Skip to content

আমরা যে ভাবে দেখি, পর্ব-২১ (১)

ব্লগারের প্রোফাইল ছবি

আমরা যে ভাবে দেখি, পর্ব-২১ (১)
প্রথমেই বলে রাখা ভাল, আমরা চোখের জ্যোতি দ্বারা কোন কিছু দেখিনা। চোখের এমন কোন আলোক রশ্মি নাই, যা দিয়ে আমরা কোন কিছূ দেখতে পারি।
তা হলে আমরা কী ভাবে কোন বস্তু দেখে থাকি?
এর একটি মাত্রই উত্তর, যা হল, বস্তুটা হতে যদি আলোক রশ্মী -

ক) আমাদের চক্ষু গোলকের ১)কর্নিয়া ২) পিউপিল ৩) লেন্স ও ৪) ভিট্রিয়াস হিউমার, অতিক্রম করিয়া সর্ব পিছনের রেটিনা নামক স্নায়ূ স্তরে পৌছাইতে পারে। (চিত্র-৩ দেখুন)এবং

খ) এই রেটিনার বিশেষ কোষ (RODS & CONES) ১) সংগৃহিত আলোক রশ্মীটাকে NERVE IMPULSE বা বৈদ্যুতিক প্রবাহে রুপান্তরিত করে, ( চিত্র-৪)২) OPTIC NERVE বা অপটিক স্নায়ুর মধ্যদিয়ে প্রবাহিত করে,(চিত্র-৫) ৩) মস্তিস্কের পিছনের দেখার দৃষ্টি কেন্দ্রে (VISUAL CORTEX) এ পৌছাইতে পারে ও দৃষ্টি কেন্দ্র (VISUAL CORTEX)টি সঠিক ভাবে কাজ করতে সক্ষম থাকে।(চিত্র-৬)

কোন পদার্থ হতে বিচ্ছুরিত আলোক রশ্মী, আমাদের চক্ষুগোলক ও মস্তিস্ককে জড়িয়ে, এতগুলী ঘটনা যদি সঠিক ভাবে ঘটে তাহলে তখন আমরা সেই বস্তুটাকে দেখতে সক্ষম হই। এর কোথাও কোন ধরনের বিঘ্ন ঘটলে তখন আমরা আর দেখতে পাইনা।

চোখের পাতা (চিত্র-২)উন্মুক্ত করিলে, পদার্থ হতে আলোক রশ্মী ঠিক ক্যামেরায় (চিত্র-১) যেমন লেন্স এর মধ্য দিয়ে ফিল্ম এর উপর পড়ে চিত্র অঙ্কিত হয়, আলোক রশ্মী ঠিক তদ্রুপ চোখের মধ্যের লেন্স এর মধ্য দিয়ে চক্ষু গোলকের সর্ব পিছনের রেটিনা স্তরের উপর পড়ে পদার্থটির চিত্র অঙ্কন করে ফেলে।

এরপর রেটিনার RODS এবং CONES নামক স্নায়ূ কোষ গুলী চিত্রটিকে বৈদ্যুতিক প্রবাহে রুপান্তরিত করিয়া OPTIC স্নায়ূর মধ্য দিয়ে মস্তিস্কের পিছনে VISUAL CENTER বা দৃষ্টি কেন্দ্র পর্যন্ত পৌছাইয়া দিলে আমরা বস্তুটিকে দেখতে পারি।
(চিত্র-৪,৫,৬,৭)





Figure source-http://thebrain.mcgill.ca/flash/d/d_02/d_02_cr/d_02_cr_vis/d_02_cr_vis.html

চিত্র-১ চক্ষুগোলকের লেন্স ঠিক একটি ক্যামেরার লেন্সএর মত ব্যবহৃত হয়।




Figure source-http://thebrain.mcgill.ca/flash/d/d_02/d_02_cr/d_02_cr_vis/d_02_cr_vis.html
চিত্র-২ চোখের পাতা উন্মুক্ত করার পর আলোক রশ্মী চোখের অভ্যন্তরে প্রবেশ করতে পারে।



Figure source- https://en.wikipedia.org/wiki/Visual_system

চিত্র-৩ চক্ষুগোলক ,পার্শ হতে মাঝখান দিয়ে আড়াআড়ি খন্ডন (SAGITTAL SECTION)


Figure source- http://webvision.med.utah.edu/book/part-i-foundations/simple-anatomy-of-the-retina/
চিত্র-৪ রেটিনা,যেখানে RODS & CONES স্নায়ূ কোষ গুলী আলোক রশ্মীকে বৈদ্যুতিক প্রবাহে রুপান্তরিত করে।
আর হ্যাঁ, RODS & CONES স্নায়ূ কোষ গুলী কী ভাবে আলোক রশ্মীকে বৈদ্যুতিক প্রবাহে রুপান্তরিত করে?
এর জন্য ১৭ তম পর্ব (স্নায়ূ কোষ) ও ১৮ তম পর্ব পুনরায় দেখুন।



Figure source- http://www.theodora.com/anatomy/the_optic_nerve.html
চিত্র-৫, OPTIC NERVE যে পথ দিয়ে বৈদ্যুতিক প্রবাহ RETINA হতে VISUAL CORTEX (দৃষ্টি কেন্দ্র)পর্যন্ত বহন করে আনে, যা মস্তিস্কের পিছন অংসে অবস্থিত।












Figure source- http://thebrain.mcgill.ca/flash/d/d_02/d_02_cr/d_02_cr_vis/d_02_cr_vis.html
চিত্র ৬- মস্তিকের পিছনাংশে দৃষ্টি কেন্দ্র (VISUAL CORTEX)। মস্তিস্কের পার্শ হতে মধ্য দিয়ে একটি SECTION এ দেখানো হয়েছে।



Figure source- http://thebrain.mcgill.ca/flash/d/d_02/d_02_cr/d_02_cr_vis/d_02_cr_vis.html
চিত্র-৭ মস্তিস্কের উপর হতে মাঝখান দিয়ে খন্ডনে মস্তিস্কের দৃষ্টি কেন্দ্র (VISUAL CENTER)

তা হলে মোদ্দা কথা দাড়াল আমরা শুধুমাত্র চোখ দ্বারা দেখিনা। বরং মস্তিস্কই আমাদেরকে দেখার জন্য মস্তবড় ভূমিকা পালন করে।
চোখের যদি কোন আলোক রশ্মী থাকত তাহলে আমাদের অন্ধকারেও দেখতে কোন অসুবিধা হইতোনা।
সব কিছু একত্রে বিস্তারিত বর্ণনা করতে গেলে পাঠকদের জন্য কঠিন হইবে এ কারণে ক্ষুদ্রকারে ও খন্ডাকারে প্রকাশ করতে চাচ্ছি।

চলতে থাকবে।
অন্যান্য পর্বগুলী এখানে দেখুন- http://www.chkdr02.wordpress.com
Updated on- 7/24/2016

২১ তম পর্বের সূত্র-১,২,৩,৪,৫
১)http://thebrain.mcgill.ca/flash/d/d_02/d_02_cr/d_02_cr_vis/d_02_cr_vis.html
২) http://en.wikipedia.org/wiki/Visual_system
৩)http://webvision.med.utah.edu/imageswv/schem.jpeg
৪)http://en.wikipedia.org/wiki/Retina
RETINAL WORK
৫)http://www.vetmed.vt.edu/education/curriculum/vm8054/EYE/CNSPROC.HTM

glqxz9283 sfy39587p07