছে এই রূপকথার রাজ্যে। সেখানে রাক্ষস ছিল, মৃত্যু ছিল, কিন্তু কী এক জীয়ন কাঠি ছিল অপরাজেয় বাংলায়; জীবন্মৃত বেঁচে উঠেছি প্রত্যাশায়। নীল চক্ষু বালকের আশ্রয় প্রশ্রয় ছিল শিক্ষক-অগ্রজদের ছায়ায়, বন্ধুদের আস্থায়, বান্ধবীদের রোমান্টিকতায়।

ব্লগারের প্রোফাইল ছবি

অমর নক্ষত্র

১৯৭১ সালের ৭ মার্চ হাজার বছরের শ্রেষ্ঠ বাঙ্গালী বঙ্গবন্ধু ঢাকার সুহরোয়ার্দ্দী উদ্যানে দাঁড়িয়ে যা বললেন; তা কী একটি ভাষণ- নাকি কবিতা- নাকি বাঙ্গালীর মুক্তির পথ মানচিত্র।

ব্লগারের প্রোফাইল ছবি

মতিমধু, শক্তি দই ও মুন্নী কুসুম তেলের পদ্য

রাজপুত্রী

কমলা লেবুর সকালে এলো অমৃতা
এমন মোহন দৌড়সঙ্গী ওগো অর্পিতা
তোমার মাঝে দেখিনি কোন ভানভণিতা
বসন্ত বাতাসে সুঁতোহীন সরল পরিণীতা।
যদিও আল-কায়েদার জনক তোমার পিতা
তুমিই তা দিলে বলে ওগো সত্যবাদী গীতা
তুমি সত্যি এক মায়াবতী মেয়ে হে অমৃতা
যখন চাইবো দেবে কী ড্রোনের লাল-নীল ফিতা!

ব্লগারের প্রোফাইল ছবি

জ্যাক দ্য ছাগুর পুতের চান-তারা নিয়া দৌড়া দৌড়ি

জাকিরুল ভাদাইমা। কাম-কাজ নাই। এলাকার জামাতের রোকন রাজ্জাক শিবিরের চটপটে ফারাবীকে বলে, ঐ ফেসবুকে ইভেন্ট খোল, চাঁন তারা নিয়া স্টেডিয়ামে চলো, তোরে ৫০ টাকা ফ্লেক্সি লোড করবো। ফারাবী মাত্র তিনঘন্টায় শ-খানেক ভাদাইমা জোগাড় করে। ইনবক্সে নির্দেশ দেয়, ক্লিন শেভ কইরা যাবি সব, টিভিতে চেহারা আসবো। জ্যাক জিগায়, প্রত্যেক ইভেন্টেই আমগোর দাড়ি কাটা যায়, আপনের ছাগলা দাড়ি কাটেন না কা। ফারাবী ক্ষেপে যায়, তুই কী জানস ফারাবী নায়েকের দাড়ির রহস্য, ওরে আমি তোগো বাংলাদ্যাশের জাকের নায়েক। মাই দাড়ি ইজ স্পেশাল।

ব্লগারের প্রোফাইল ছবি

বুশোফোবিয়া

ইহুদী-খ্রিষ্টান বিজনেস সিন্ডিকেটের তৈরী আল-কায়েদা উত্তরাধুনিক অসাম্প্রদায়িক ইসলামকে একটি ভীতিপ্রদ ধর্ম হিসেবে দাঁড় করিয়েছে। আপনি যে ধর্মের লোককেই এখানে ওখানে বোমা মেরে মানুষ মেরে ফেলতে দেখবেন, সে ঐ ধর্মের লোককে এড়িয়ে চলবেন। এই কট্টর খ্রীস্টিয় রিপাবলিকান ষড়যন্ত্রকে বাস্তবতায় পরিণতি দিতে রয়েছে তাদের টিভি সিএন এন এর শয্যাশায়িনী সাংবাদিক আমানপোরেরা। এই আল-কায়েদা-তালেবান-জামাত-ইসলামী ব্যাংক সব রসুনের গোড়া হচ্ছে কট্টর ইহুদী-খ্রীস্টান আদিম যুদ্ধ ব্যবসায়ী বলয়।

ব্লগারের প্রোফাইল ছবি

পিলখানায় বিদ্রোহীদের পক্ষ নেয়া মুন্নী সাহা

২৫ ফেব্রুয়ারী পুরো বাংলাদেশের জন্য এক গভীর বেদনার দিন। পিলখানা ট্র্যাজেডীর এই কালো দিনটিতে আমরা হারিয়েছি বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর দক্ষ কর্মকর্তাদের, যারা জামাতুল মুজাহেদীনসহ বাংলাদেশের জঙ্গী নির্মূলে সাফল্যের পরিচয় দিয়েছেন; জাতিসংঘের শান্তি মিশনে নিরলস পরিশ্রম করে বাংলাদেশের জন্য সুনাম কুড়িয়েছেন, পেশাগত জীবনে সততা ও নিষ্ঠার পরিচয় রেখেছেন আমৃত্যু।

Syndicate content
glqxz9283 sfy39587p07